হাসপাতাল থেকেই সুখবর দিলেন ইমাম

বাউন্সারে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন ইমাম

শঙ্কায় পড়ে গিয়েছিলেন সবাই! কারো স্মৃতি আবার ফিরে এসেছিল রমন লাম্বার স্মৃতি। যিনি ঢাকার মাঠে বলের আঘাতে চলে গিয়েছিলেন না ফেরার দেশ। ফিলিপ হিউজের মাথায় বল লেগে অকাল মৃত্যুর প্রসঙ্গটাও ঘুরে ফিরে এসেছিল। কিন্তু না, স্বস্তির খবর মিলেছে। ইমাম-উল-হক জ্ঞান হারিয়ে হাসপাতালে গেলেও এখন সুস্থ!

দলের এই ব্যাটসম্যানের চোট পাকিস্তানের জয়টাকেও শুক্রবার রাতে ম্লান করে দিয়েছিল। সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ৬ উইকেটে জিতে স্বাগতিকরা। লক্ষ্য ছিল ২১০ রান। তা ৫৭ বল বাকি থাকতেই পূরণ করে ফেলে। চার বছর পর নিউজিল্যান্ডের ওয়ানডে জয়ের পরও আনন্দে মাততে পারেনি পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা।

কারণ তখন হাসপাতালে ইমাম-উল-হক। আবুধাবির মাঠ থেকেই সোজা তাকে নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে। ১৬ রান নিয়ে ব্যাট করছিলেন ইমাম। ইনিংসের ১৩তম ওভারে বল করতে আসেন লোকি ফার্গুসন। কিউই পেসারের প্রথম বলটিই ছিল বাউন্সার। ইমাম-উল হক চেষ্টা করেন পুল গিয়ে ফ্লাইট মিস করেন। বল আঘাত হানে তার হেলমেটের গ্রিলে। তারপর চিবুকে। মাটিতে লুটিয়ে ইমাম। চোখ বন্ধ শুয়ে পড়েন উইকেটের পাশে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Nov/10/1541840926011.jpg

অন্যপ্রান্তে ব্যাটসম্যান ফাখর জামানের সঙ্গে দৌড়ে আসেন কিউই ক্রিকেটাররাও। ছুটে আসেন ডাক্তার আর ফিজিও। তারা পর্যবেক্ষণ শেষে চটজলদি ডেকে আনেন অ্যাম্বুলেন্স। দ্রুত নিয়ে যান হাসপাতালে।

এমআরআই ছাড়াও অন্য পরীক্ষা শেষে ডাক্তাররা জানান শঙ্কামুক্ত ২২ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার। হাসপাতাল থেকেই সুখবর দেন তারই সতীর্থ শোয়েব মালিক। জানান বিশ্রামেই সব ঠিক হয়ে যাবে। হাফ ছেড়ে বাঁচেন ইনজামাম-উল হকের ভাতিজা! ভক্তরাও স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেন, ক্রিকেটে আরেকটি ট্র্যাজেডি দেখতে হল না!

খেলা এর আরও খবর