Alexa

রাজশাহীর বাঘা উপজেলা

মুক্তিযোদ্ধাকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে জখম, থানায় মামলা

মুক্তিযোদ্ধাকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে জখম, থানায় মামলা

ছবি: সংগৃহীত

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেট, রাজশাহী, বার্তা২৪.কম

রাজশাহীর বাঘা উপজেলার পদ্মার চরে ফজলুল হক মোল্লা নামে একজন মুক্তিযোদ্ধা ও তার ছেলেকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে জখম করার ঘটনা ঘটেছে।

শনিবার (১৬ মার্চ) রাত সাড়ে ৯টার দিকে কালিদাসখালী চর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় রোববার (১৭ মার্চ) দুপুরে মুক্তিযোদ্ধা ফজলুল হকের ছেলে কামাল মোল্লা বাদী হয়ে ১০ জনের নাম উল্লেখ করে থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার পদ্মার চরের কালিদাসখালী বাজারে শনিবার রাতে চায়ের দোকানে বসে ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা ফজলুল হক মোল্লার ছেলে জামাল মোল্লা।

এ সময় চর এলাকার রুপচাঁন আলী, মিজান হোসেন, নিজাম উদ্দিন, বাবু হোসেন, হাবিবুর রহমান, জালাল উদ্দিন, আবুল হোসেন, রুহুল আমিন, রহমান হোসেন, ফারুক হোসেনসহ ২০/২৫ জন ব্যক্তি হাতুড়ি, লোহার রড়, রামদা, বাঁশের লাঠি নিয়ে অতর্কিতভাবে তার ওপর হামলা চালায়।

ছেলেকে মারপিট করতে দেখে পাশেই থাকা মুক্তিযোদ্ধা ফজলুল হক এগিয়ে আসলে তাকেও হাতুড়ি দিয়ে মারধর করা হয়। পরে আশেপাশের লোকজন তাদেরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। বর্তমানে তারা দুজন চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

বাঘা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জরুরি বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত আবাসিক চিকিৎসক সঞ্জয় কুমার পাল জানান, মুক্তিযোদ্ধা ফজলুল হকের অবস্থা কিছুটা ভালো। তবে তার ছেলে জামাল মোল্লার অবস্থা গুরুতর। তার শরীরের বিভিন্নস্থানে হাতুড়ি ও লোহার রড়ের আঘাতের জখম হয়েছে।

বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মহসীন আলী বলেন, 'এ ঘটনা আমরা অভিযোগ পেয়েছি। সেটি মামলা আকারে গ্রহণ করা হয়েছে। জড়িতদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।'

জাতীয় এর আরও খবর