নতুন ইতিহাস গড়ার লক্ষ্যে মাশরাফির বাংলাদেশ

নিউজিল্যান্ডে মুশফিক-মুস্তাফিজরা

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট,বার্তা২৪.কম

ইতিহাসটা জানা ছিলো তামিম ইকবালের। তারপরও আশা-যদি জানা’টা ভুল হয়!

নিউজিল্যান্ড সফরের প্রসঙ্গ উঠতেই তামিম বললেন-‘আমরা তো বোধহয় ওখানে কখনো কোন ম্যাচ জিতিনি, তাই না?’ নিজের জানা তথ্যটা যেন ভুল হয়, সেই অপেক্ষায় রইলেন বাংলাদেশের ওপেনার!

তামিমের জানা শতভাগ ঠিক। নিউজিল্যান্ডের মাটিতে বাংলাদেশ কখনো কোন ম্যাচে জিতেনি। দ্বিপাক্ষিক সিরিজ বা কোন টুর্নামেন্টে অন্য কোন দলের বিপক্ষেও নিউজিল্যান্ডের মাটি মানেই বাংলাদেশের হার!

জমে থাকা জানা এই ইতিহাস এবার বদলে দিতে চায় বাংলাদেশ। সৌভাগ্যের বিষয় হলো এবারের সিরিজে নিজেদের সেরা পছন্দের ফরমেটেই নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ। ১৩ ফেব্রয়ারি, বুধবারের ভোর ৭টায় নেপিয়ারে শুরু হচ্ছে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচ।

মাঠের নাম যখন নেপিয়ারের ম্যাকলিন পার্ক, তখন ইতিহাস আবারো বেশ বিরূপভাবেই বাংলাদেশের বিপক্ষে। এই মাঠে এখন পর্যন্ত দুটি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। দু’দফায় নিউজিল্যান্ড রান তুলেছে তিনশ’র ওপরে। বাংলাদেশ হেরেছে ১০২ ও ১৪৬ রানের বিশাল ব্যবধানে। দুই ম্যাচেরই ফল জানাচ্ছে-একতরফা ভাবে হেরেছে বাংলাদেশ। অর্থাৎ নো কনটেষ্ট ম্যাচ। এখানে এখন পর্যন্ত অনুষ্ঠিত একমাত্র টি-টুয়েন্টি ম্যাচেও বাংলাদেশ হেরেছে বড় ব্যবধানে, ৬ উইকেটে।

নেপিয়ারের ম্যাকলিন পার্কে পা রাখার পর নিশ্চয়ই সেইসব ম্যাচের দুঃসহ স্মৃতি তামিম ইকবালের মনে পড়ে যাওয়ার কথা। এই মাঠের দুটি ওয়ানডে এবং একমাত্র টি-টুয়েন্টির সেই দলে তামিম ইকবাল ছিলেন বাংলাদেশের ওপেনার।

বলা হয়ে থাকে নেতিবাচক পর্যায় থেকে যে ইতিবাচক কিছু বের করে নিয়ে আসতে পারে- সেই প্রকৃত বিজয়ী। নেপিয়ারের ম্যাকলিন পার্কের দুর্বিসহ সেই দুটি ওয়ানডের স্কোরকার্ড আরেকবার দেখলে তামিম ইকবাল নিশ্চয়ই আশা জাগানোর মতো ইতিবাচক কিছু একটা অবশ্যই খুঁজে পাবেন। এই মাঠের সেই দুই ম্যাচে তার রান ৪৩ ও ৬২।

আর প্রতিপক্ষ যখন নিউজিল্যান্ড তখন সর্ব সাম্প্রতিক ইতিহাস যে বাংলাদেশের গানই গাইছে। দু’দলের সর্বশেষ মোকাবেলায় নিউজিল্যান্ডকে বেশ ভালভাবেই হারিয়েছে বাংলাদেশ! ২০১৭ সালের জুনে ইংল্যান্ডের কার্ডিফে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশ ৫ উইকেটে ম্যাচ জিতে।

একটু জানিয়ে দেই-সেই ম্যাচে বাংলাদেশের দুই সেঞ্চুরিয়ান সাকিব আল হাসান ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। নিউজিল্যান্ডের ২৬৫ রানের পিছু তাড়া করতে নেমে সেই ম্যাচের বাংলাদেশ একসময় মাত্র ৩৩ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে বসে। যারা ভাবছিলেন সেখানেই বাংলাদেশের ম্যাচ শেষ; তারা বড় ভুল ভাবছিলেন! মাহমুদউল্লাহ ও সাকিবের সেঞ্চুরিতে সেই ম্যাচ বাংলাদেশ জিতে নেয় ৫ উইকেটে।


নিউজিল্যান্ডের মাটিতেও কখনো না জেতা বাংলাদেশকে নিয়ে যারা এখনই চুড়ান্ত হিসেব করে ফেলছেন, কে জানে সিরিজ শেষে তাদেরকেই না আবার নতুন করে ‘সরল অঙ্ক’ কষতে হবে।

ওয়ানডে সিরিজে সাকিবকে ছাড়াই এবার নিউজিল্যান্ডের মাটিতে ক্রিকেট বিষয়ক ইতিহাস বদলে দিতে চায় বাংলাদেশ।

গুডলাক!

খেলা এর আরও খবর