খালেদার রায় নিয়ে পাল্টাপাল্টি অবস্থান আইনজীবীদের

খালেদার রায় নিয়ে পাল্টাপাল্টি অবস্থানে আওয়ামী লীগ (ডানে) ও বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা/ ছবি: বার্তা২৪.কম

ফেনী-১, বগুড়া-৬ ও বগুড়া-৭ আসন থেকে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার প্রার্থিতা ফিরে পাওয়ার আপিল পাঁচ সদস্যের নির্বাচন কমিশনে ৪-১ ভোটে বাতিল করেছে কমিশনের অস্থায়ী এজলাস।

নির্বাচন কমিশনে আপিলের রায় ঘোষণার পর বিষয়টি নিয়ে পাল্টাপাল্টি অবস্থানে আওয়ামী লীগ ও বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা।

আপিল শুনানিতে উপস্থিত ছিলেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা, নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার, মো. রফিকুল ইসলাম, কবিতা খানম ও অবসরপ্রাপ্ত ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শাহাদাত হোসেন চৌধুরী এবং ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ।

শনিবার (৮ ডিসেম্বর) নির্বাচন কমিশনের ১০ তলায় অবস্থিত অস্থায়ী এজলাসে খালেদা জিয়ার করা আপিল নং ২৮৫ তে ফেনী-১ ৪৪১ তে বগুড়া-৬ ও ৪৭৯ তে বগুড়া ৭ আসনের শুনানি শেষে সাংবাদিকদের কাছে এই পাল্টাপাল্টি অবস্থান তুলে ধরেন দুই দলের আইনজীবীরা।

এ বিষয়ে খালেদা জিয়ার আইনজীবী জয়নুল আবেদীন বলেন, ‘নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার সকল নির্বাচন কমিশনারের সম্মতিক্রমে খালেদা জিয়ার আপিল মঞ্জুর করেছেন। কেননা বুঝতে হবে একজন নির্বাচন কমিশনার যখন রায় দেয়, তখন সে অন্য সকল কমিশনারদের মতামত নিয়েই রায় দেন। এছাড়া তিনি যখন রায় দিচ্ছিলেন তখন অন্য সকল নির্বাচন কমিশনার কোনো প্রতিবাদ করেননি।

তিনি বলেন, ‘পরে আমরা রায় শুনে চলে আসার পর অন্য বাকি চার নির্বাচন কমিশনার কী রায় দিয়েছেন সেটি আমাদের দেখার বিষয় না। আর আমরা ঐখানে ছিলাম না। সেই হিসাবে মাহবুব তালুকদারের রায় আমরা মেনে নিয়েছি।’ 

অন্যদিকে এ বিষয়ে আওয়ামী লীগপন্থী আইনজীবী ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন বলেন, ‘৪-১ এর ব্যবধানে খালেদা জিয়ার মনোনয়ন নির্বাচন কমিশন বাতিল করেছে। এখানে মানা আর না মানার কোন বিষয় নাই। নির্বাচন কমিশনের মেজরিটি কমিশনার যে রায় দেবেন সেটাই আসল। তাছাড়া আইনেও সেই কথা রয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘এখন বিএনপির কি মানল আর না মানল তাতে কিছু আসে যায় আসে না।

নির্বাচন এর আরও খবর

//election count down //sticky sidebar