Barta24

সোমবার, ২২ জুলাই ২০১৯, ৭ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

‘পুরান ঢাকাকে সিঙ্গাপুরের আদলে সাজাতে চাই’

‘পুরান ঢাকাকে সিঙ্গাপুরের আদলে সাজাতে চাই’
সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন ডিএসসিসি মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন / ছবি / বার্তা২৪
সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

পুরান ঢাকাকে নতুন রূপে নতুনভাবে সাজাতে পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানিয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন।

তিনি বলেছেন, ‘পুরান ঢাকা রি-ডেভলপমেন্ট করতে চাই। সিঙ্গাপুর, টোকিও শহরও আমাদের পুরান ঢাকারমত ছিল। সেই শহর যেভাবে পরিকল্পনা করে সাজিয়েছে আমরাও সেই মানের উন্নত শহর করতে চাই। পুরান ঢাকাকে নিয়ে নতুন গল্প নতুন করে লিখতে চাই। এটা আমাদের পরিকল্পনায় আছে।’

শুক্রবার (১৭ মে) রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে সিটি করপোরেশনের চার বছর পূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

এই চারবছরে যেসকল কাজ করেছেন তার বিস্তারিত বিবরণ তুলে ধরেন মেয়র। তবে এখনো কাঙ্ক্ষিত সেবা পৌঁছাতে পারেননি বলেও জানান মেয়র। এর জন্য সেবাসংস্থাগুলোর মধ্যে সমন্বয়হীনতাকে দায়ী করলেন তিনি।

সাঈদ খোকন বলেন, ‘সুষ্ঠু নগর ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করবার ক্ষেত্রে সমন্বয়হীনতা একটা বড় মাত্রার প্রতিবন্ধকতা। আমরা যদি আমাদের রাজধানীর সেবায় নিয়োজিত সংস্থাগুলোকে সঠিক সমন্বয় করতে পারি, তাহলে আমাদের অনেক সমস্যাই সমাধান করতে সক্ষম হতে পারি।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/May/17/1558109412766.jpg

এ সময় উদাহরণ টেনে মেয়র বলেন, ‘আমাদের অনেক রাস্তা মাত্র করেছি, সেই রাস্তা করতে অনেক ব্যয়ও হয়েছে, উন্নয়নকাজের সময় নাগরিকদের অনেক দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে। কাজ শেষ হবার সময় দেখা গেলো কোনো সংস্থা রাস্তা কাটার অনুমতি চাইছে নাগরিকদের প্রয়োজনে আমরা অনুমতি দিতে বাধ্য হই। যে কারণে একটি রাস্তা বার বার খোঁড়াখুঁড়ি হয়, হচ্ছে। যদি সমন্বয় থাকত তাহলে কাজগুলো এক সঙ্গে করতে পারতাম। এরপর ৫-১০ বছরের ভেতরে আর কাটতে হতো না। তাই আমি মনে করি সমন্বয়হীনতা নগর ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে একটি বড় রকমের প্রতিবন্ধকতা। এই প্রতিবন্ধকতা যত দ্রুত সম্ভব দূর করা যায় তাহলে অবশ্যই পরিকল্পিতি নাগরিক সেবা দিতে পারব।’

মেয়র নাগরিক সেবাবৃদ্ধির জন্য রাজধানীর অন্যান্য সেবা সংস্থাগুলোরও বিভক্ত করার পক্ষে মতামত দেন। তিনি বলেন, ‘অন্যান্য সেবা সংস্থাকে উত্তর দক্ষিণে ভাগ করা হলে আরও বেশি সেবা নাগরিকদের দোরগোড়ায় পৌঁছানো সম্ভব। বিষয়টি নিয়ে আলোচনার সময় এসেছে, ভাববার সময় এসেছে।’

