বিজিএমইএ’র ইমেজ পুনরুদ্ধারসহ স্বাধীনতা পরিষদের ১২ অঙ্গীকার

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ইশতেহার ঘোষণা অনুষ্ঠানে স্বাধীনতা পরিষদের প্রার্থীরা/ ছবি: বার্তা২৪.কম

ইশতেহার ঘোষণা অনুষ্ঠানে স্বাধীনতা পরিষদের প্রার্থীরা/ ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

আসছে ৬ এপ্রিল বিজিএমই-এর ২০১৯-২১ সালের নির্বাচনে নির্বাচিত হলে পোশাক শিল্পের হারানো ইমেজ পুনরুদ্ধার ও দেশ-বিদেশের মানুষের মধ্যে নেতিবাচক ধারণা দূর করাসহ ১২ দফা ইশতেহার ঘোষণা করেছেন স্বাধীনতা পরিষদের আহ্বায়ক ডে‌নিম প্র‌সে‌সিং প্ল্যান্টের মা‌লিক মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম।

বৃহস্পতিবার (২১মার্চ) রাজধানীর ঢাকা ক্লাবে সংগঠনটির আয়োজিত 'তৈরি পোশাক শিল্পের বর্তমান ও ভবিষ্যৎ‘ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় জাহাঙ্গীর আলম এই ইশতেহার ঘোষণা করেন। এ সময় সংগঠনের অন্য নেতারাও উপস্থিত ছিলেন।

জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘অনেকেই মনে করেন, গার্মেন্টস মালিকরা ভালো আছেন। কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে, দেশের অধিকাংশ মালিকের নিজেদের বাড়ি-গাড়ি ব্যাংকে বন্ধক রাখা আছে। তারা শ্রমিকদের বেতন দিতে পারে না।’

তিনি বলেন, ‘অনেক বাধার পরও পাঁচ বছর পর বিজিএমইএ-তে নির্বাচন হচ্ছে, সদস্যরা অন্তত এবার ভোট দিতে পারছেন। ভোটাররা পছন্দ মতো নেতা নির্বাচন করুক। জয়-পরাজয় বিষয় না।’

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘নির্বাচন শতভাগ সুষ্ঠু হবে, এ ব্যাপারে আমি আশাবাদী।’

স্বাধীনতা পরিষদের ১২ দফা অঙ্গীকারের মধ্যে আছে- পোশাক শিল্পের ভাবমূর্তি দেশ ও বিদেশে সঠিকভাবে তুলে ধরা, প্রধানমন্ত্রীর লক্ষ্য অনুযায়ী ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশের কাতারে পৌঁছাতে শিল্প উদ্যোক্তা তৈরি করা ও পরিবর্তনশীল বাজারের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে বহুমুখী পণ্য তৈরি করতে গবেষণা সেল' গঠন করা।

ইশতেহারে আরও আছে- বিজিএমইএ এর সকল স্ট্যান্ডিং কমিটি কার্যকর করা এবং কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষতা বৃদ্ধি ও সেবা দেওয়ার মানসিকতা তৈরি করা, গার্মেন্টস শিল্পকে সরাসরি ১০ শতাংশ প্রণোদনা দেওয়ার জন্য সরকারের কাছে আবেদন জানানো ইত্যাদি।

জাহাঙ্গীর আলম সহ স্বাধীনতা পরিষদ থেকে ১৮ জন পরিচালক পদে নির্বাচন করছেন। তারা হলেন: ডিলাক্স অ্যাপারেলসের মো. দেলোয়ার হোসেন, অলিরা ফ্যাশন‌সের মো. হুমায়ুন রশিদ জনি,  নর্দান করপোরেশনের রফিক হাসান, এলুরিং ফ্যাশনসে মোঃ সাইফুল ইসলাম, লিবাস স্টিচের মো. শওকত হোসেন, হানজালা টেক্সটাইলস পার্কের লে. কর্নেল (অব)খন্দকার ফরিদুল আকবর, ভ্যান হ্যা‌পেন ফ্যাশন এর মো. জাহাঙ্গীর কবির।

এছাড়াও আছেন জেইন অ্যাপা‌রেল‌সের  মো. জাহিদ হাসান, অ্যাপারেলস বাংলা সো‌সিং‌য়ের মো. শ‌রিফুল আলাম  চৌধুরী, এ এস গা‌র্মে‌ন্টেস অ্যান্ড টেক্সটাইল‌সের কাজী আবদুস সোবহান, টপ টেক্স সো‌য়েটারসের জহিরুল ইসলাম, জেট এ অ্যাপারেলস এর কাজী মাহয্যা‌বিন মমতাজ,‌ ডি‌কে গ্লোবাল ফ্যাশনসের মাহমুদ মাহমুদ হোসাইন,সাউথ ও‌য়েস্ট ক‌ম্পো‌জিটের মো. হো‌সেন সাব্বির মাহমুদ, ও‌য়েমার্ট অ্যাপারেলস আয়েশা আক্তার, প্রিয়াংকা ফ্যাশনসের ‌মো. ওয়ালীউল্লাহ ও গোল্ডেন ডাক অ্যাপারেলসের ওমর নাজিম হেকমত। ইশতেহার ঘোষণার সময় তারা সবাই উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মতামত লিখুন :