Barta24

শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯, ৪ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

গরম ও স্পিন নিয়ে অপেক্ষায় এশিয়া কাপ!

গরম ও স্পিন নিয়ে অপেক্ষায় এশিয়া কাপ!
দুবাইয়ে অনুশীলনে সাকিব
স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

যে কোন টুর্নামেন্ট শুরুর আগে এখন সবচেয়ে বেশি যে বিষয়টি নিয়ে আলোচিত হয় তা হল কন্ডিশন। পরিবেশ-পরিস্থিতি কেমন? আবহাওয়া কেমন? পারিপাশ্বিকতাই বা কেমন? উইকেটের গঠন চরিত্র কেমন? কারা এখনো বেশি সুবিধা পাবে; ইত্যকার বিষয়ের সঙ্গে খাপ খাইয়ে নেয়ার একটা বড় বিষয় থাকে।

সেই বড় বিষয়টা যেন এবার বেশি ‘বড়’ না হয় সেজন্যই বাংলাদেশ বেশ আগেভাগেই আরব আমিরাত পৌছেছে। দল নিয়ে অনুশীলনও করেছে। রাতের আলোতেও অনুশীলনে নিজেদের ঝালিয়ে নিয়েছে বাংলাদেশ। দল হিসেবে আরব আমিরাতের এই কন্ডিশন বাংলাদেশ দলের জন্য একেবারে নতুন। এই দলের কয়েকজন খেলোয়াড়ের আরব আমিরাতের মাটিতে খেলার অভিজ্ঞতা রয়েছে। কিন্তু বাংলাদেশের বর্তমান দলটি এই প্রথম সংযুক্ত আরব আমিরাতের মাটিতে খেলতে গিয়েছে। আর অনুশীলনের প্রথমদিন থেকে যে বিষয়টা দলের খেলোয়াড়রা বাড়তি যন্ত্রণা হিসেবে পাচ্ছেন তা হল আমিরাতের গরম। তাপমাত্রা কোনদিনই ৩৭ ডিগ্রী সেলসিয়াসের নিচের নামছে না! এই যন্ত্রণা শনিবার ১৫ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচের দিন আরও বাড়ছে। দুবাইয়ের আবহাওয়া দপ্তর জানাচ্ছে সেদিন তাপমাত্রা থাকবে সর্বোচ্চ ৪৩ ডিগ্রী সেলসিয়াস!

পারলে আইস জ্যাকেট নিয়ে খেলতে হবে ক্রিকেটারদের। দুবাইয়ের এই অসহনীয় গরমের ব্যাপারে দলের বাকিদের আগে থেকেই সাবধান করে দিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ ও তামিম ইকবাল। এখানকার এই কন্ডিশনে ক্রিকেট খেলার অভিজ্ঞতা এই দুজনের আছে বেশ। একে তো প্রচন্ড গরম, সঙ্গে বাতাসে আর্দ্রতা-ক্রিকেটের জন্য মোটেও উপযুক্ত বা মন ভাল করার মতো পরিবেশ এই মুহূর্তে নেই দুবাইয়ের এশিয়া কাপে।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের উইকেট সাধারণত ব্যাটিং উপযোগীই হয়ে থাকে। তবে প্রতি ম্যাচেই এখানে তিনশ’ ছাড়ানো স্কোর হবে-এমন সুবোধ চিন্তা না করাই ভাল। পরিসংখ্যান জানাচ্ছে আমিরাতের উইকেটে ওয়ানডে ক্রিকেটে তিনশ ছাড়ানো স্কোর খুব একটা নেই। দুবাই স্টেডিয়াম এবং আবুধাবীর শেখ আবু জায়েদ স্টেডিয়াম; এই দুই স্টেডিয়ামেই এবার এশিয়া কাপের সবগুলো ম্যাচের আয়োজন হবে। এই দুই স্টেডিয়ামে সাকুল্যে মাত্র পাঁচটি ম্যাচে দলীয় স্কোর তিনশ ছাড়িয়েছে। আর তাই এখানকার উইকেটে রান বন্যার অপেক্ষায় থাকলে ঠকতে হবে। 

