তাহার জন্যে উপহার ‘অমূল্য’

ছবি: সংগৃহীত

ফাওজিয়া ফারহাত অনীকা, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইফস্টাইল

কী এই ভালোবাসা? যে ভালোবাসার জন্যে, ভালোবাসা দিবসটি পালনের জন্য এতো আকুলতা, সেই ভালোবাসাটা আসলে কী? ভালোবাসা কি শুধুই কিছু অনুভূতি? ভালোলাগা, পছন্দ করা, প্রিয় মানুষটিকে নিয়ে সময় কাটানো ও স্বপ্ন বোনা- এর মাঝেই কি ‘ভালোবাসা’র ব্যাপ্তি!

এখনকার ডিজিটাল সময়ে সবকিছুই বড় বেশি যান্ত্রিক ও মেকি হয়ে গেছে। ফেসবুক কিংবা ইন্সটাগ্রামের ইমোটিকনের মাঝেই আটকে গেছে ভালোবাসাগুলো। যে কারণে হারিয়ে যাচ্ছে ভালোবাসার সরল অনুভূতিগুলো। আগেকার সময়ের সাদাসিধে ভালোবাসাগুলো এখন যেন খুঁজেই পাওয়া যায় না। ভালোবাসার মানুষটির সঙ্গেও সম্পর্কটি কেমন ফরমাল হয়ে গিয়েছে। সবকিছুই বড় বেশি পরিমাপ করে ছাঁচে ফেলে নির্ণয় করা। অথচ হওয়ার কথা ছিল ঠিক তার উল্টোটি!

জানেন কি ভালোবাসার মানুষটিকে হাত ভর্তি উপহার কিংবা পঞ্চাশটি গোলাপের চাইতে বড় কিছু ‘উপহার’ দেওয়া যায় সারা বছর জুড়েই! যে উপহারগুলোর প্রতিটিই অবস্তুগত! যে উপহারগুলো অমূল্য। যে উপহারগুলোকে কোন মানদণ্ডেই পরিমাপ করা সম্ভব নয়।

সময়

মোবাইলে কথা বলা, ম্যাসেঞ্জারে চ্যাট করা কিংবা ভিডিও কল নয়- পাশাপাশি বসে কিছুক্ষণ কথা বলার মাধ্যমে একে-অন্যকে সময় দেওয়ার বিষয়টি যতটা হেলা করা হবে, সম্পর্কের ক্ষেত্রেও তত বেশি সমস্যার দেখা দিবে। মোবাইল স্ক্রিনের অপর পাশে থাকা মানুষটার মনের খোঁজ কোনভাবেই বোঝা সম্ভব নয় মুখোমুখি দেখা না হলে। ব্যস্ততা থাকবেই, থাকবে দূরত্ব। থাকবে রাস্তার জ্যাম, বাসের অপর্যাপ্ততা। কিন্তু প্রশ্ন যেখানে ভালোবাসার মানুষটির, সেখানে নিশ্চয় এই বিষয়গুলো খুবই তুচ্ছ।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Feb/14/1550144702693.jpg

বিশ্বাস

যেকোন সম্পর্কের মাঝেই যদি বিশ্বাস না থাকে তবে যে সম্পর্কটি কোনভাবেই লম্বা সময় টিকে থাকতে পারবে না। আর প্রশ্ন যেখানে ভালোবাসার সম্পর্কের, সেখানে বিশ্বাসবিহীন সম্পর্ক গড়ে তোলা সময় নষ্ট ব্যতীত আর কিছুই নয়।

বোঝাপড়া

পারস্পরিক বোঝাপড়া বিশ্বাস কিংবা সময়ের মতোই গুরুত্বপূর্ণ। ভালো বোঝাপড়া না থাকলে খুব সামান্য বিষয়েও বড় ধরণের সমস্যা তৈরি হতে পারে। যা পরবর্তীতে সম্পর্কের উপরে নেতিবাচক প্রভাব ফেলে দেয়।

নির্ভরতা

আপনার পরম নির্ভরতার স্থানটি যদি প্রিয় মানুষটি না হন, তবে কে হবেন! ঠিক তেমনিভাবেই আপনার প্রিয় মানুষটির জন্য তাঁর পরম নির্ভরতার স্থানটি যেন আপনিই হন, তেমনভাবেই নিজেকে তার কাছে প্রকাশ করবেন, তুলে ধরবেন।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Feb/14/1550144916233.jpg

সততা

সততার হাত ধরে আসবে বিশ্বাস স্থাপন। এক্ষেত্রে ছাড় দেওয়ার কোন চান্স একেবারেই নেই। আপনি নিজের উপর, প্রিয় মানুষটার সঙ্গে এবং আপনাদের ভালোবাসার সম্পর্কে কতটা সৎ থাকবেন, সেটা সম্পূর্ণই আপনার উপর নির্ভরশীল।

সম্মান

আপনার প্রিয় মানুষটিকে কতটা সম্মান করেন? এমন প্রশ্নে খানিকটা হোঁচট খেলেও সত্যটি হচ্ছে, বিশ্বাস, বোঝাপড়ার মতো সম্মান করাও ভীষণ প্রয়োজন প্রিয় মানুষটিকে। শুধু ভালোবাসাই যথেষ্ট নয়, যদি সেই ভালোবাসার সম্পর্কের মাঝে সম্মানের উপস্থিতি না থাকে।

বন্ধুত্ব

প্রিয় মানুষটির সঙ্গে আপনার সম্পর্কটি কেমন? উত্তরটি যাই হোক না কেন, বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক যদি না হয়ে থাকে তবে সম্পর্কের বিষয়ে একটু সিরিয়াস হতে হবে। বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক ভালোবাসার সম্পর্কটিকে মজবুত করে দেয় অনেকখানি।

এগুলোই কিন্তু মহামূল্যবান অবস্তুগত উপহার। আদতে যতটা সহজ ও গৎবাঁধাই মনে হোক না কেন, এই বিষয়গুলোই একটি ভালোবাসার সম্পর্কের জন্য প্রয়োজনীয়, ভালোবাসার মানুষের কাছে ভীষণ কাঙ্ক্ষিত।

ফিচার এর আরও খবর

জগতে বাংলা ভাষার জয়

জগতময় চলছে বাংলা ভাষার প্রাণময় স্রোত। জয়ধারায় বাংলা ভাষা বিশ্বের সকল প্রান্তেই মানুষের মুখে উচ্চারিত হচ্ছে। সম...

একজন ডা. শেখ মহিউদ্দিন

অনেক শিল্পপতির আগমনে সেই অফিস-কারখানার কর্মচারীদের চলাচল সীমিত করা হয়। কেউ কেউ আছেন প্রটোকল পেতে ভালোবাসেন। তার...

মানসম্পন্ন বই

বাংলা একাডেমীর অমর একুশে বইমেলা শেষ হলে একটি পরিসংখ্যান বের হয়। তাতে কত টাকা বিক্রি হয়েছে সে তথ্য অত্যন্ত গুরুত্...