Alexa

যে গয়না পরলে এড়ানো যাবে অবাঞ্ছিত গর্ভধারণ

যে গয়না পরলে এড়ানো যাবে অবাঞ্ছিত গর্ভধারণ

ছবি: সংগৃহীত

কানে দুল, গলায় লকেট কিংবা হাতে ঘড়ি। এসব পরেই যদি গর্ভ নিরোধ করা যায়, তবে কেমন হবে? অবিশ্বাস্য হলেও এমন গয়না তৈরি করেছেন জর্জিয়া ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজির গবেষকরা।

‘গর্ভনিরোধক গয়না’ (contraceptive jewellery) শীর্ষক এই গয়নার খবর কিছুদিন আগে জার্নাল অফ কন্ট্রোল রিলিজে প্রকাশিত হয়। এতে বলা হয়, বিভিন্ন গয়না বা অলঙ্কারে বা সাজগোজের নানা উপকরণে, যেমন- দুল, আংটি, ঘড়ি এবং অন্যান্য গয়নাতে গর্ভনিরোধক হরমোনের বিশেষ প্যাচ সংযুক্ত করেছেন বিজ্ঞানীরা। এসব হরমোন চামড়ার মধ্যে দিয়ে শোষিত হয়ে রক্তে মিশে যাবে।

সংবাদ মাধ্যম ফক্স নিউজে বলা হয়েছে, এই গয়না মানুষের শরীরে কীভাবে কাজ করবে, তা এখনও জানতে মানুষের উপরে কোনও পরীক্ষা করা হয়নি। তবে বিজ্ঞানীরা ফলাফল জানতে শুকর ও ইঁদুরের উপর এই গয়নার প্রভাব পরীক্ষা করেছেন।

জর্জিয়া টেকের সংবাদ সূত্র জানায়, প্রাথমিক পরীক্ষায় বোঝা গিয়েছে যে গর্ভনিরোধক এই গয়না অবাঞ্ছিত গর্ভধারণ রোধে পর্যাপ্ত পরিমাণে হরমোন সরবরাহ করতে পারে। এই নতুন কৌশলটির লক্ষ্য হলো, নিয়মিত ডোজ প্রয়োজন, এমন ড্রাগ নিয়ন্ত্রকদের সঙ্গে ব্যবহারকারীদের যে সম্মতি সেই ক্ষেত্রটা উন্নত করা।

পরীক্ষাটি পরিচালনা করেছেন পোস্টডক্টরাল সহকর্মী মোহাম্মদ মোফিডফার, জ্যেষ্ঠ গবেষক বিজ্ঞানী লরা ও'ফারেল এবং ইউনিভার্সিটির স্কুল অফ কেমিক্যাল অ্যান্ড বায়োমলিকুলার ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের অধ্যাপক মার্ক প্রুসনিৎস।

মার্ক প্রুসনিৎস বলেন, ‘ফার্মাসিউটিকাল অলঙ্কার একটি নতুন পদ্ধতি উপস্থাপন করে, যা গর্ভনিরোধককে আরো আকর্ষণীয় করে তুলতে পারে। এটি আরো আকর্ষণীয় ও জনপ্রিয় করার জন্য এর ব্যবহারকে সহজ করতে হবে, এটা মাথায় রাখা উচিৎ।’

এখন পর্যন্ত এসব গয়না বাস্তব হয়ে না উঠলেও একদিন না একদিন হয়তো গয়না পরেই সহজে কার্যকর হবে পরিবার পরিকল্পনা, এমনটাই মনে করছেন গবেষকরা।

সূত্র: এনডিটিভি

আপনার মতামত লিখুন :