জ্বালানি খাতের অর্থে নির্বাচনী যন্ত্রপাতি কিনতে চায় ইসি

আসিফ শওকত কল্লোল, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
নির্বাচন কমিশন ভবন, ছবি: বার্তা২৪

নির্বাচন কমিশন ভবন, ছবি: বার্তা২৪

  • Font increase
  • Font Decrease

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য পেট্রোল, অয়েল ও লুব্রিকেন্ট কিনতে বরাদ্দ অর্থ দিয়ে আসন্ন নির্বাচনে বিভিন্ন যন্ত্রপাতি কিনতে চায় সংস্থাটি।। তবে নির্বাচনের আগে অর্থ ছাড় করতে ইসি’র কাছে ব্যাখ্যা চেয়েছে অর্থ মন্ত্রণালয়।

অর্থমন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, ২০১৮-১৯ অর্থ বছরে ইসির জ্বালানি খাতে ২৫৩ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়। এর মধ্যে ৫০ কোটি টাকা যন্ত্রপাতি ও সরঞ্জামাদি কিনতে চায় ইসি সচিবালয়। সম্প্রতি ইসি উপ-সচিব মো. আবদুল মমিন সরকার স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে অর্থ মন্ত্রণালয়ের কাছে এই অর্থ ব্যবহারের অনুমতি চাওয়া হয়।

আরো জানা গেছে, জ্বালানি খাতে অর্থ ব্যয় করা কঠিন। কারণ সরকারের নির্ধারিত মূল্যে জ্বালানি কিনতে হয় কর্মকর্তাদের। ফলে এখানে দামের হেরফের করা সম্ভব হয় না। কিন্তু যন্ত্রপাতি কিনতে ভাউচারে মূল্য নয় ছয় করার সুযোগ থাকে। এ জন্য নির্বাচন কমিশনের কর্মকর্তারা এ খাতের অর্থে যন্ত্রপাতি কিনতে আগ্রহ দেখায়।

মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, ইসি সচিবালয়ের চিঠিতে কোন ধরনের যন্ত্রপাতি কেনা হবে, কী পরিমাণ কেনা হবে এবং কেন কেনা হবে- সেসব বিষয়ে স্পষ্ট ব্যাখ্যা নেই। এছাড়া যন্ত্রপাতি ও সরঞ্জামাদি খাতে বরাদ্দ থাকা ১০ কোটি টাকায় কী ধরনের যন্ত্রপাতি কেনা হয়েছে সেটারও কোনো ব্যাখ্যা দেওয়া নেই।

এদিকে, ইসি সচিবালয়ের প্রস্তাব গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করে অর্থ মন্ত্রণালয় চারটি বিষয়ে পূর্ণ বিবরণ চেয়েছে। বিষয়গুলো হলো- চলতি অর্থ বছরে জ্বালানি খাতে বরাদ্দ ২৫৩ কোটি টাকা থেকে কী পরিমাণ অর্থ ব্যয় করা হয়েছে, যন্ত্রপাতি ও সরঞ্জামাদি খাতে বরাদ্দ ১০ কোটি টাকা দিয়ে কী ধরণের যন্ত্রপাতি কেনা হয়েছে, প্রস্তাবিত ৫০ কোটি টাকা দিয়ে কী ধরনের যন্ত্রপাতি কেনা হবে এবং এসব যন্ত্রপাতি কিনতে কী ধরনের শর্ত থাকবে।

আপনার মতামত লিখুন :