‘আল্লামা শফির বক্তব্যের সঙ্গে রাষ্ট্রনীতির সামঞ্জস্যতা নেই’

সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল / ছবি: বার্তা২৪

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, চট্টগ্রাম, বার্তা২৪.কম

বাংলাদেশের মেয়েদের স্কুল-কলেজে না পড়ানো নিয়ে হেফাজতের আমির আল্লামা শফির দেওয়া বক্তব্যের সমালোচনার মধ্যে মুখ খুললেন শিক্ষা উপমন্ত্রী অ্যাডভোকেট মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল।

তিনি বলেছেন, ‘এটা একান্তই তাঁর (আল্লামা শফি) নিজস্ব মতামত। তিনি শিক্ষানীতি প্রণয়ন বা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কোনো নির্বাহী দায়িত্বে নেই। এর সঙ্গে রাষ্ট্রনীতির কোনো সামঞ্জস্যতা নেই। অনেকেই অনেক রকমের অভিমত প্রকাশ করে থাকে।’

শনিবার (১২ জানুয়ারি) সকালে নগরীর চশমাহিলের নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এসব কথা বলেন।

জানা গেছে, শুক্রবার (১০ জানুয়ারি) হাটহাজারীর দারুল উলুম মাদরাসার মাঠে ১১৮তম বার্ষিকী মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রায় ঘণ্টাব্যাপী বক্তব্যের এক সময়ে হেফাজতের আমির আল্লামা শফি মেয়েদের স্কুলে-কলেজে না পাঠানের জন্য আহ্বান জানান। আর পাঠালেও ফোর-ফাইভে পড়ানোর কথা জানান। বক্তব্যটি গণমাধ্যমে প্রকাশ হওয়ার পরে নতুন করে সমালোচনার জন্ম দেয়। এ বিষয়ে নওফেলের মনোযোগ আর্কষণ করেন সাংবাদিকরা।

নওফেল বলেন, ‘বংলাদেশ একটি অসাম্প্রদায়িক দেশ। পাঠ্যপুস্তকে সাম্প্রদায়িক কোনো বিষয় অন্তর্ভুক্ত না হওয়ার জন্য সরকার সতর্ক রয়েছে। অতীতে যারা এই কাজের সঙ্গে জড়িত ছিল তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। দেশের নাগরিক হিসবে যে কোনো নাগরিক তাদের বাকস্বাধীনতা প্রকাশ করবেন। কিন্তু দেখতে হবে সরকার তার বাস্তব প্রতিফলনের ক্ষেত্রে এসব বিষয়গুলোতে ফুঠে উঠছে কিনা। সেক্ষেত্রে আমরা কারও প্রতি বৈষম্য বা অন্যায় করছি কিনা তাও ভেবে দেখতে হবে।’

মতবিনিময় সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন- চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (সিডিএ) চেয়ারম্যান এম এ ছালাম, চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সভাপতি কলিম সরওয়ার, সাধারণ সম্পাদক শুকলাল দাশ, সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি নাজিমউদ্দিন শ্যামল প্রমুখ। এরপর সকালেই নওফেল ঢাকার উদ্দেশে চট্টগ্রাম ত্যাগ করেন।

জাতীয় এর আরও খবর