আগামী এক বছরে যেসকল কাজের পরিকল্পনায় রয়েছে সেগুলো উল্লেখ করে মেয়র বলেন, ‘আমরা এই চার বছরে শহরে ইতিবাচক পরিবর্তনের সূচনা করতে সক্ষম হয়েছি। মৌলিক সমস্যাগুলোর সমাধান করেছি। সড়কে এলইডি বাতি স্থাপন করেছি। ৮৫ থেকে ৯০ ভাগ রাস্তা চলাচলের উপযোগী করেছি। এখন নবসংযুক্ত ইউনিয়নগুলো নিয়ে মহাপরিকল্পনা করছি। এছাড়া বুড়িগঙ্গার চ্যানেলে হাতিরঝিলের মতো আরেকটি প্রকল্প গ্রহণ করা হবে।’

কাজ করতে যেয়ে বাঁধা আসলেও বসে থাকেননি বলে জানিয়েছেন মেয়র সাঈদ খোকন। তিনি বলেন, ‘প্রতিবন্ধকতা থাকবেই কিন্তু সেটাকে বড় করে দেখার সুযোগ নেই। প্রতিবন্ধকতা আসবে আবার চলেও যাবে। শেষ বছরে আমার লক্ষ্য থাকবে প্রকল্পগুলো সুচারু রূপে সম্পন্ন করার। আর কাজের ব্যর্থতা সফলতার ভার জনগণের ওপর ছেড়ে দিয়েছি। বাকি সময়ও নগরবাসীকে পাশে চাই।’

সংবাদ সম্মেলন পরবর্তী ইফতার মাহফিলে অংশ নেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান, ধর্ম প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, ডিএসসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান, ডিএসসিসি সচিব মোস্তফা কামাল প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মূখ্য সচিব নজিবুর রহমান, ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া, ঢাকা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী তাকসীম এ খান, প্রকৌশলী আজম খান, কলামিস্ট সৈয়দ আবুল মকসুদ, সংসদ সদস্য কাজী ফিরোজ রশিদ প্রমুখ।

আপনার মতামত লিখুন :

বুধবার থেকে ফের ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস

বুধবার থেকে ফের ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস
বৃষ্টিতে ডুবে যায় অর্মি ক্লাব সংলগ্ন সড়কের এক পাশ, ছবি: শাদরুল

সপ্তাহখানেক আগে টানা বৃষ্টিতে উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে দেশের নিম্নাঞ্চলুগুলোতে বন্যার সৃষ্টি হয়। বৃষ্টির প্রবণতা কমে যাওয়ায় বন্যা পরিস্থিতি উন্নতি হচ্ছে। তবে নদীর পানি কমতে শুরু করলেও রাস্তা-ঘাট, ঘরবাড়ি, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ভাঙন অব্যাহত রয়েছে। এতে ভোগান্তির অন্ত নেই ক্ষতিগ্রস্তদের।

এদিকে আবহাওয়া অফিস বলছে, মৌসুমী বায়ু বঙ্গোপসাগরে দুর্বল অবস্থায় থাকলেও বাংলাদেশে ফের সক্রিয় হয়েছে। এতে কয়েক দিনের বৃদ্ধি পাওয়া তাপমাত্রাকে হ্রাস করতে ভারী বৃষ্টির প্রবণতা বাড়তে পারে। মানুষের মাঝে কিছুটা স্বস্তি ফিরতে পারে। এর ফলে আবারও বন্যার আশঙ্ক করা হচ্ছে।

সোমবার (২২ জুলাই) সকাল থেকে রাজধানীতে হাস্যোজ্জ্বল রোদের ঝিলিক দেখা যায়। হঠাৎ মেঘ উঁকি দিলেও আকাশ ছিল অনেকটাই পরিষ্কার। ৮ থেকে ১২ কিলোমিটার বেগে বাতাস বয়ে যায়।

