ফের শুরু হচ্ছে ইউএস-বাংলার ব্যাংকক ফ্লাইট

ছবি: সংগৃহীত

সাময়িকভাবে বন্ধ থাকার পর পুনরায় শুরু হতে যাচ্ছে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের ঢাকা-ব্যাংকক রুটের ফ্লাইট। যাত্রী চাহিদার কথা বিবেচনা করে ২০১৯ সালের ১ ফেব্রুয়ারি থেকে সপ্তাহে চারদিন ঢাকা থেকে থাইল্যান্ডের রাজধানী ব্যাংককের সুবর্ণভূমি বিমানবন্দরে ফ্লাইট পরিচালনা করা হবে।

বুধবার (৫ ডিসেম্বর) ইউএস-বাংলা কতৃক সংবাদমাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞিপ্তিতে এ কথা জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ঢাকা-ব্যাংকক রুটে ওয়ানওয়ের জন্য সর্বনিম্ন ভাড়া ১২,৯৯৪ টাকা এবং রিটার্ন ভাড়া ১৭,৯০৮ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। ভাড়ায় সকল ধরনের ট্যাক্স ও সারচার্জ অন্তর্ভুক্ত। প্রাথমিকভাবে রবি, মঙ্গল, বৃহস্পতি ও শুক্রবার ঢাকা থেকে ১০টা ২০মিনিটে ব্যাংককের উদ্দেশে ছেড়ে যাবে এবং ব্যাংককের স্থানীয় সময় দুপুর ১টা ৪০মিনিটে পৌঁছাবে। এছাড়া ব্যাংকক থেকে একই দিনে স্থানীয় সময় দুপুর ২টা ৪০মিনিটে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে আসবে এবং বিকাল ৪টা ২০মিনিটে ঢাকায় পৌঁছাবে।

ঢাকা-ব্যাংকক-ঢাকা রুটে ১৬৪ আসনের বোয়িং ৭৩৭-৮০০ এয়ারক্রাফট দিয়ে ফ্লাইট পরিচালিত হবে। বোয়িং ৭৩৭-৮০০ এয়ারক্রাফটে ৮টি বিজনেস ক্লাস, ১৫৬টি ইকোনমি ক্লাস এর আসন ব্যবস্থা রয়েছে। চলতি মাসের মধ্যে আরও একটি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ এয়ালাইন্সের বিমান বহরে যুক্ত হতে যাচ্ছে।

এছাড়া ২০১৯ সালের ৩১ মার্চ থেকে সপ্তাহে পাঁচদিন (রবি, মঙ্গল, বুধ, বৃস্পতি ও শুক্রবার) একই সময়ে ঢাকা থেকে ব্যাংকক এবং ব্যাংকক থেকে ঢাকার উদ্দেশে ফ্রাইট ছেড়ে আসবে।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ১৭ জুলাই থেকে যাত্রা শুরু করে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স। বর্তমানে সকল অভ্যন্তরীণ রুট ছাড়াও আন্তর্জাতিক রুট সিঙ্গাপুর, কুয়ালালামপুর, দোহা, মাস্কাট, গুয়াংজু ও কলকাতায় ফ্লাইট পরিচালনা করছে। সপ্তাহে প্রায় ৩০০টির অধিক অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করে থাকে ইউএস-বাংলা।

যাত্রা শুরু করার পর থেকে চার বছরের অধিক সময়ে প্রায় ৫২ হাজার ফ্লাইট পরিচালনা করেছে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স, যা বাংলাদেশে বিমান চলাচলের ইতিহাসে একটি রেকর্ড।

অর্থনীতি এর আরও খবর

//election count down //sticky sidebar