Barta24

মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০১৯, ১১ আষাঢ় ১৪২৬

English Version

নাফ নদী থেকে ফিরেছেন অপহৃত মাঝিরা

নাফ নদী থেকে ফিরেছেন অপহৃত মাঝিরা
নাফ নদী / ছবি: বার্তা২৪
উপজেলা করেসপন্ডেন্ট
টেকনাফ
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

কক্সবাজারের নাফ নদী থেকে ট্রলারসহ ফিরেছেন অপহৃত চার মাঝি-মাল্লা। তবে তারা মুক্তিপণের টাকা দিয়ে ফেরত এসেছেন বলে স্থানীয়রা জানালেও মালিকপক্ষ টাকার বিষয়টি অস্বীকার করছেন।

বুধবার (১৭ এপ্রিল) রাত সাড়ে ৮ টার দিকে তারা সাবরাং ইউনিয়নের শাহপরীর দ্বীপ জালিয়া পাড়া সংলগ্ন নাফ নদের পাড়ে এসে পৌঁছান বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে। পরে সেখান থেকে তারা পায়ে হেঁটে নিজের বাড়িতে চলে যান।

অপহৃত মাঝিরা হলেন- টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপ বাজার পাড়ার বাসিন্দা আজিম উল্লাহ মাঝি, মোহাম্মদ আবদুল্লাহ, আবুল কালাম ও মোহাম্মদ হাসান। এদের মধ্যে মোহাম্মদ হাসান পুরাতন রোহিঙ্গা বলে জানা গেছে।

শাহপরীর দ্বীপ বাজার পাড়া এলাকার বাসিন্দা ট্রলার মালিক আমান উল্লাহ বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘চার মাঝি ফেরত এসেছে বলে শুনেছি। তাদের সঙ্গে আমার দেখা হয়নি। তারা কীভাবে এসেছে তাও জানি ন।’

আরও পড়ুন: মিয়ানমারে অপহৃত মাঝিদের ছাড়তে মুক্তিপণ দাবি

এর আগে মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) সকালে আমান উল্লাহর মালিকানাধীন একটি ট্রলারে দ্বীপ সংলগ্ন নাফ নদ এলাকায় চার মাঝি-মাল্লা মাছ শিকারে যায়। এর কিছুক্ষণ পর মিয়ানমারের বিজিপির একটি দল স্পিডবোটে এসে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ট্রলারসহ তাদের ধরে নিয়ে যায়।

ওই দিন সন্ধ্যার দিকে ট্রলার মালিক আমান উল্লাহর কাছে মিয়ানমারের একটি ফোন নম্বর থেকে কল করে ট্রলার ও মাঝি-মাল্লাদের ছাড়িয়ে নিতে মিয়ানমারের ২০ লাখ কিয়াট দাবি করা হয়। যদি দাবিকৃত টাকা পরিশোধ করা হয় তাহলে ট্রলারসহ মাঝি-মাল্লাদের ফেরত দেওয়া হবে। দাবিকৃত টাকা পরিশোধের জন্য বুধবার পর্যন্ত সময় নেয় মালিক।

এ প্রসঙ্গে সাবরাং ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ফজলুল হক বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘মিয়ানমারে নিয়ে যাওয়া চার জেলে ফিরে এসেছে বলে শুনেছি। তবে কীভাবে ফেরত এসেছে তা জানি না।’

আপনার মতামত লিখুন :

বাল্যবিয়ের তথ্য দিয়ে নগদ টাকা পেলেন দুইজন

বাল্যবিয়ের তথ্য দিয়ে নগদ টাকা পেলেন দুইজন
ছবি: বার্তা২৪.কম

রাজবাড়ীতে বাল্যবিয়ের তথ্য প্রশাসনকে দেয়ায় এবং বিয়ে বন্ধ করে দিতে সহযোগিতা করার কারণে নগদ টাকা পুরস্কার পেলেন দুইজন।

পুরস্কারপ্রাপ্তরা হলেন- রাজবাড়ী সদর থানার এসআই হিরণ কুমার বিশ্বাস ও জেলা ছাত্রলীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক সাদমান সাকিব রাফি।

মঙ্গলবার (২৫ জুন) বিকেলে ওই দুইজনকে নগদ ৫ হাজার টাকা তুলে দেন রাজবাড়ী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) স্বপন কুমার মজুমদার। ওসির কার্যালয়ে বসে এই টাকা তাদের পুরস্কার হিসেবে দেয়া হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন আমাদের রাজবাড়ী সামাজিক সংগঠনের যুগ্ম সম্পাদক এস.এম. হীরা, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট তুষার কান্তি সরকার, অর্থ সম্পাদক স্মৃতি ইসলাম প্রমুখ।

ওসি স্বপন কুমার মজুমদার বার্তা২৪.কমকে জানান, রাজবাড়ী জেলায় বাল্যবিয়ের হার কমানোর উদ্দেশে ফ্রান্স প্রবাসী আশরাফুল ইসলাম একটি ঘোষণা দিয়েছিলেন। আর তা হল যে ব্যক্তি বাল্যবিয়ের তথ্য দিয়ে স্থানীয় প্রশাসনকে সহযোগিতা করবে তাকে নগদ ৫ হাজার টাকা পুরস্কার দেয়া হবে। সেই ঘোষণার পরিপ্রেক্ষিতে আজ দুজনকে পুরস্কার দেয়া হল। তবে সামাজিক নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে বাল্যবিয়ের শিকার ওই কিশোরীর পরিচয় গোপন রাখা হয়েছে।

নগদ টাকা পেয়ে জেলা ছাত্রলীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক সাদমান সাকিব রাফি বলেন, ‘আমার কারণে একটি বাল্যবিয়ে বন্ধ হয়েছে, এতে আমি ভীষণ খুশি। সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকেই বাল্যবিয়ের খবরটি আমি প্রশাসনকে দিয়েছি। আর এ কাজের জন্য আমাকে আজ পুরস্কৃত করা হলো।’

ধামরাইয়ে নবজাতকের মরদেহ উদ্ধার

ধামরাইয়ে নবজাতকের মরদেহ উদ্ধার
প্রতীকী ছবি

ঢাকার ধামরাইয়ে বংশী নদীর তীর থেকে এক নবজাতকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (২৫ জুন) সন্ধ্যায় উপজেলার আইনগঞ্জ শান্তিপাড়া এলাকা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ জানায়, ধামরাইয়ের শান্তিপাড়া এলাকার বংশী নদীর তীরে এক নবজাতকের মরদেহ ভাসমান অবস্থায় দেখতে পান এলাকাবাসী। পরে তারা থানায় খবর দিলে সন্ধ্যায় ঘটনাস্থল থেকে ওই নবজাতকের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। তবে কে বা কারা ওই নবজাতকের মরদেহ ফেলে রেখে গেছে, এ বিষয়ে কিছু জানা যায়নি।

ধামরাই থানার উপ-পরিদর্শক লতিফ বার্তা২৪.কমকে বলেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে এবং মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় একটি মামলাও হয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র