আবহাওয়াবিদ শাহিনুল ইসলাম বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, ‘মৌসুমী বায়ু বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চলে মোটামুটি সক্রিয় হয়েছে। এটি ধীরে ধীরে দেশের বিভিন্ন জায়গায় বিরাজ করতে পারে। তাই আগামী বুধবার (২৪ জুলাই) বা বৃহস্পতিবার (২৫ জুলাই) বৃষ্টির প্রবণতা বৃদ্ধি পেতে পারে। দেশের বিভিন্ন স্থানে ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণ হতে পারে। ৩০ জুলাই পর্যন্ত এ বৃষ্টি অব্যাহত থাকতে পারে।’

তিনি আরও বলেন, ‘বৃদ্ধি পাওয়া তাপমাত্রা ধীরে ধীরে হ্রাস পাবে। বর্তমানে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ২৬ থেকে ৩৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত বিরাজ করছে, তা কমে ৩২ থেকে ৩৩ ডিগ্রি সেলসিয়াসে নেমে আসতে পারে। তাপমাত্রা কমলেও গরমের প্রখরতা তেমনটা কমবে না। কারণ, এখন বর্ষা মৌসুম চলছে। এ সময় ভ্যাপসা গরম বিরাজ করে।’

সোমবার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রংপুর, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় ও রাজশাহী বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং ঢাকা, বরিশাল ও খুলনা বিভাগের দু-এক জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। একই সঙ্গে রংপুর, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম ও সিলেটের কোথাও কোথাও ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণ হতে পারে। সারাদেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা সামান্য হ্রাস পেতে পারে।

অন্যদিকে, ফরিদপুর, খুলনা ও যশোর অঞ্চলের উপর দিয়ে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে।

ঢাকা ও পাশ্ববর্তী এলাকার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, আংশিক মেঘলা থাকতে পারে। আবহাওয়া প্রায় শুষ্ক থাকতে পারে। দক্ষিণ-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৮ থেকে ১২ কিলোমিটার বেগে বাতাস বয়ে যেতে পারে। রাতের তাপমাত্রা সামান্য হ্রাস পেতে পারে।

নদীবন্দরের সতর্ক বার্তায় বলা হয়েছে, রংপুর, বগুড়া, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, ঢাকা, ফরিদপুর, মাদারিপুর, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার এবং সিলেট অঞ্চলের উপর দিয়ে দক্ষিণ বা দক্ষিণ-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি হতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরে এক নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

নারী বিষয়ক অনলাইন টিভির যাত্রা শুরু

নারী বিষয়ক অনলাইন টিভির যাত্রা শুরু
এশিয়ার নারী বিষয়ক হারনেট টিভির উদ্বোধনী অনুষ্ঠান/ছবি: শাহরিয়ার তামিম

এশিয়ার নারী বিষয়ক প্রথম অনলাইন টেলিভিশন-হারনেট টিভি যাত্রা শুরু করল। শুধুমাত্র নারীদের জন্য বিশেষ অনুষ্ঠানমালা নির্মাণ করে সম্প্রচার করবে টেলিভিশনটি।

সোমবার (২২ জুলাই) সন্ধ্যায় রাজধানীর গুলশান ক্লাবে এক অনুষ্ঠানে টেলিভিশনটির উদ্বোধন করেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার, ব্রাজিলের রাষ্ট্রদূত জোয়াও তাবাজারা দি অলিভেইরা জুনিয়র, ঢাকা সিটি করপোরেশন (উত্তর) মেয়র আতিকুল ইসলাম, র‌্যাব মহাপরিচালক ড. বেনজীর আহমেদ, মানবাধিকার কর্মী খুশী কবির, আইনজীবী তুরিন আফরোজ, সংসদ সদস্য মাহী বি. চৌধুরী, কানিজ আলমাস প্রমুখ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে কাদের বলেন, আমার আজ এখানে আসা, বেঁচে থাকা সবকিছুই এক অলৌকিকতা। কেননা আমি মৃত্যুর খুব কাছে ছিলাম, সেখান থেকে প্রত্যাবর্তন করছি সেটা সম্ভব হয়েছে; তার জন্য আল্লাহর প্রতি অশেষ কৃতজ্ঞতা, আর আপনাদের দোয়া।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/22/1563810637321.jpg

সেতুমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের চেঞ্জ মেকার একজন মহিলা। তিনি আমাদের লিডার। তিনি আমাদের ডিজিটাল বাংলাদেশের মেকার। কিন্তু তারও ভুলত্রুটি থাকতে পারে। কেননা তিনি মানুষ। মানুষ মাত্রই কিছু ভুল ত্রুটি থাকে। দেশ চালাতে কিছু ভুল ত্রুটি হতে পারে। কিন্তু তিনি আমাদের দেশকে অনেক দূর এগিয়ে নিয়ে গেছেন। তিনি আমাদের ভিশন দিয়েছেন।

হারনেট টিভির যাত্রার কথা তুলে ধরে ওবায়দুল কাদের বলেন, আমাদের দেশে কোনকিছু শুরু হয় অনেক ঢাকঢোল দিয়ে, শেষ হয়ে প্যানপ্যানানি দিয়ে। কিন্তু আমি মনে করি হারনেট টিভি ইট উইল মেক এ ডিফারেন্স। কারণ, আপনারা শুরু করলেন 'গ্যালাক্সি অব ট্যালেন্টস' নিয়ে। এটা যেন অপপ্রচারের কারখানা, ফ্যাক্টরি না হয়, ভালগারিজমের আড্ডাখানা না হয়।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/22/1563810652264.jpg

তিনি আরো বলেন, গঠনমূলক সমালোচনাকে আমরা এনকারেজ করি। সেই আমার প্রকৃত বন্ধু যে আমার গঠনমূলক সমালোচনা করে। এক নারী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের কাছে অভিযোগ করেছে। তার বক্তব্যে তিনি যে সংখ্যা বলেছেন ৩৭ মিলিয়ন মানুষ 'ডিজিপিয়ার্ড' সেটা কী সঠিক? আমরা ধীরে ধীরে আগাতে চাই। মশা মারতে কামান দাগাতে চাই না। তার কথা আমরা ঠান্ডা মাথায় শুনতে চাই, তারপর খতিয়ে দেখতে চাই।

মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন্নেসা ইন্দিরা বলেন, মিডিয়াতে নারীরা দক্ষতার সাথে কাজ করছে, এখন নারীরা মিডিয়া উদ্যোক্তা হিসেবেও সফল হচ্ছে শেখ হাসিনার সরকার মিডিয়া বান্ধব সরকার।

তিনি আরো বলেন, হারনেট টিভি নারী উন্নয়ন, নারীর ক্ষমতায়ন, বঞ্চিত শোষিত নারীর কথা বলবে সেটাই প্রত্যাশা। তাদের সফলতা কামনা করছি।

হারনেট টিভির চেয়ারপারসন হোসনে প্রধান, ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে আছেন আলিশা প্রধান, উপব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে আছেন মেহজাবিন প্রধান ফাইজা।

অনুষ্ঠানে আলিশা প্রধান বলেন, ২০১৭ সালে যখন আমি আমেরিকা থেকে দেশে ফিরে আসি তখন থেকেই নারীদের জন্য কিছু করার ভাবনাটা মাথায় ছিল। অবশেষে আমরা সেটা করতে পারলাম।

তিনি বলেন, হারনেট টিভি সম্প্রচারের মাধ্যমে নারীর অধিকার, নারীর ক্ষমতায়ন, সকলের মানবাধিকার নিশ্চিতকরণের দিকে গুরুত্বারোপ করবে।

প্রসঙ্গত, নারীদের জন্য বৈষম্যমুক্ত সম্প্রীতির বিশ্ব গড়ে তোলার লক্ষ্য নিয়ে ২০১৮ সালে হারনেট টিভি প্রতিষ্ঠা করা হয়। যেটি আজ উদ্বোধন করা হলো।

 

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র