ভালোবাসা দিবসে কুষ্টিয়ায় শিক্ষা উপকরণ বিতরণ

ছবি: বার্তা২৪

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, কুষ্টিয়া, বার্তা২৪.কম

কুষ্টিয়া শহরের পাশ দিয়ে বয়ে গেছে গড়াই নদী। নদীর ওপারে হাটশহরিপুর ইউনিয়ন। সেখানকার একটি বিদ্যালয়ের নাম মহানগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির না আছে মাঠ, না আছে সীমানা প্রাচীর।

বৃহস্পতিবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) ভালোবাসা দিবস উদযাপনে এই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করেছেন স্থানীয় কয়েকজন যুবক। উপকরণগুলো ছিল- বাংলা, ইংরেজি ও অংক খাতা, কলম ও স্কেল।

এছাড়া, কুষ্টিয়া শহরের ৬নং পৌর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মহানগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কুমারখালী উপজেলার কয়া ইউনিয়নের বাঘা যতীন এন্ড আকবর হোসেন স্কুলের অন্তত দুই শতাধিক সুবিধাবঞ্চিত ও মেধাবী শিশুদের হাতেও তারা তুলে দেন শিক্ষা উপকরণ।

কুষ্টিয়া শহর ও শহরতলীর কিছু যুবকদের সমন্বয়ে গড়ে তোলা সংগঠন ‘মিডিয়া জোন’। এই সংগঠনের সদস্যরা বন্ধুবৎসল। বিভিন্ন জন বিভিন্ন পেশায় নিয়োজিত তারা।

ভালোবাসা দিবসের এই বিশেষ দিনে ভালোবাসার উপহার স্বরূপ এসব শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করেন তারা। পাশাপাশি শিশু শিক্ষার্থীদের সাথে সময়ও কাটান।

সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ফরহাদ হোসাইন বার্তা২৪.কমকে বলেন, ভালোবাসা দিবসে বন্ধুরা মিলে গোলাপ না কিনে সেই টাকা দিয়ে এতিম, অসহায় ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের শিক্ষা উপকরণ দিয়েছি। বিকালে কিছু এতিমখানায় শিশুদের মাঝে শিক্ষা উপকরণের পাশাপাশি পাদুকাও বিতরণ করেছি।

আরেক সদস্য প্রিন্স মারিফ বলেন, ভালোবাসা দিবস মানে শুধু প্রিয়জনকে নয়। একজনের প্রতি আরেকজনকে ভালোবাসার সমন্বয়কে ভালোবাসা বলে। আমরা মা-বাবাকে ভালোবাসবো।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Feb/14/1550144070370.jpg

সংগঠনের আরেক সদস্য এস এম জামাল বলেন, ‘সমাজই পারে সমাজের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীকে সামনে নিয়ে আসতে। আমরা কিছু বন্ধু মিলে আজকের এই বিশেষ দিনে কিছু কোমলমতি শিক্ষার্থীদের মাঝে ভালোবাসা বিলিয়ে দিলাম।’

মহানগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা বলেন, ‘এই বিদ্যালয়ে বেশিরভাগ শিক্ষার্থীই দরিদ্র। গ্রামাঞ্চলে এসব শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা দিন আনে দিন খায়। আজকে যারা শিক্ষা উপকরণ পেয়েছে তাদের মুখের হাসি আমার কাছে ভালো লেগেছে।’

কুমারখালী উপজেলার কয়া ইউনিয়নের বাঘা যতীন এন্ড আকবর হোসেন স্কুলের প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম বলেন, আজকের এই ভালোবাসা দিবসে যেখানে অনেকেই গোলাপ ফুল কিনতেই ব্যস্ত, সেখানে এই সংগঠনের যুবকেরা খাতা-কলম নিয়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে, সত্যিই এটি আনন্দের বটে। এমন উদ্যোগকে স্বাগত জানাই।

জেলা এর আরও খবর