Barta24

মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০১৯, ১১ আষাঢ় ১৪২৬

English Version

ফেরদৌসের মতোই কি শাস্তি পাবেন বাকিরা?

ফেরদৌসের মতোই কি শাস্তি পাবেন বাকিরা?
ভারতীয় নির্বাচন কমিশন কার্যালয়/ ছবি: বার্তা২৪.কম
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
কলকাতা
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশি অভিনেতা ফেরদৌস আহমেদ ভারতের পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থীদের হয়ে ভোটের প্রচারে নেমেছিলেন। বিদেশিদের দিয়ে প্রচার করানোর অভিযোগে রাজ্যের শাসকদলের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা ও এ বিষয়ে পক্ষপাতমূলক বক্তব্য পেশের জন্য রাজ্যের অতিরিক্ত মুখ্য নির্বাচনী কর্মকর্তার পদত্যাগ দাবি করেছেন বিরোধীদলগুলো।

সূত্র জানায়, রাজ্যের মুখ্য নির্বাচনী কর্মকর্তা আরিজ আফতাব এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য কেন্দ্রীয় (দিল্লির) নির্বাচন কমিশনের মতামত চেয়েছেন।

এদিকে ফেরদৌসের পাশাপাশি অভিনয় করার ভিসা নিয়ে ভারতে গিয়ে রাজনৈতিক প্রচারে সম্পৃক্ত হওয়ার অভিযোগ এসেছে জি-বাংলার 'রাণী রাসমণি' সিরিয়ালে রাজচন্দ্রের ভূমিকায় অভিনয় করা বাংলাদেশি গাজী আবদুন নুর সহ আরও কয়েকজন শিল্পীর বিরুদ্ধে।

তৃণমূল কংগ্রেস নেতা ও সাবেক পরিবহন মন্ত্রী মদন মিত্রের সঙ্গে রাম নবমীর মিছিলে ছিলেন নুর। এছাড়া দমদমে তৃণমূল প্রার্থী সৌগত রায়ের হয়ে প্রচারণায় ছিলেন বলে অভিযোগ এই বাংলাদেশি ছোট পর্দার অভিনেতার বিরুদ্ধে। প্রচারের ঐ ভিডিও কপি জমা পড়েছে নির্বাচন কমিশনের দফতরে। তার বিষয়ে একই ব্যবস্থা নেওয়া হবে কিনা তা এখনও জানা যায়নি।

রবীন্দ্র ভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্র আবদুন নুর বলেন, ‘মদনদার (মদন মিত্র) সাথে আমার পারিবারিক সম্পর্ক। তার সাথে দেখা করতে গিয়ে দেখি তিনি একটি প্রোগ্রামে আছেন। আমি দাদাকে বললাম, আমার এখানে থাকা ঠিক হবে না। হাইকমিশনের নিষেধ আছে।’ তখন মদনদা বললেন, ঠিক আছে, আমার সাথে গাড়িতে থাক, তোকে নামিয়ে দেব।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Apr/17/1555496982222.gif
কলকাতায় বাংলাদেশি অভিনেতা গাজী আবদুন নুর (বামে)/ ছবি: সংগৃহীত

 

নুর বলেন, ‘আমি যদি প্রচারণায় যেতাম, তাহলে তো ব্যাজ লাগাতাম, উত্তরীয় পরতাম। আমাকে দিয়ে তো বক্তৃতাও দেওয়ানো হয়নি। সৌগত রায়ের সাথে ঐ দিনের আগে আমার দেখায় হয়নি। আমাকে দেখে দর্শকরা যদি হাত নাড়েন, স্বাভাবিকভাবে আমাকে হাত নাড়তে হয়।’

তিনি বলেন, ‘প্রচারণায় অনেক লোকজন থাকায় আমি একা সেখান থেকে বের হয়ে আসতে পারছিলাম না। কিন্তু আমার উচিৎ ছিল সেখান যেভাবেই হোক বের হয়ে আসা।’

