২১ নভেম্বর ঈদে মিলাদুন্নবী সা.

মসজিদে নববী, মদিনা, সৌদি আরব, ছবি: সংগৃহীত

শুক্রবার (৯ নভেম্বর) বাংলাদেশের আকাশে ১৪৪০ হিজরি সনের পবিত্র রবিউল আউয়াল মাসের চাঁদ দেখা গেছে। ফলে শনিবার (১০ নভেম্বর) থেকে রবিউল আউয়াল মাস শুরু হবে। সে হিসেবে আগামী ২১ নভেম্বর, বুধবার (১২ রবিউল আউয়াল) পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উদযাপিত হবে।

শুক্রবার (৯ নভেম্বর) সন্ধ্যায় ইসলামিক ফাউন্ডেশন বায়তুল মোকাররমস্থ সভাকক্ষে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

সভায় সভাপতিত্ব করেন ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আনিছুর রহমান।

সভায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের যুগ্ম-সচিব মো. খলিলুর রহমান, ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব মু. আবদুল হামিদ জমাদ্দার, তথ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব মো. নজরুল ইসলাম, অতিরিক্ত প্রধান তথ্য কর্মকর্তা ফজলে রাব্বী, ঢাকা জেলার এডিসি (সাধারণ) মো. শহিদুজ্জামান, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সচিব কাজী নুরুল ইসলাম, বাংলাদেশ মহাকাশ গবেষণা ও দূর অনুধাবন প্রতিষ্ঠানের মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা শাহ মো. মিজানুর রহমান, বাংলাদেশ টেলিভিশনের পরিচালক (প্রশাসন) মো. শাখাওয়াত হোসেন, সরকারি মাদ্রাসা- ই- আলিয়ার অধ্যক্ষ মো. আলমগীর রহমান, ওয়াকফ প্রশাসক মো. শহীদুল ইসলাম, বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরের সহকারি পরিচালক সৈয়দ আবুল হাসান, বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের সিনিয়র পেশ ইমাম হাফেজ মাওলানা মুহাম্মদ মিজানুর রহমান, চকবাজার শাহী জামে মসজিদের ইমাম ও খতিব মাওলানা শেখ নাঈম রেজওয়ান ও লালবাগ শাহী জামে মসজিদের খতিব মুহাম্মদ নিয়ামতুল্লাহ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সভায় ১৪৪০ হিজরি সনের রবিউল আউয়াল মাসের চাঁদ দেখা সম্পর্কে সকল জেলা প্রশাসন, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রধান কার্যালয়, বিভাগীয় ও জেলা কার্যালয়সমূহ, বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর এবং মহাকাশ গবেষণা ও দূর অনুধাবন প্রতিষ্ঠান হতে প্রাপ্ত তথ্য নিয়ে পর্যালোচনা করে জানানো হয়, শুক্রবার (২৯ সফর) সন্ধ্যায় বাংলাদেশের আকাশে রবিউল আউয়াল মাসের চাঁদ দেখা গেছে।

১২ রবিউল আউয়ালে বিশ্ব সাম্য ও মানবতার বার্তাবাহী বিশ্বনবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) জন্মগ্রহণ করেন। এটি তার ওফাত দিবসও। দিনটিকে মুসলিম বিশ্ব পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) হিসেবে পালন করেন। মুসলমানসহ বিশ্বের শান্তিকামী মানুষের কাছে দিনটি অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ।

ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষে বাংলাদেশে সরকারি ছুটি পালিত হয়।

রাজধানীর বিভিন্ন সড়ক বিভাজক ও ট্রাফিক মোড়ে জাতীয় পতাকা ও কালিমা তায়্যিবা লেখা ব্যানার টানানো হয়। কিছু কিছু ভবনে আলোকসজ্জা করা হয়।

ইসলাম এর আরও খবর