Alexa

আমিরকে নিয়ে শচীনের সতর্কতা

আমিরকে নিয়ে শচীনের সতর্কতা

ক্রিকেটার মোহাম্মদ আমির ও শচীন টেন্ডুলকার / ছবি: সংগৃহীত

পাকিস্তানের তারকা পেসার মোহাম্মদ আমির বিশ্বকাপে এখন ভয়ানক ফর্মে। তিন ম্যাচে দশ উইকেট নিয়ে টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারীদের তালিকায় অবস্থান করছেন সবার ওপরে। ভারত-পাকিস্তানের সবশেষ ম্যাচে অধিনায়ক বিরাট কোহলির বিপক্ষেও দারুণ সফল আমির। তার সাফল্য আসে ২০১৭ সালে চ্যাম্পিয়নস ট্রফির ফাইনালে। যে ম্যাচে ভারতকে ১৮০ রানে হারিয়ে ট্রফি ঘরে তুলে পাকিস্তান।

তাই চির বৈরী দুই প্রতিবেশী ভারত-পাকিস্তানের বিশ্বকাপ ম্যাচকে সামনে রেখে কিংবদন্তি ক্রিকেটার শচীন টেন্ডুলকার আমিরকে নিয়ে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন কোহলিদের। রোববার (১৬ জুন) ওল্ড ট্রাফোর্ডে মহারণের এ দ্বৈরথকে সামনে রেখে পাকিস্তানের বিপক্ষে ভারতীয় দলকে ইতিবাচক মনোভাব নিয়ে মাঠে নামার তাগিদ দিয়েছেন লিটল মাস্টার।

ট্রেন্ট ব্রিজে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ভারতের ম্যাচ ভেসে যাওয়ার পর শচীন বলেন, ‘আমিরের বিপক্ষে ডট বল মোকাবিলা করা নেতিবাচক হিসেবে দেখি না। যদি সুযোগ আসে, তাহলে ভারতীয় ক্রিকেটারদের আমি শট খেলতে বলব। ইতিবাচক থাকতে বলব। এটা টিকে থাকার ব্যাপার নয়। ইতিবাচকভাবেই প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। এ থেকে ভিন্ন কিছু করার প্রয়োজন নেই।’

অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদদের বিপক্ষে শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে ভারতের ব্যাটিংয়ের দায়িত্বটা রোহিত শর্মা ও বিরাট কোহলিকে কাঁধে তুলে নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন মাস্টার ব্লাস্টার শচীন। তিনি বলেন, ‘রোহিত ও কোহলিকে দীর্ঘ ইনিংস খেলতে হবে। পরিকল্পনাটা হওয়া উচিত এমন। বাকি ক্রিকেটাররা তাদেরকে ঘিরে খেলবে।’

শচীন আরও উল্লেখ করেন, পেস আক্রমণ দিয়ে ভারতীয় ইনিংসের শুরুর দিকে বিরাট কোহলি ও রোহিত শর্মাকে লক্ষ্যবস্তু বানাবে পাকিস্তান। নিজেদের ইনিংসের প্রাথমিক পর্যায়ে উভয় খেলোয়াড়কে এ নিয়ে সতর্ক থাকতে হবে।

বলেন, ‘ব্যাটিং লাইন-আপে রোহিত ও কোহলি দুজনেই অনেক বেশি অভিজ্ঞ। কোনো সন্দেহ নেই পাকিস্তান তাদের ওপর নজর দেবে। ম্যাচটি তারা নিজেদের জন্য সহজ করে নিতে চাইবে। আমির ও ওয়াহাব রিয়াজ অবশ্যই একটু আগে ভাগেই উইকেট তুলে নিতে চাইবে।’

বিশ্বকাপের লিগ পর্বের সর্বশেষ ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পাকিস্তানের ৪১ রানে হারের ম্যাচে আমির ছিলেন সম্পূর্ণ আলাদা। টনটনে বাঁ-হাতি এ ফাস্ট বোলার ক্যারিয়ার সেরা বোলিং ফিগার (৫/৩০) উপহার দিয়ে বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের দলীয় স্কোর ৩৫০ রানের নিচে আটকে রাখতে দেখিয়েছেন অগ্রণী ভূমিকা। যা একটা পর্যায়ে পাকিস্তানের জয়ের আশা জাগিয়েও তুলেছিল।

তিনটি বিভাগেই মেন ইন ব্লু শিবিরকে ইতিবাচক থাকার টিপস দিয়েছেন শচীন। বললেন, ‘তিন বিভাগেই আমাদের আক্রমণাত্মক হওয়া প্রয়োজন। শারীরিক ভাষাটা গুরুত্বপূর্ণ। আপনি যদি আত্মবিশ্বাস নিয়ে প্রতিরোধ করেন, তাহলে বোলার বুঝতে পারেন আপনি নিজের নিয়ন্ত্রণে আছেন।’

আপনার মতামত লিখুন :