বুধবার (১৭ এপ্রিল) এক তারকা অভিনেত্রীর নামেও কানাঘুষা হচ্ছে রাজ্য বিজেপির দফতরে। ঐ অভিনেত্রীকেও নাকি পশ্চিমবঙ্গের উত্তরবঙ্গের কোনো জনসভায় দেখা গিয়েছিল। যদিও তার সঠিক কোনো তথ্য রাজ্যের নির্বাচন কমিশনকে দিতে পারেনি। তাই সে বিষয়টি কেউ আমল নিচ্ছেন না। তবে একটা উৎকণ্ঠা বোধ কাজ করছে অভিনেত্রীর ফ্যানদের মধ্যে। তবে বুধবার পর্যন্ত তারকা অভিনেত্রীর তিনটি মোবাইল ফোন নম্বরের সুইচ অফ আছে।

জানা যায়, বুধবার ফেরদৌসের প্রচারণা সম্পর্কে রিপোর্ট জমা পড়েছে দেশটির বিদেশ মন্ত্রীর কাছে। সেখানে বাংলাদেশি এই অভিনেতার বিরুদ্ধে ভিসা আইন লঙ্ঘন করার অভিযোগ আনা হয়েছে। ফলস্বরূপ ভারত সরকার ফেরদৌস আহমেদের বিজনেস ভিসা বাতিল করেছে।

শুধু তাই নয়, বিদেশ থেকে আগত নাগরিকদের কালো তালিকায় বাংলদেশি এই অভিনেতার নাম যুক্ত করা হয়েছে। তবে ভারতে কোনো কাজ করতে না পারলেও টুরিস্ট ভিসা নিয়ে ভারতে আসতে পারবেন ফেরদৌস।

এতে সমস্যায় পড়েছে পশ্চিমবঙ্গের একাধিক প্রযোজকসহ পরিচালকরা। কারণ ফেরদৌস অভিনীত ‘দত্তা’ নামের একটি ছবির অর্ধেকের বেশি কাজ হয়েছিল বলে জানা গেছে। ফেরদৌস যদি ভারতেই ঢুকতে না পারেন তাহলে কী করে বাকি কাজ এগোবে? প্রসঙ্গত, শুটিং -এর ফাঁকেই রায়গঞ্জের প্রচারে গিয়েছিলেন বাংলাদেশি নায়ক।

ফেরদৌসের এই আচরণে মাথায় হাত পড়েছে ‘দত্তা’র পরিচালকসহ অন্যান্য প্রযোজকদের। কারণ আরও কয়েকটি ছবিতে চুক্তিবদ্ধ ছিলেন ফেরদৌস।

আপনার মতামত লিখুন :

৯০ কেজি ওজনের ব্যক্তির নিচে পড়ে বৃদ্ধের মৃত্যু

৯০ কেজি ওজনের ব্যক্তির নিচে পড়ে বৃদ্ধের মৃত্যু
প্রতীকী ছবি: সংগৃহীত

নিজের বাড়ির সামনে ঘুমিয়ে ছিলেন ষাটোর্ধ্ব মদন লাল। হঠাৎ পাশের ভবন থেকে তার ওপর পড়েন ৯০ কেজি ওজনের এক ব্যক্তি। আর এতেই মৃত্যু হয় মদন লালের। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের দক্ষিণ দিল্লিতে।

দেশটির সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, গত শনিবার (২২ জুন) দক্ষিণ দিল্লির ললিতা কলোনির বাসিন্দা মদন লাল তার বাড়ির সামনে একটি রিকশা ভ্যানে ঘুমিয়ে ছিলেন। পাশের বাড়ির তিনতলা থেকে তার উপর পড়ে যান ৯০ কেজি ওজনের রবিন্দর। এতে মৃত্যু ঘটে মদন লালের।

দিল্লি পুলিশের ময়নাতদন্তের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মদন লাল ঘুমিয়ে থাকায় তার শরীরে ক্ষতির পরিমাণ বেশি হয়েছে। তার ঘাড় ভেঙে গেছে। এছাড়া শরীরের ভেতরেও আঘাত লেগেছে তার।

এ ঘটনায় রবিন্দর নিজেও আঘাত পেয়েছেন। তিনতলা থেকে নিচে পড়ায় তার শরীরের কিছু স্থানেও আঘাত লেগেছে। এছাড়া তার চোখের আশেপাশে কেটে গেছে।

এ ঘটনার পর রবিন্দর পালিয়ে যান। তবে পুলিশের কাছে ধরা পড়ার পর তিনি জানান, ঐ রাতে ছাদের উপর তিনি মোবাইলে কথা বলছিলেন। ছাদের দেয়ালে বসে কথা বলতে বলতে হঠাৎ দুর্ঘটনাবশত তিনি নিচে পড়ে যান।

