Alexa

কাশেমের দেহ আনতে গিয়ে কী বিপদে পড়বে আলিবাবা-হুসেন

কাশেমের দেহ আনতে গিয়ে কী বিপদে পড়বে আলিবাবা-হুসেন

ছবি: বার্তা২৪

বিনোদন ডেস্ক

কালার্স বাংলার প্রচারিত ‘আরব্য রজনী’ ধারাবাহিকে প্রথম গল্প আলিবাবা ও চল্লিশ চোর। ৯০ দিনের পর্বে দর্শকরা ইতোমধ্যেই দেখে ফেলেছেন, কাশেম জঙ্গলে কাঠ খুঁজতে গিয়ে একটি গুহার সন্ধান পায়। যেখানে ডাকাতরা তাদের লুটের সমস্ত সম্পত্তি লুকিয়ে রেখেছিল। চোখের সামনে এত ধন-সম্পদ দেখে লোভে পড়ে যায় কাশেম। ভুলে যায় বাইরে বের হওয়ার কথা। এরপরই ডাকাতের হাতে প্রাণ হারাতে হয় তাকে।

‘আরব্য রজনী’ প্রথম গল্প আলিবাবা ও চল্লিশ চোর একবারে শেষ পর্যায়ে। সেটে গিয়ে তারই খোঁজ নিল বার্তা২৪.কম। আগামী সপ্তাহে দর্শকদের জন্য থাকছে টানটান উত্তেজনায় ক্লাইমেক্স পর্ব। কারণ এবার শুরু হচ্ছে ডাকাতদের সঙ্গে আলিবাবা ও হুসেনের আসল খেলা। শেষ পর্যন্ত কী তারা দু’জনে গুহা থেকে কাশেমের দেহ নিয়ে এসে কবর দিতে পারবে, নাকি ডাকাতরা তাদের বাড়ির দোরগোড়ায় এসে উপস্থিত হবে।

এ প্রসঙ্গে অভিনেতা রহিত মুখার্জী (আলিবাবা) বলেন, ‘আরব্য রজনী’ গল্পের প্রথম গল্প আলিবাবা। এখন গল্প ক্লাইম্যাক্সের কাছাকাছি এসে দাঁড়িয়েছে। যেখানে কাশেমকে ডাকাতরা গুহার মধ্যে মেরে ফেলেছে। আমি ও আমার ছেলে হুসেন এসেছি কাশেমের দেহটাকে ফিরিয়ে নিয়ে যেতে।

অভিনেতা প্রিয়ম (হুসেন) বলেন, আমাদের চাচাজান কাশেম গুহার মধ্যে মারা গেছে, আমি ও বাবা তার লাশটাকে ফেরত নিয়ে আসতে যাচ্ছি। আর আগামী সপ্তাহে রয়েছে আরও বেশ কিছু নতুন চমক, যার মধ্যে অন্যতম তলোয়ার ও ছুরি নিয়ে মারপিটের দৃশ্য।

কৌশিক ব্যানার্জি (কাশেম) বলেন, ধন-সম্পত্তি নেওয়ার জন্য কাশেম অর্থাৎ আমি গুহার মধ্যে ঢুকেছিলাম । কিন্তু ঢোকার পর বেরোবার মন্ত্রটা সে ভুলে গেছে। সে এতটাই লোভী ছিল যে, এত সোনা, হিরে জহরত দেখে তার মাথাটাই খারাপ হয়ে যায়। আর মৃত্যুর আগে অব্দি সে স্বপ্ন দেখে যে সে সুলতান হয়েছে আর তার সামনে সুন্দরীরা নাচছে।

বিনোদন এর আরও খবর

গোয়েন্দা পপি!

গোয়েন্দা পপি!

‘শার্লক হোমস’, ‘ব্যোমকেশ’ আর ‘ফেলুদার’ পর এবার দুর্দান্ত এক গোয়েন্দা গল্প নিয়ে তৈরী হচ্ছে দেশের প্রথম নারী ডিটেক...