জনরায়ের মধ্যে দিয়েই সরকারের পতন হবে: মির্জা ফখরুল

রাজশাহীতে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশ/ ছবি: বার্তা২৪.কম

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, 'ফ্যাসিস্ট স্বৈরাচারী আওয়ামী লীগ সরকারের পতন জনগণের রায়ের মধ্যে দিয়েই হবে।’

রাজশাহীর সরকারি মাদ্রাসা মাঠে শুক্রবার (৯ নভেম্বর) বিকালে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘৭ দফার দাবি আদায়ে ও গণতন্ত্রের এই আন্দোলনকে সফল করবই করবো, এই শপথ নিতে হবে। ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মধ্য দিয়েই তাদের পতন হবে।’

উপস্তিত নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘যদি দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে চান, তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে আনতে চান, তাহলে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মধ্য দিয়ে দাবি আদায় করতে হবে। জনগণের রায় ও সরকার প্রতিষ্ঠিত করতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘সময় খুব সংকীর্ণ, সংকট আরো কঠিন। আজকে প্রশ্ন, আমাদের স্বাধীনতা থাকবে কি থাকবে না, অধিকারগুলো থাকবে কিনা, সংগঠন করার অধিকার থাকবে কি থাকবে না।’

বিএনপি এই নেতা বলেন,  ‘দেশনেত্রী খালেদা জিয়া আজ কারাগারে প্রচণ্ড অসুস্থ। তাঁর জন্য কারাগারের মধ্যে ১০ ফিট বাই ২০ ফিটের ছোট একটি ঘরের মধ্যে আদালত স্থাপন করা হয়েছে। তাঁকে কারাগারের অন্ধকারে, তিলে তিলে হত্যা করা হচ্ছে। যা ব্রিটিশ আমলে হয়নি, পাকিস্তান আমলে হয়নি। অথচ এখন তাই হচ্ছে।’ ফখরুল বলেন, ‘আওয়ামী লীগ পুলিশ দিয়ে জনগনের অধিকারকে আটকে রাখতে চায়। মামলা দেওয়া ছাড়া আর কোনো অস্ত্র তাদের নেই। সেই অস্ত্র দিয়েও ঘায়েল করতে পারেনি তার প্রমাণ আজকের এই জনসভা।

মহানগর বিএনপির সভাপতি ও চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য মিজানুর রহমান মিনুর সভাপতিত্বে জনসভায় আরও উপস্থিত ছিলেন কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, জেএসডি সভাপতি আ স ম আব্দুর রব, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মওদুদ আহমদ, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আব্দুল মঈন খান প্রমুখ।

অসুস্থতার জন্য গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন সভায় উপস্তিত হতে না পারলেও মোবাইল ফোনে কিছু সময় বক্তব্য রাখেন। ড. কামাল বলেন, ‘মানুষের ভোটের অধিকার রক্ষার জন্য বলেছিলাম যে, তফসিল যেনো ঘোষণা করা না হয়, পিছিয়ে দেওয়া হয়। সবাই যেনো নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারে। কিন্তু সে দাবি না মেনে তরিঘরি করে দুই সপ্তাহের মধ্যে নির্বাচন করে ফেলার অপচেষ্টা হচ্ছে। এটা মানুষকে তাদের ভোটের অধিকার থেকে বঞ্চিত করা। এটা সংবিধান পরিপন্থী।’

রাজনীতি এর আরও খবর