তবে আমিরাতের উইকেটে যা আছে তা দেখে স্পিনারদের চোখ চকচকে হয়ে উঠতেই পারে। প্রচন্ড গরম আবহাওয়া মোটেও পেস বোলারদের সহায়ক নয়। ৫০ ওভার বোলিং কোটা পুরো করার জন্য প্রায় সবদলই স্পিনারদেরই বেশি ব্যবহার করার পরিকল্পনা করছে। আর তাই টুর্নামেন্টের শীর্ষ চার দল ভারত, পাকিস্তান, বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কা এবারের এশিয়া কাপের দল সাজিয়েছে একগাদা স্পিনারদের নিয়ে। আফগানিস্তান টুর্নামেন্টে এসেছে স্পিন শক্তি বাড়িয়ে। আমিরাতের দুই স্টেডিয়ামের ওয়ানডে ম্যাচের পরিসংখ্যান স্পিনারদের গুনগানই গাইছে। যে দুই স্টেডিয়ামে এবার এশিয়া কাপ অনুষ্ঠিত হচ্ছে সেখানে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারির শীর্ষ তিনজনের মধ্যে দুজনই স্পিনার!

আপনার মতামত লিখুন :

শ্রীলঙ্কা সফরে তামিম অধিনায়ক

শ্রীলঙ্কা সফরে তামিম অধিনায়ক
মাশরাফির ইনজুরিতে নেতৃত্বে তামিম

শনিবার দুপুরে শ্রীলঙ্কার পথে দেশ ছাড়ার কথা বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। তিন ওয়ানডের মিশন। কিন্তু তার আগে জাতীয় দলে বড় রকমের পরিবর্তন! ইনজুরিতে সফর থেকে ছিটকে গেলেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। নতুন করে চোটে পড়ে সফর শেষ অধিনায়কের। বাধ্য হয়েই তার বিকল্প খুঁজে নিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

তিন ম্যাচ ওয়ানডের এই সিরিজে দলকে নেতৃত্ব দেবেন অভিজ্ঞ ওপেনার তামিম ইকবাল। শুক্রবার রাতে তাকে নেতৃত্ব দিয়েছে বিসিবি।

আর মাশরাফির ইনজুরিতে দলে জায়গা পেলেন অলরাউন্ডার ফরহাদ রেজা। লঙ্কান সফরে দলে নেই মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনও। তার বদলে নির্বাচক সুযোগ দিলেন পেসার তাসকিন আহমেদকে।

শুক্রবার সন্ধ্যায় মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুশীলন করতে গিয়ে চোট পান মাশরাফি। চোট গুরুতর। এ অবস্থায় শ্রীলঙ্কায় যাওয়া হচ্ছে না। বিসিবির চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী গণমাধ্যমে জানান, ‘মাশরাফি সিরিজ থেকে ছিটকে পড়েছে। চোট থেকে সেরে উঠতে কমপক্ষে তিন সপ্তাহ লাগবে।’

আগামী ২৩ জুলাই খেলবে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে শ্রীলঙ্কা সফর। এরপর আগামী ২৬, ২৮ ও ৩১ জুলাই স্বাগতিকদের সঙ্গে তিনটি ওয়ানডে খেলবে বাংলাদেশ।

ওয়ানডের বাংলাদেশ দল-
তামিম ইকবাল, মাহমুদউল্লাহ, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোহাম্মদ মিঠুন, তাসকিন আহমেদ, মুশফিকুর রহিম, মুস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন, সাব্বির রহমান, সৌম্য সরকার, ফরহাদ রেজা, মোসাদ্দেক হোসেন, তাইজুল ইসলাম, এনামুল হক।

