Alexa

মির্জা আব্বাস ও তার স্ত্রীর ৮ সপ্তাহের আগাম জামিন

মির্জা আব্বাস ও তার স্ত্রীর ৮ সপ্তাহের আগাম জামিন

মির্জা আব্বাস ও তার স্ত্রী আফরোজা আব্বাস

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা ২৪.কম

দুদকের দায়ের করা দুর্নীতির মামলায় হাইকোর্ট থেকে ৮ সপ্তাহের আগাম অন্তবর্তীকালীন জামিন পেয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সাবেক মন্ত্রী মির্জা আব্বাস ও তার স্ত্রী মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস।

সোমবার (১৪ জানুয়ারি) দুজন আদালতে হাজির হয়ে আগাম জামিনের  আবেদন করেন। শুনানি নিয়ে বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি এস এম কুদ্দুস জামানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ জামিনের এ আদেশ দেন। আদালতে মির্জা আব্বাস দম্পতির পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী জয়নুল আবেদীন। দুদকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী খুরশীদ আলম খান।

গত ৭ জানুয়ারি রাজধানীর শাহজাহানপুর থানায় দুদকের সহকারী পরিচালক মো. সালাহউদ্দিন বাদী হয়ে প্রায় ২১ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলাটি দায়ের করেন।

দুদকের অনুসন্ধানে মির্জা আব্বাস ও তার স্ত্রী আফরোজা আব্বাসের নামে ২০ কোটি ৭৬ লাখ ৯২ হাজার ৩৬৩ টাকার অবৈধ সম্পদ পাওয়া গেছে। আফরোজা আব্বাসের নামে যে সম্পদের বর্ণনা রয়েছে, তা প্রকৃতপক্ষে মির্জা আব্বাসের সহায়তায় অবৈধ উৎস থেকে অর্জিত বলে প্রমাণ পাওয়া গেছে বলে মামলায় অভিযোগ করেছে সংস্থাটি।

দুদকের অনুসন্ধানে জানা গেছে, মির্জা আব্বাস ঢাকা সিটি করপোরেশনের মেয়র এবং পরে গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ছিলেন। তার স্ত্রী আফরোজা আব্বাস আয়কর নথিতে নিজেকে হস্তশিল্প ব্যবসায়ী উল্লেখ করলেও তার পাসপোর্ট অনুসারে তিনি গৃহিণী ও আয়ের কোনো বৈধ উৎস নেই।

দুদকে দাখিলকৃত আফরোজা আব্বাসের সম্পদ বিবরণী যাচাইকালে তার অস্থাবর সম্পদের মধ্যে ঢাকা ব্যাংক লিমিটেডের শেয়ার ৮ লাখ ৭০ হাজার ৭০৬টি, যার মূল্য ৮ কোটি ৭০ লাখ ৭০ হাজার ৬০০ টাকা, ঢাকা  টেলিফোন কোম্পানি লিমিটেডের ১ লাখ শেয়ারের মূল্য ১০ কোটি টাকা, এফডিআর ও ডিপিএসে বিনিয়োগ ১৪ লাখ ৯ হাজার ৯৫৮ টাকা, ঢাকা টেলিফোন কোম্পানিকে ঋণ প্রদান এক  কোটি টাকা, আত্মীয়-স্বজনদের ঋণ প্রদান ৪৫ লাখ টাকা, হাতে নগদ ও ব্যাংক ব্যালেন্স ৫ লাখ টাকা এবং স্বর্ণালংকার ক্রয় ৪২ লাখ ১১ হাজার ৮০৫ টাকাসহ মোট ২০ কোটি ৭৬ লাখ ৯২ হাজার ৩৬৩ টাকার সম্পদের তথ্য পাওয়া যায়।

জাতীয় এর আরও খবর