ঘটনার কিছুক্ষণ আগে মদন লাল তার নাতনির সঙ্গে খেলা করছিলেন। পরে শিশুটি ঘুমিয়ে পড়ায় তিনি তাকে বিছানায় শুইয়ে দিয়ে বাইরে যান। রাত আনুমানিক পৌনে ১০টার দিকে তিনি তার রিকশা ভ্যানে ঘুমিয়ে পড়েন।

মদন লালের প্রতিবেশী নিখাত টাইমস অব ইন্ডিয়াকে জানান, তিনি অনেক জোরে শব্দ শুনতে পান। মনে করেছিলেন মদন লালের উপর কোনো দেয়াল ভেঙে পড়েছে। কিন্তু তিনি দেখতে পান, একটা মোটা মানুষ, যিনি হয়তো মদ্যপ ছিলেন। তিনি নড়াচড়া করতে পারছিলেন না।

তিনি বলেন, ‘আমরা কোনো রকম মদন লালকে সেখান থেকে বের করে পাশের হাসপাতালে নিয়ে যাই। সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।’

ইউরোপে ৪০ ডিগ্রি তাপমাত্রা ছাড়াতে পারে

ইউরোপে ৪০ ডিগ্রি তাপমাত্রা ছাড়াতে পারে
ছবি: সংগৃহীত

জুন মাস থেকে ইউরোপজুড়ে গ্রীষ্মের শুরু হয়। ইউরোপে গ্রীষ্মে তাপমাত্রা মোটামুটি স্বাভাবিক থাকে। ঝড় কিংবা বন্যা ইউরোপবাসীকে ভোগালেও তাপমাত্রার সহনীয়তা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখে। তবে এবারের গ্রীষ্ম বেশ ভয়ানক বার্তা নিয়ে আসছে এই মহাদেশের মানুষদের জন্য। তাপমাত্রা ছাড়াতে পারে ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

বিশ্লেষকরা বলছেন, এটি বিশ্ব জুড়ে জলবায়ু পরিবর্তনের নমুনা।

এদিকে গত বৃহস্পতিবার (২০ জুন) প্যারিসে ৪০ ডিগ্রি তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। প্রতিবারের মতো গোটা ইউরোপে গ্রীষ্মের দিনগুলোতে হালকা ঝড়, বন্যা কিংবা শিলাবৃষ্টি হতে দেখা যায়। কিন্তু তাপমাত্রার এমন নাটকীয় পরিবর্তনে ফলে ইউরোপ বড় ধরনের প্রাকৃতিক দুর্যোগের মুখে পড়তে পারে।

রোববার (২৩ জুন) থেকে স্পেন জুড়ে হলুদ সতর্কতা সংকেত দেখানো হয়েছে।

গবেষকরা বলছেন, আটলান্টিক মহাসাগরের বৃহৎ অংশজুড়ে সৃষ্ট ঝড় গ্রাস করতে পারে মধ্য ও পশ্চিম ইউরোপকে।

ইউরোপে ৪০ ডিগ্রি তাপমাত্রা ছাড়াতে পারে

এই সপ্তাহ ধরে মাদ্রিদ, প্যারিস, বেলজিয়াম, ফ্রাঙ্কফুর্ট এবং বার্লিনে সর্বনিম্ন ৩২ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা পড়তে পারে। রাতে ও তাপমাত্রার বিশেষ কোনো পরিবর্তন হবে না।

আবহাওয়ার পূর্বাভাস বলছে, জার্মানিতে বুধ ও বৃহস্পতিবার সর্বোচ্চ ৩৭ ডিগ্রি তাপমাত্রা রেকর্ড করার সম্ভাবনা আছে।

একই সঙ্গে ফ্রান্সের আবহাওয়া অধিদফতর সতর্ক করে বলেন, আগামীকাল থেকেই ৩৫ থেকে ৪৯ ডিগ্রি তাপমাত্রা পড়তে পারে।

গত বছর জুলাই এবং আগস্টে ফ্রান্সে অস্বাভাবিক তাপমাত্রার কারণে এক হাজার ৫০০ মানুষের মৃত্যু হয়। এরই ধারাবাহিকতাই ফ্রান্সের স্বাস্থ্যমন্ত্রী অ্যাগনেস বুজিন হাসপাতাল এবং স্থানীয় কর্তৃপক্ষকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র