Alexa

ঈদে বাড়ি ফেরা: কতটা প্রস্তুত পরিবহন সংশ্লিষ্টরা

ঈদে বাড়ি ফেরা: কতটা প্রস্তুত পরিবহন সংশ্লিষ্টরা

গাবতলী বাস টার্মিনাল, ছবি: বার্তা২৪.কম

ঈদে নাড়ির টানে রাজধানী ছাড়ে বেশিরভাগ মানুষ। ঘরমুখী এই মানুষদের অধিকাংশই সড়ক পথ ব্যবহার করেন। ঈদে বিপুল সংখ্যক এই যাত্রীর চাপ সামাল দিতে প্রতিবছরের মতো এবারও নতুন-পুরাতনের সমন্বয়ে মাঠে নামবে বিশেষ বাস, এমনটাই বলছেন পরিবহন সংশ্লিষ্টরা।

ঈদ যাত্রার প্রস্তুতি হিসেবে, গাড়ি সারাইয়ের কাজ করছেন শ্রমিকরা। গাড়ির ফিটনেসে নজর দিয়ে পুরাতন বাসগুলো রাস্তায় নামাতে সারানো হচ্ছে টুকটাক সমস্যাগুলোও।

বুধবার (১৫ মে) সকালে আন্তঃজেলা গাবতলী বাস টার্মিনাল ঘুরে ঈদ-কেন্দ্রিক প্রস্তুতির এসব চিত্র দেখা যায়।

ঢাকা জেলা পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মোঃ আব্বাস উদ্দিন ঈদযাত্রার প্রস্তুতি সম্পর্কে বার্তা২৪.কম-কে বলেন, 'আমরা ইতোমধ্যেই ঈদকে সামনে রেখে বাংলাদেশ বাস ট্রাক মালিক সমিতি ও ডিসি ট্রাফিক, ডিসি ক্রাইম যৌথভাবে মিটিং করেছি যাতে যাত্রীরা স্বাচ্ছন্দ্যে গন্তব্যে পৌঁছাতে পারে। এ ব্যাপারে আমরা প্রস্তুতি নিয়েছি। আমরা ২০ রোজা থেকে কমিউনিটি পুলিশসহ আমাদের নেতাকর্মীরা অবস্থান করবে এখানে। কোন টিকিট কালোবাজারি হবে না।'

ঈদে বাড়ি ফেরা: কতটা প্রস্তুত পরিবহন সংশ্লিষ্টরা

বাংলাদেশের বাস-ট্রাক অনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক দফতর সম্পাদক সালাউদ্দিন আহমেদ বার্তা২৪.কম-কে বলেন, 'আমাদের সিদ্ধান্ত হয়েছে আগামী ১৭ মে শুক্রবার সকাল ৬টা থেকে উত্তরবঙ্গ ও দক্ষিণবঙ্গ সমস্ত জায়গার অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হবে। প্রশাসনের সাথে মিটিং হয়েছে তারা তাদের যার যার এলাকায় যানজট মুক্ত রাখার চেষ্টা করবেন। আমরা আশাবাদী, এবার যানজট থাকবে না সড়কে। যাত্রীদের  ঈদযাত্রা ভালো হবে।'

পূর্বাশা পরিবহন এর ম্যানেজার মোঃ ইউসুফ আলী বার্তা২৪.কম-কে বলেন, 'ধারাবাহিকভাবে আমরা যেভাবে গাড়ি ছাড়ি ঠিক সেভাবে গাড়ি চলবে। ঈদের জন্য আমাদের স্পেশাল গাড়ি থাকবে। সার্বিকভাবে যখন ঈদের সময় পিক আওয়ার হয়, এ সময় নবীনগর কালিয়াকৈরে যানজট সৃষ্টি হয় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ যদি এসব এই এলাকাই কাজ করে তাহলে মনে হয় কোন সমস্যা হবে না।'

ঈদে বাড়ি ফেরা: কতটা প্রস্তুত পরিবহন সংশ্লিষ্টরা

জানতে চাইলে হানিফ পরিবহনের কাউন্টার মাস্টার বার্তা২৪.কম-কে কে বলেন, 'ঈদকে সামনে রেখে আমাদের সকল প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। রাস্তাঘাট এবার মোটামুটি ভালই আছে।প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও আনুষঙ্গিক কারণে ফেরি চলাচলে বিঘ্ন ঘটলে সে ক্ষেত্রে করার কিছু থাকবে না।'

যানজট প্রসঙ্গে শ্যামলী গাড়ির চালক সেলিম বার্তা২৪.কম-কে বলেন, 'যানজট তো প্রতিদিন থাকে এবার ঈদেও হালকা-পাতলা থাকতে পারে। কারণ ফেরিঘাটের জ্যাম এটা তো সবসময়ই থাকে, এখনো আছে, তবে সেরকম একটা নাই। ঈদে সড়কে জ্যাম আরও বাড়তে পারে। এবার উত্তরবঙ্গে জ্যাম কম থাকতে পারে তবে দক্ষিণবঙ্গে জ্যাম বাড়তে পারে।'

সাধারণ যাত্রী সাদিয়া আফরিন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের উদ্দেশে বার্তা২৪.কম-কে বলেন, 'ঈদযাত্রায় সড়কে যানজট যদি কমান যেত তাহলে আমরা জনগণ অনেক উপকৃত হতাম। যানজটের কারণে প্রতিনিয়ত আমাদের অনেক সমস্যা হয় অনেক কঠিন পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে হয়।'

ঈদে বাড়ি ফেরা: কতটা প্রস্তুত পরিবহন সংশ্লিষ্টরা

গ্রামীণ পরিবহনের গাড়ির চালক বার্তা২৪.কম-কে অভিযোগ করে বলেন, 'মহাসড়কের যানজট নিয়ন্ত্রণ করা না গেলে বাসের শিডিউল বিপর্যয় হতে পারে। ঈদের সময় গাড়ি যায় ৫০০০ হাজার, পুলিশ প্রশাসন থাকে ১০০০ হাজার, তাহলে সড়কে শৃঙ্খলা থাকবে কীভাবে। টাঙ্গাইলে যানজট বেশি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে কারণ সেখানে রাস্তার কাজ এখনো শেষ হয়নি।'

সাতক্ষীরাগামী এক যাত্রী আবদুল্লাহ আল মাসুম বার্তা২৪.কম-কে বলেন, 'যে টিকিটের দাম ৪০০ টাকা ঈদ উপলক্ষে যে টিকিট ডাবল অর্থাৎ ৮০০ টাকা নেওয়া হয়। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কার্যকর ব্যবস্থা নিলে যাত্রী হয়রানি ও সড়কে ঈদযাত্রা ভালো হতো।'

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার (৯ মে) সকাল থেকে গাবতলী ও কল্যাণপুরের বাস কাউন্টারগুলোতে অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। টিকিট সংগ্রহ করতে কাউন্টারগুলোতে যাত্রীদের লম্বা লাইন দেখা গেছে। বিক্রি শুরুর এক ঘণ্টার মধ্যেই ৩ জুনের টিকিট শেষ হয়ে গেছে বলেও জানা যায়।

আপনার মতামত লিখুন :