Barta24

রোববার, ২৫ আগস্ট ২০১৯, ১০ ভাদ্র ১৪২৬

English

কমছে না বাস ভাড়া, যাত্রী হয়রানির অভিযোগ

কমছে না বাস ভাড়া, যাত্রী হয়রানির অভিযোগ
কমছে না বাস ভাড়া, যাত্রী হয়রানির অভিযোগ, ছবি: বার্তা২৪
এসএম জামাল
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
কুষ্টিয়া


  • Font increase
  • Font Decrease

বছরের দুই ঈদে বাড়তি চাপ আর ভাড়া নৈরাজ্য কোনো নতুন বিষয় নয়। তবে ঈদ এবং ঈদের ছুটি শেষ হলেও বাসের বাড়তি ভাড়া আদায় বন্ধ হয়নি কুষ্টিয়া-ঢাকা রুটে। এ রুটে চলাচলকারী পরিবহনগুলোর অতিরিক্ত ভাড়া নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে মুখে মুখে। বাড়তি ভাড়া নেওয়ার সঙ্গে যাত্রীদের হয়রানিসহ পরিবহন সংশ্লিষ্টদের এমন আচরণে ভোগান্তিতে পড়ছেন ঢাকামুখী মানুষ।

শুক্রবার (১৪ জুন) ঢাকা-কুষ্টিয়া রুটে চলাচলকারী বিভিন্ন পরিবহন কাউন্টার থেকে টিকিট নিতে এসে এসব অভিযোগ করেন যাত্রীরা।

যাত্রীদের অভিযোগ, ঈদের সময় দুই একদিন বাড়তি ভাড়া নেওয়াটা স্বাভাবিক। কিন্তু ঈদের ৯ দিন পরেও বাড়তি ভাড়া নেওয়াটা অযৌক্তিক। এছাড়া পরিবহন সংশ্লিষ্টরা ইচ্ছে করেই পরিবহন স্বল্পতা দেখিয়ে যাত্রীদের হয়রানি করে। ফেরার পথে যাত্রীদের মালামাল নিয়ে পরিবহন শ্রমিকদের তালবাহানা রয়েছে। ফলে অতিরিক্ত ভাড়ায় দিশেহারা হয়ে পড়েছেন কর্মস্থলে ফেরা যাত্রীরা। এতে ভাড়া বৃদ্ধির প্রবণতামুক্ত পরিবহন আইনের দাবি তুলেছেন যাত্রীরা।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/14/1560518226730.jpg

তবে আগামী রোববার (১৬ জুন) পর্যন্ত অতিরিক্ত ভাড়া নেওয়ার বিষয়টি অব্যহত থাকবে বলে জানান পরিবহন সংশ্লিষ্টরা।

ঢাকাগামী জাকিরুল ইসলাম নামের একযাত্রী বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘ঈদের অযুহাতে প্রতিবছর বাসের ভাড়া বাড়ানো হয়ে থাকে। মানুষ ঈদের সময় একটু বেশি ভাড়া দেওয়ার বিষয়টা স্বাভাবিকভাবে দেখে। ঈদ শেষ হলেও এখনো কমানো হয়নি বাস ভাড়া।’

অনুসন্ধানে জানা যায়, এসবি সুপার ডিলাক্সে (ননএসি) ৪৫০ টাকার ভাড়া বাড়িয়ে করা হয়েছে ৫৫০ টাকা, আরএন-এ (এসি) ৮০০ টাকার ভাড়া ১ হাজার ৩০০ টাকা এবং হুন্দাই (এসি) বাসে ১০০০ টাকার ভাড়া ১ হাজার ৬০০ টাকা, শ্যামলী পরিবহনে (ননএসি) ৪৫০ টাকার পরিবর্তে ৫৫০ টাকা, হানিফ এন্টারপ্রাইজে (ননএসি) ৪৫০ টাকার পরিবর্তে ৫৫০ টাকা, আরকে পরিবহনে (ননএসি) ৪৫০ টাকার পরিবর্তে ৫৫০ টাকা নেওয়া হচ্ছে।

অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের বিষয়ে হানিফ এন্টারপ্রাইজের কুষ্টিয়ার কাউন্টার মাস্টার তানভীর আহমেদ বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘মূলত কুষ্টিয়া থেকে ঢাকার বাস ভাড়া ৫৭৮ টাকা। কিন্তু বাস কোম্পানির মালিকরা ভর্তুকি দিয়ে ৪৫০ টাকা যাত্রীদের কাছ থেকে নেয়। ঈদের সময় অতিরিক্ত লোকসান সামাল দিতে ভাড়া কিছুটা বাড়তি রাখা হয়।’

