শনিবার চালু হচ্ছে বাংলাদেশের দীর্ঘতম রেলপথ

শনিবার চালু হচ্ছে বাংলাদেশের দীর্ঘতম রেলপথ, ছবি: বার্তা২৪.কম

প্রথমবারের মতো চালু হচ্ছে ঢাকা থেকে পঞ্চগড় পর্যন্ত ট্রেন। ৫০৭ কিলোমিটার পথ মাড়িয়ে ২৩টি স্টেশন ঘুরে এটি পৌঁছাবে পঞ্চগড়। দূরত্বের দিক থেকে এটি বাংলাদেশের দীর্ঘতম রেলপথ।

রেলভবন জানায়, শনিবার (১০ নভেম্বর) পঞ্চগড় থেকে দ্রুতযান এক্সপ্রেস সকাল ৭টা ২০ মিনিটে ঢাকার উদ্দেশে রওয়ানা হবে। এরপর ৭টা ৫৮ মিনিটে ঠাকুরগাঁও পৌঁছাবে। সকাল ৮টায় আবার ঠাকুরগাঁও থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছাড়বে দ্রুতযান এক্সপ্রেস।

আবার একতা এক্সপ্রেস রাত ৯টায় পঞ্চগড় ছেড়ে ঠাকুরগাঁওয়ে পৌঁছাবে রাত ৯টা ৩৮ মিনিটে। সেখান থেকে রাত ৯টা ৪০ মিনিটে দিনাজপুরের উদ্দেশে ছেড়ে যাবে।

এতদিন ঢাকা থেকে দিনাজপুর পর্যন্ত চলত দ্রুতযান ও একতা এক্সপ্রেস। এই দুটি ট্রেনই এখন দিনাজপুর হয়ে পঞ্চগড় যাবে। সাপ্তাহিক বিরতি থাকবে না। দ্রুতযানে এক্সপ্রেসে ৯৪৪টি এবং একতায় ৮৯৪টি আসন রয়েছে।

এতদিন পঞ্চগড়ের যাত্রীরা ঢাকা থেকে দিনাজপুর পর্যন্ত যেয়ে, বাকি পথ শাটল ট্রেনে যেতেন। সরাসরি ট্রেন চালুর পর বন্ধ হয়ে যাবে শাটল ট্রেন।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Nov/09/1541777947422.jpg

নতুন চালু হওয়া ট্রেন সম্পর্কে কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন ম্যানেজার সিতাংশু চক্রবর্তী জানান, ঢাকা-দিনাজপুরের মধ্যে চলাচলকারী দ্রুতযান এক্সপ্রেস এবং একতা এক্সপ্রেস ট্রেন একই ধরনের কোচ, কম্পোজিশনে লাল-সবুজ রংয়ে ইন্দোনেশিয়ান কোচ দিয়ে পরিচালনা করা হবে। ট্রেনগুলো তিনটি রেক দিয়ে চালানো হবে।

ঢাকা থেকে পঞ্চগড় পর্যন্ত দ্রুতযান ও একতায় শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত (এসি) বার্থের ভাড়া ১ হাজার ৯৪২ টাকা, এসি চেয়ারের ভাড়া ১ হাজার ৫৩ টাকা, নন এসি বার্থের ভাড়া ১ হাজার ১৪৫ টাকা ও শোভন চেয়ারের ভাড়া ৫৫০ টাকা।

গত ২৯ মার্চ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঠাকুরগাঁও এসে আন্তঃনগর ট্রেন চালু করা হবে বলে আশ্বাস দিয়ে এসেছিলেন। এরপর মূলত রেল মন্ত্রণালয় উদ্যোগী হয় এ ট্রেন চালুর বিষয়ে। যা কাল থেকে চলাচল শুরু করবে।

জাতীয় এর আরও খবর