Barta24

মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০১৯, ১১ আষাঢ় ১৪২৬

English Version

ছুরিকাঘাতে আহত যুবকের মৃত্যু, প্রতিবাদে বাড়িতে আগুন

ছুরিকাঘাতে আহত যুবকের মৃত্যু, প্রতিবাদে বাড়িতে আগুন
নিহত আনোয়ার হোসেন আনু, ছবি: বার্তা২৪.কম
ডিসট্রিক্ট করেসপনডেন্ট
নরসিংদী
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

নরসিংদীর পলাশ উপজেলার ডাংগা এলাকায় মাছ বিক্রির টাকা চাইতে গিয়ে ছুরিকাঘাতে আহত এক যুবক মারা গেছেন। তার নাম আনোয়ার হোসেন (আনু)। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার (১৭এপ্রিল) তিনি মারা যান। 

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. সাবের উল হাই জানান, ডাংগা ইউনিয়নের শান্তানপাড়া এলাকার শামসুউদ্দিনের ছেলে আনোয়ার হোসেন আনু একই এলাকার আকবর হোসেনের ছেলে আবুল কালামের কাছে বাকিতে মাছ বিক্রি করেন।

পরে মাছ বিক্রির টাকা চাইতে গেলে আবুল কালাম ও তার ভাই আলামিনের সঙ্গে ঝগড়া বাধে। এক পর্যায়ে আনোয়ার হোসেন আনুকে ছুরিকাঘাত করে। আনুর চিৎকারে এলাকাবাসী তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় হাসপাতালে পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজে ভর্তি করে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Apr/17/1555507633582.jpgঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ২২ দিন চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার (১৭ এপ্রিল) সকালে আনু মারা যায়। আনুর মৃত্যুর খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে এলকাবাসী হামলাকারী কালাম মিয়ার বাড়িঘরে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়।

পলাশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মকবুল হোসেন মোল্লা জানানমাছ বিক্রির পাওনা টাকা চাইতে গেলে গত মাসের ২৫ মার্চ কালাম ও তার ভাই আল-আমিন মিলে আনু মিয়াকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। 

এ ঘটনায় আনুর পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। অবশেষে ২২ দিন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকার পর বুধবার সকালে আনু মারা যায়। তার মৃত্যুতে উত্তেজিত গ্রামবাসী অভিযুক্ত কালামের বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগ করে।

তিনি আরও জানান, ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত কালাম ও তার ভাই আল-আমিন মিয়া পলাতক রয়েছেন। তাদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশ অভিযান অব্যাহত রেখেছে। 

আপনার মতামত লিখুন :

বাল্যবিয়ের তথ্য দিয়ে নগদ টাকা পেলেন দুইজন

বাল্যবিয়ের তথ্য দিয়ে নগদ টাকা পেলেন দুইজন
ছবি: বার্তা২৪.কম

রাজবাড়ীতে বাল্যবিয়ের তথ্য প্রশাসনকে দেয়ায় এবং বিয়ে বন্ধ করে দিতে সহযোগিতা করার কারণে নগদ টাকা পুরস্কার পেলেন দুইজন।

পুরস্কারপ্রাপ্তরা হলেন- রাজবাড়ী সদর থানার এসআই হিরণ কুমার বিশ্বাস ও জেলা ছাত্রলীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক সাদমান সাকিব রাফি।

মঙ্গলবার (২৫ জুন) বিকেলে ওই দুইজনকে নগদ ৫ হাজার টাকা তুলে দেন রাজবাড়ী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) স্বপন কুমার মজুমদার। ওসির কার্যালয়ে বসে এই টাকা তাদের পুরস্কার হিসেবে দেয়া হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন আমাদের রাজবাড়ী সামাজিক সংগঠনের যুগ্ম সম্পাদক এস.এম. হীরা, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট তুষার কান্তি সরকার, অর্থ সম্পাদক স্মৃতি ইসলাম প্রমুখ।

ওসি স্বপন কুমার মজুমদার বার্তা২৪.কমকে জানান, রাজবাড়ী জেলায় বাল্যবিয়ের হার কমানোর উদ্দেশে ফ্রান্স প্রবাসী আশরাফুল ইসলাম একটি ঘোষণা দিয়েছিলেন। আর তা হল যে ব্যক্তি বাল্যবিয়ের তথ্য দিয়ে স্থানীয় প্রশাসনকে সহযোগিতা করবে তাকে নগদ ৫ হাজার টাকা পুরস্কার দেয়া হবে। সেই ঘোষণার পরিপ্রেক্ষিতে আজ দুজনকে পুরস্কার দেয়া হল। তবে সামাজিক নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে বাল্যবিয়ের শিকার ওই কিশোরীর পরিচয় গোপন রাখা হয়েছে।

নগদ টাকা পেয়ে জেলা ছাত্রলীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক সাদমান সাকিব রাফি বলেন, ‘আমার কারণে একটি বাল্যবিয়ে বন্ধ হয়েছে, এতে আমি ভীষণ খুশি। সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকেই বাল্যবিয়ের খবরটি আমি প্রশাসনকে দিয়েছি। আর এ কাজের জন্য আমাকে আজ পুরস্কৃত করা হলো।’

ধামরাইয়ে নবজাতকের মরদেহ উদ্ধার

ধামরাইয়ে নবজাতকের মরদেহ উদ্ধার
প্রতীকী ছবি

ঢাকার ধামরাইয়ে বংশী নদীর তীর থেকে এক নবজাতকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (২৫ জুন) সন্ধ্যায় উপজেলার আইনগঞ্জ শান্তিপাড়া এলাকা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ জানায়, ধামরাইয়ের শান্তিপাড়া এলাকার বংশী নদীর তীরে এক নবজাতকের মরদেহ ভাসমান অবস্থায় দেখতে পান এলাকাবাসী। পরে তারা থানায় খবর দিলে সন্ধ্যায় ঘটনাস্থল থেকে ওই নবজাতকের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। তবে কে বা কারা ওই নবজাতকের মরদেহ ফেলে রেখে গেছে, এ বিষয়ে কিছু জানা যায়নি।

ধামরাই থানার উপ-পরিদর্শক লতিফ বার্তা২৪.কমকে বলেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে এবং মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় একটি মামলাও হয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র