Alexa

বসন্তের ভালোবাসায় ফুলের বাজার ভারী

বসন্তের ভালোবাসায় ফুলের বাজার ভারী

পহেলা ফাল্গুন, ভালবাসা দিবস ও ২১ ফেব্রুয়ারিকে কেন্দ্র করে রংপুরে বেড়েছে ফুলের চাষ/ ছবি: বার্তা২৪.কম

রাত পোহালেই পহেলা ফাল্গুন। আগমন ঘটবে ঋতুরাজ বসন্তের। নতুন প্রাণের সঞ্চারে প্রকৃতি সাজবে নতুন রঙে। বাসন্তিক সাজে প্রকৃতির সাথে রঙিন হয়ে উঠবে তারুণ্য। ঋতুরাজের আগমনের সাথে কদর বেড়েছে ভালোবাসার ফুলের। এখন ব্যস্ত সময় কাটছে ফুল চাষী ও ব্যবসায়ীদের।

বসন্ত বরণ আর ভালোবাসা দিবসকে এখন ফুলের বাজার বড়ই ভারী। বিকিকিনিতে নেই দম ফেলানোর ফুসরত। বর্তমানে ফুলের চাহিদা বাড়ায় দাম বাড়িয়েছেন ব্যবসায়ীরা। তবে দর বাড়লেও ফুলের কদর কমেনি ফুলপ্রেমীদের কাছে। রংপুরের ফুলের বাজার ঘুরে এমনটাই দেখা গেছে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Feb/13/1549996498479.gif

মঙ্গলবার (১২ ফেব্রুয়ারি) সকালে দেখা মেলে নগরীর নিউ ইঞ্জিনিয়ার রোডের ফুল ব্যবসায়ী গোলজার হোসেন লিটনের। সৌখিন ফুল বিতানের মালিক তিনি। তাকে দোকানে অর্ডার নিতে ব্যস্ত দেখা যায়।

এ সময় বার্তা২৪.কমকে তিনি জানান, জানুয়ারি থেকে মার্চ পর্যন্ত ফুলের চাহিদা বেশি। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি চাহিদা বাড়ে ফেব্রুয়ারির পহেলা ফাল্গুনে, ভালোবাসা দিবস আর শহীদ দিবসে।

দামের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘এখন ফুল চাষীরা ফুলের চাহিদা মেটাতে পারছেন না। এই কারণে ফুলের দাম বেশি।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Feb/13/1549996516350.gif

বর্তমানে ফুলের রমরমা ব্যবসা হচ্ছে দাবি মিন্টু ফুল বিতানের মালিক মিন্টু মিয়া বলেন, এখন সর্বনিম্ন একটা ফুলের স্টিক ২০ টাকা। এছাড়াও গত কয়েকদিনের তুলনায় এখন একটু দাম বেশি। জারবারা ফুল ৩০ থেকে ৫০ টাকা, গোলাপ ফুল কালার ও কলি ভেদে প্রতি স্টিক ২৫ থেকে ৫০ টাকা, রজনীগন্ধা প্রতি স্টিক ২০-৩৫ টাকা।

গাঁধা ফুলের খোপার চেইন ৪০ থেকে ৬০ টাকা, কাঠবেলির চেইন ৩০ থেকে ৫০ টাকা এবং অরকিট ৮০ থেকে ১০০ টাকা পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে। এছাড়াও শাপলা, পদ্ম, গন্ধরাজ, সূর্যমূখী, বকুল, চাপা, হাসনাহেনা, গ্লাডিওলাস সহ বিভিন্ন ফুলের চাহিদা থাকলেও সবচেয়ে বেশি বিক্রি হচ্ছে গোলাপ ও রজনীগন্ধা ফুল।

এদিকে পুলিশ লাইন্স স্কুল এন্ড কলেজ রোডের নয়ন ফুল ঘর ও মাধবী ফুল বিতানের মালিক জানান, বিশেষ দিবসগুলোতে ফুলের বাজার বরারবই বেশি থাকে। এখন চাহিদা বেশি এজন্য ফুলের দামও বেশি। তবে ব্যবসায়ীরা নিজের ইচ্ছায় দাম বাড়ায় দাবি করে তারা বলেন, ফুল চাষীরাই দাম বাড়িয়েছে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Feb/13/1549996535120.gif

এব্যাপারে নগরীর উত্তম হাজিরহাট এলাকার ফুল চাষী আবদুস সালাম বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘সব সময় ফুলের বাজার এক রকম থাকে না। এখন ফুলের সিজন চলছে। একারণে চাহিদাও বেশি, দামও বেশি।’

অন্যদিকে হাজিরহাট মুচির মোড়ের সাঈদ নার্সারির তত্ত্বাবধায়ক রহমত উল্লাহ্ বলেন, ‘বর্তমানে একশ গোলাপ ১৫০০ থেকে ২০০০ টাকা পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া অন্য ফুলগুলোতে প্রতি একশতে ৩০০ থেকে ৪০০ টাকা করে দাম বেড়েছে। তারপরও চাহিদা মেটানো যাচ্ছে না।’

রংপুরের ফুল ব্যবসায়ী সমিতির নেতা ফিরোজ শাহ্ জানান, ‘ফেব্রুয়ারিতে সবচেয়ে বেশি ফুল বিক্রি হয়ে থাকে। এই মাসে রংপুরসহ আশপাশের জেলাতে প্রায় কোটি টাকার ফুল বেচা-কেনা হয়।’