Barta24

রোববার, ১৬ জুন ২০১৯, ২ আষাঢ় ১৪২৬

English Version

‘কোনো শ্রমিকের বেতন কমবে না’

‘কোনো শ্রমিকের বেতন কমবে না’
ছবি: বার্তা২৪
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

কোনো শ্রমিকের বেতনই কমবে না বলে জানিয়েছেন শ্রম ও কর্মসংস্থান সচিব আফরোজা খানম।

বৃহস্পতিবার (১০ জানুয়ারি) বিকেলে সচিবালয়ে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে গার্মেন্টস শিল্প শ্রমিকদের জন্য ঘোষিত নিম্নতম মজুরি পর্যালোচনক্রমে সুপারিশসহ প্রতিবেদন প্রদানসহ গঠিত কমিটির সভা শেষে তিনি এ কথা জানান।

তিনি বলেন, বেতন গ্রেডে কোথায়-কোথায় সমস্যা আছে, সেটা নিয়ে পর্যালোচনা করেছি আমরা। গতকাল যে কমিটি গঠন করা হয়েছে সেই কমিটির প্রথম বৈঠক ছিল এটি। বেতন গ্রেডে কোথায়-কোথায় সমস্যা আছে তা আমরা দেখছি। খুব দ্রুত এর সমাধান করা হবে। ঘোষিত নূন্যতম মজুরিতে সাতটি গ্রেডের মধ্যে ৩, ৪ এবং ৫ গ্রেড নিয়েই শ্রমিকরা আপত্তি জানিয়েছে। অন্যান্য গ্রেডের তুলনায় ৩, ৪ এবং ৫ গ্রেডে বেতন তুলনামূলক কম। বিষয়টি আমরা আমলে নিয়েছি। আগামী রোববার আমাদের আরেকটি মিটিং হবে। সেখানে বিষয়টি নিয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। শ্রমিকদের মজুরি সমন্বয় করা হবে।

শ্রম সচিব বলেন, গার্মেন্টস শ্রমিকদের যে কোন সমস্যার অভিযোগ গ্রহণের জন্য কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের হট লাইন ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকবে। তিনি বলেন, অর্থনীতির মূল ভিত্তি গার্মেন্টস শিল্পকে রক্ষার জন্য মালিক-শ্রমিক সবাইকে একসাথে কাজ করতে হবে। দেশের এ গুরুত্বপূর্ণ শিল্পকে অস্থিতিশীল করার চক্রান্ত থাকতে পারে। এ বিষয়ে সকলকে সজাগ থাকতে হবে।

তিনি বলেন, বেতন-বৈষম্য ছাড়াও বাহিরের অনেক ইস্যু এসেছে। অনেক ফ্যাক্টরিতে গ্রেডের চেয়েও বেশি বেতন দিচ্ছে। কিন্তু সেখানেও আন্দোলন হচ্ছে, ভাঙচুর হয়েছে। এ বিষয়ে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। দুষ্টু চক্র থাকলেও সবাই মিলে প্রতিহত করতে হবে। এসময় শ্রমিকদের কাজে যোগ দেয়ার অনুরোধ জানান তিনি।

বৈঠকে সংসদ সদস্য সালাম মুর্শিদী, বিজিএমইএ এর সভাপতি মোঃ সিদ্দিকুর রহমান, এফবিসিসিআই এর সভাপতি মোঃ সফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, সাবেক বিজিএমইএ এর প্রাক্তন সভাপতি আতিকুল ইসলাম, মোহাম্মদী গ্রুপের এমডি রুবানা হক, জাতীয় শ্রমিক লীগের কার্যকরী সভাপতি ফজলুল হক মন্টু, জাতীয় শ্রমিক লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক বেগম শামছুন্নাহার ভূইয়া, জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন এর সভাপতি আমিরুল হক আমিন, ইন্ড্রাস্ট্রিঅল বাংলাদেশ কাউন্সিল এর মহাসচিব সালাউদ্দিন স্বপন এবং শ্রমিক নেতা সিরাজুল ইসলাম রনি, বাবুল আক্তার, নাজমাসহ মালিক-শ্রমিক নেতৃবৃন্দ বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন।

আপনার মতামত লিখুন :

৫১ কোটি টাকার স্বর্ণ বৈধ করেছেন ব্যবসায়ীরা

৫১ কোটি টাকার স্বর্ণ বৈধ করেছেন ব্যবসায়ীরা
স্বর্ণ মেলায় ব্যবসায়ীরা, ছবি: বার্তা২৪.কম

তিন দিনব্যাপী ‘স্বর্ণ মেলা-২০১৯'র প্রথম দুদিনে মোট ৫১ কোটি টাকার সোনা, রূপা ও ডায়মন্ড বৈধ করেছেন ব্যবসায়ীরা। ঢাকা ও চট্টগ্রামের ৩৬৬ জন ব্যবসায়ী ভরি প্রতি এক হাজার টাকা করে কর দিয়ে অবৈধ স্বর্ণ বৈধ করেছেন। এছাড়া ডায়মন্ডের ভরি প্রতি কর হচ্ছে ৬ হাজার ও রুপার ৫০ টাকা।