আগামী রোববারের পর আর অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা হবে না বলে জানান তিনি।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/14/1560518243452.jpg

অভিযোগ রযেছে, গত ৮জুন রাত সাড়ে দশটায় এসবি (ননএসি) বাস থেকে এক যাত্রীর দুটি লাগেজ হারিয়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। পরিবহনটিতে এ ধরনের লাগেজ, মালপত্র হারানোর ঘটনা নিত্যদিনের ব্যপার বলে অভিযোগ তুলেছেন ভুক্তোভুগী অনেক যাত্রী।

এসবি পরিবহনের লাগেজ হারিয়ে ফেলার অভিযোগকারী পাপ্পু বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘যাত্রাপথে আমার সঙ্গ পাঁচটি লাগেজ ছিল। ঢাকা পৌঁছে ভোরে খালেক তেল পাম্পে নেমে তারা আমাকে দুটি লাগেজ দিতে পারেনি। পরে লাগেজ বুঝিয়ে না দিযে বরং আমাকে হেনস্থা করেছে এসবি সুপার ডিলাক্স পরিবহনের কর্মকর্তারা।’

এসবি পরিবহনের কুষ্টিয়ার কাউন্টার ম্যানাজার রেজাউল ইসলাম মালামাল হারানোর বিষয় অস্বীকার করে বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘আমাদের কাছে তেমন কোনো অভিযোগ নেই।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/14/1560518260154.jpg

পরিবহন নৈরাজ্য নিয়ে জানতে চাইলে কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট লুৎফুন নাহার বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘অতিরিক্ত ভাড়া আদায়কারী পরিবহনের তালিকাসহ সব ধরনের অভিযোগ আমাদের জানালে আমরা ব্যবস্থা গ্রহণ করব।’

আপনার মতামত লিখুন :

প্রাইভেটকার চাপায় মোটরসাইকেল চালক নিহত

প্রাইভেটকার চাপায় মোটরসাইকেল চালক নিহত
ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম।

রংপুরের পীরগাছায় প্রাইভেটকার চাপায় নাজমুল (৪০) নামে এক মোটরসাইকেল চালক নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও দুইজন।

রোববার (২৫ আগস্ট) দুপুরের দিকে উপজেলার কান্দি ইউনিয়নের মুচির বাজার নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত নাজমুল উপজেলার অন্নদানগর ইউনিয়নের প্রতাপ জয়শেন গ্রামের সৈয়দ আলীর ছেলে।

জানা গেছে, দুপুরের দিকে ওই এলাকায় সুন্দরগঞ্জ থেকে আসা রংপুর পল্লী বিদ্যুত সমিতি-১ এর প্রাইভেটকারের সঙ্গে একটি মোটরসাইকেলের সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলে মোটরসাইকেল চালক নাজমুল ইসলাম (৪০), আরোহী নাহিদ ইসলাম (২৫) ও আলামিন (৩০) গুরুতর আহত হয়। তাদের পাশের সুন্দরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক নাজমুলকে মৃত ঘোষণা করেন। অপর দুই আহতকে মুমূর্ষু অবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

পীরগাছা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) জয়নুল আবেদীন বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

নির্মাণাধীন ভবন থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু

নির্মাণাধীন ভবন থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু
ছবি: প্রতীকী

মাদারীপুরে নির্মাণাধীন ভবনের ছাদ থেকে পড়ে মনির শেখ (২৭) নামে এক নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে।

রোববার (২৫ আগস্ট) দুপুর ১২টার দিকে মাদারীপুর শহরের পাঠককান্দি এলাকায় স্থানীয় ফয়সাল খালাসীর নির্মাণাধীন ভবনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। মনির সদর উপজেলার টুবিয়া এলাকার শামসু শেখের ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শহরের পাঠককান্দি এলাকায় ফয়সাল খালাসীর নির্মাণাধীন ভবনে কাজ করছিলেন মনিরসহ কয়েকজন শ্রমিক। অসাবধানতাবশত মনির ভবনের ৩ তলার ছাদ থেকে পড়ে যায়। এতে গুরুতর আহত হলে অন্য শ্রমিকরা মনিরকে উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

মাদারীপুর সদর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার মাহাবুব আবির জানান, মাথায় বড় ধরনের আঘাত পাওয়ার কারণে ঘটনাস্থলেই মনিরের মৃত্যু হয়।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র