দু’দিনে বেটবিসির দাম বেড়েছে ৬০০ টাকা, ডাচ-বাংলার ৪৬ টাকা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা ২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

দুই দিনের ব্যবধানে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ব্রিটিশ অ্যামেরিকান টোবাকো বাংলাদেশ কোম্পানি লিমিটেডের (বেটবিসি) প্রতিটি শেয়ারের দাম বেড়েছে ৫৯৯ দশমিক ৯০ টাকা।

একই সময়ে ব্যাংক খাতের ডাচ-বাংলা ব্যাংক লিমিটেডের শেয়ারের দাম বেড়েছে ৪৫ দশমিক ৮০ টাকা। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

বাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, কোম্পানি দুটির সদ্য সমাপ্ত বছরের লভ্যাংশ ঘোষণাকে কেন্দ্র করে শেয়ারের দাম ঘোড়ার দৌঁড়ের মতো বাড়ছে। গত ১১ মার্চ কোম্পানির পরিচালনা পরিষদ ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ মালের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে শেয়ারহোল্ডারদের জন্য লভ্যাংশ ঘোষণা করে।

ডিএসইর তথ্যমতে, ১১ মার্চ বেটবিসির শেয়ারের দাম ছিল তিন হাজার ৯৪৯ দশমিক পাঁচ টাকা। সেখান থেকে ৫৯৯ দশমকি ৯ টাকা বেড়ে ১৩ মার্চ (বুধবার) প্রতিটি শেয়ারের মূল্য দাঁড়িয়েছে চার হাজার ৫৪৯ দশমিক চার টাকায়। তবে ভাল লভ্যাংশ দেবে এই ঘোষণায় ৫ মার্চ থেকে কোম্পানিটির শেয়ারের দাম বেড়েছে ৮৩৪ দশমিক ৯ টাকা।

অন্যদিকে ডাচ-বাংলা ব্যাংকের শেয়ার গত ১১ মার্চ সোমবার সর্বশেষ লেনদেন হয়েছিল ১৭১ দশমিক ৯ টাকায়। সেখান থেকে ৪৫ দশমিক ৯ টাকা বেড়ে ১৩ মার্চ বুধবার শেয়ারটির সর্বশেষ লেনদেন হয়েছে ২১৭ দশমিক সাত টাকায়।

গত ১১ মার্চ ডিএসইর ওয়েবসাইটে বেটবিসি ও ডাচ-বাংলা ব্যাংকের লভ্যাংশ ঘোষণার খবর প্রকাশ করা হয়। এতে বলা হয়, বেটবিসি ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ সমাপ্ত অর্থবছরে শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ৭০০ শতাংশ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। এর মধ্যে ৫০০ শতাংশ নগদ ও ২০০ শতাংশ বোনাস। কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি মুনাফা (ইপিএস) হয়েছে ১৬৬ দশমিক ৮৭ টাকা। এর আগের বছর ৬০০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল শেয়ারহোল্ডারদের।

অন্যদিকে ডাচ-বাংলা ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদ ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ সমাপ্ত অর্থবছরে শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ১৫০ শতাংশ লভ্যাংশ ঘোষণা করে। কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি মুনাফা (ইপিএস) হয়েছে ২১ দশমিক শূন্য এক টাকা। এর আগের বছর শেয়ারহোল্ডারদের ৩০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল কোম্পানিটি।

আপনার মতামত লিখুন :