বিষটি নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতির (বাজুস) সাধারণ সম্পাদক দিলীপ কুমার আগরওয়ালা। তিনি বার্তা২৪.কম-কে বলেন, 'স্বর্ণ মেলায় কেবল ঢাকাতেই ২৫০ জন স্বর্ণ ব্যবসায়ী ৫০ কোটি টাকার বেশি স্বর্ণ বৈধ করেছেন। এর মধ্যে সোমবার ১৭৮ জন ২৫ কোটি টাকার বেশি দিয়েছেন।'

মেলার প্রথমদিন রোববার (২৩ জুন) বাজুস সভাপ‌তি গঙ্গা চরণ মালাকার, সাধারণ সম্পাদক দিলীপ কুমার আগরওয়ালাসহ ৭২ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান ২৫ কোটি টাকার স্বর্ণ বৈধ করেছেন বলে জানিয়েছেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সদস্য (কর ও প্রশাসন) কানন কুমার রায়।

তিনি বার্তা২৪.কম-কে বলেন, 'মেলায় ব্যবসায়ীদের সাড়া পেয়েছি। প্রথমদিন ব্যবসায়ীরা কর দিতে নয়, বুঝতে এসেছেন। অনেকে ফরম নিয়েছেন। আগামী দুদিন প্রত্যাশা অনুসারে মেলায় কর দেবেন ব্যবসায়ীরা।'

আরও পড়ুন: ২৫ কোটি টাকার স্বর্ণ বৈধ করেছেন ব্যবসায়ীরা

এ ছাড়াও বাণিজ্যিক নগরী চট্টগ্রামে ৬৬ জন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান মোট ৬৫ লাখ ৬৪ হাজার টাকার স্বর্ণ বৈধ করেছেন। এনবিআর ও বাজুসের যৌথভাবে আয়োজিত মেলায় ৪০০ কোটি টাকা কর আহরণ হবে বলে প্রত্যাশা করা হয়েছে।

২৩ জুন শুরু হওয়া এ মেলা চলবে মঙ্গলবার (২৫ জুন) পর্যন্ত। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত মেলা চলবে। দেশের আট বিভাগে এই স্বর্ণ মেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

রোববার সকালে মেলার উদ্বোধন করেন এনবিআরের চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া। তিনি বলেন, 'তৈ‌রি পোশাক ও চামড়া শি‌ল্পের মতো যারা স্ব‌র্ণের কাঁচামাল রফতা‌নির উদ্দেশে আমদা‌নি কর‌বেন, তা‌দের বন্ড সু‌বিধা‌ দেওয়া হবে।'

এ সময় এন‌বিআর চেয়ারম্যান আরও ব‌লেন, 'যারা বন্ড সু‌বিধা পা‌বেন, তাদের আমদানি করা সব স্বর্ণ রফতা‌নি কর‌তে হ‌বে। বন্ড সু‌বিধায় আনা স্বর্ণ খোলা বাজা‌রে বি‌ক্রি করা যা‌বে না।'

সাধারণ মানুষ বি‌দেশ থে‌কে স‌র্বোচ্চ ১০০ গ্রাম স্বর্ণ আমদা‌নি কর‌তে পার‌বেন। এর চে‌য়ে এক গ্রামও বে‌শি আ‌নলে তা বা‌জেয়াপ্ত করা হ‌বে। ত‌বে ব্যবসায়ীরা বি‌দেশ থে‌কে স্বর্ণালঙ্কার আমদা‌নি কর‌তে পার‌বে না ব‌লে জানান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া।

প্রতারণার উদ্দেশে ‘ক্যারিয়ার বিডি’র বিজ্ঞাপন

প্রতারণার উদ্দেশে ‘ক্যারিয়ার বিডি’র বিজ্ঞাপন
ছবি: সংগৃহীত

‘ক্যারিয়ার বিডি লিমিটেড প্রকল্পের মাধ্যমে বিদ্যুৎ বিভাগে চাকরি’ শিরোনামে বিভিন্ন পদে ১৯০ জন নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। যা দৈনিক জনকণ্ঠে মার্চের ১৯ তারিখে প্রকাশিত হয়।

এ বিজ্ঞপ্তির সঙ্গে বিদ্যুৎ বিভাগের কোনো সম্পর্ক নেই। দেশের নিরীহ মানুষের সঙ্গে প্রতরণা করাই এর উদ্দেশ্য বলে দাবি করেছে বিদ্যুৎ বিভাগ।

‘ক্যারিয়ার বিডি লিমিটেডে’র এ হীন প্রচেষ্টার সঙ্গে জড়িতদের সুনির্দিষ্ট তথ্যসহ নিকটস্থ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থায় বা থানায় এবং বিদ্যুৎ বিভাগের ৯৫১৩৩৬৪ নম্বরে অথবা [email protected] ই-মেইলে জানানোর জন্য অনুরোধ করেছে বিদ্যুৎ বিভাগ।

এছাড়া গত ১৯ মার্চ দ্যা ডেইলি স্টার ও দৈনিক আমাদের সময় পত্রিকায় প্রকাশিত বিদ্যুৎ বিভাগের বিভিন্ন পদে ১৭টি শূন্য পদ পূরণের জন্য দেওয়া বিজ্ঞপ্তি অনুসারে নিয়োগ কার্যক্রম চলমান রয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র