ইনজুরিতে শ্রীলঙ্কা সফর শেষ মাশরাফির

ইনজুরিতে শ্রীলঙ্কা সফর শেষ মাশরাফির
শ্রীলঙ্কা সফরে যেতে পারছেন না মাশরাফি

হঠাৎ করেই দুঃসংবাদ! দল শ্রীলঙ্কায় তিনটি ওয়ানডে খেলতে দেশ ছাড়বে শনিবার দুপুরে। তার আগে শুক্রবার জানা গেল অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা ইনজুরিতে। আর সেই চোট একেবারে মামুলি নয়। নতুন চোটে রীতিমতো তার শ্রীলঙ্কা সফরটাই শেষ।

শুক্রবার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সন্ধ্যায় অনুশীলন করতে গিয়ে চোট পেয়েছেন মাশরাফি। এরপরই জানা গেছে-আগের জায়গাতেই নতুন করে চোট পেলেন তিনি। চোট গুরুতর। এ অবস্থায় শ্রীলঙ্কায় যাওয়া হচ্ছে না। এমনই ইঙ্গিত টিম ম্যানেজম্যান্টের!

বিসিবির চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী গণমাধ্যমে জানান, ‘মাশরাফি সিরিজ থেকে ছিটকে পড়েছে। চোট থেকে সেরে উঠতে কমপক্ষে তিন থেকে চার সপ্তাহ লাগবে।’ 

২০১৪ সালে নেতৃত্ব পেয়ে চোট সামলে বেশ খেলছিলেন মাশরাফি। ইনজুরিতে এরপর  কোনো ম্যাচ মিস করেননি। হ্যামস্ট্রিংয়ের সঙ্গে লড়ে খেলিছেলন বিশ্বকাপে। কিন্তু এবার চলে গেলেন মাঠের বাইরে!

এর আগে সংবাদ সম্মেলনে যদিও মাশরাফি জানিয়ে দেন, দলের সঙ্গে শ্রীলঙ্কা সফরে তিনি যাচ্ছেন। আর এটাই নিজের শেষ বিশ্বকাপ কীনা এনিয়ে টাইগার ক্যাপ্টেন সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘আমারটা আমি বলতে পারছি না।অবসর নিয়ে চিন্তা করিনি। খেলতে যাচ্ছি শ্রীলঙ্কায়, খেলা নিয়ে চিন্তা করছি। আমার কাছে খেলাটা ছাড়া অনেক বড় ব্যাপার।’

তবে জানিয়ে রাখলেই খেলোয়াড় হিসেবে এটিই তার শেষ লঙ্কা সফর। বলেন ‘এটা বলতে পারি-শ্রীলঙ্কায় আমার শেষ সফর। যেহেতু অনেক দিন খেলানেই। শ্রীলঙ্কায় শেষবারের মতো যাচ্ছি, বিশ্বকাপের আগে যেভাবে বলেছিলাম, সেভাবেই বলছি। আসার পর হয়তো সময় পাব।’

ইংল্যান্ড বিশ্বকাপটের সময়ই ভাসছিল মাশরাফির অবসর গুঞ্জন। টুর্নামেন্টে মাত্র ১ উইকেট শিকার করে সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি। অনেকে মনে করেছিলৈন ফিরেই অবসর নেবেন। তবে হাল ছাড়ছেন না ৩৫ বছর বয়সী এই তারকা।

বিশ্বকাপ ব্যর্থতা প্রসঙ্গে আরো একবার বলেন, ‘বাংলাদেশের প্রেক্ষাপট জানি, ১৮ বছর ক্রিকেট খেলছি। মানুষ খুব দ্রুত প্রশ্ন করা শুরু করবে। প্রত্যাশা পূরণ না হলে আমার মন খারাপ তো হবেই। তবে এখান থেকে ঘুরে দাঁড়ানোর মানসিকতাও আছে। যেটা আগে করেছি। অনেক টুর্নামেন্টে দল হিসেবে হারানোর কিছু নেই। আমারও তাই হারানোর কিছু নেই।’

২৩ জুলাই খেলবে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে শ্রীলঙ্কা সফর। এরপর আগামী ২৬, ২৮ ও ৩১ জুলাই স্বাগতিকদের সঙ্গে তিনটি ওয়ানডে খেলবে বাংলাদেশ।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র