মূল্য বৃদ্ধিই আগামী নেতৃত্বের বড় চ্যালেঞ্জ: এফবিসিসিআই সভাপতি

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপ করেন  শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন / ছবি: বার্তা২৪

সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপ করেন শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন / ছবি: বার্তা২৪

  • Font increase
  • Font Decrease

আন্তর্জাতিক বাজারে বাংলাদেশি পোশাকের মূল্য বৃদ্ধিই বিজিএমইএর আগামী নেতৃত্বের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ হবে বলে মনে করছেন এফবিসিসিআইর সভাপতি ও বিজিএমইএর সাবেক সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন।

শনিবার (৬ এপ্রিল) বিজিএমইএর কার্যালয়ে বেলা সাড়ে ১১টায় ভোট দিতে যাওয়ার সময় গণমাধ্যমকে তিনি এ কথা জানান।

ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের (এফবিসিসিআই) সভাপতি বলেন, ‘বাংলাদেশের পোশাক শিল্পকে বিভিন্ন সময় নানা ধরনের প্রতিবন্ধকতার মুখোমুখি হতে হচ্ছে। কমপ্লায়েন্সসহ নানা উদ্যোগ নেওয়ার পর পণ্যের মূল্য না বেড়ে বরং কমে যাচ্ছে। ফলে আন্তর্জাতিক বাজারে দর কষাকষি শেষে নিজেদের মধ্যে সমন্বয় করে পণ্যের মূল্য বাড়ানোই এখন বড় চ্যালেঞ্জ হবে নির্বাচিত নেতৃবৃন্দের।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা আশা করছি যারাই নির্বাচিত হবেন তারা সফলতার সাথে দায়িত্বপালন করতে পারবেন। আশা করছি তারা এই শিল্পকে আরও সামনের পথে এগিয়ে নিয়ে যাবেন।’

দীর্ঘ্য পাঁচ বছর পর অনুষ্ঠিত হচ্ছে বাংলাদেশ তৈরি পোশাক প্রস্তুত ও রফতানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) এ নির্বাচন। শনিবার সকাল ৮টা থেকে একযোগে ঢাকা ও চট্টগ্রামে শুরু হয়েছে ভোটাধিকার প্রয়োগের কার্যক্রম।

ঢাকা ও চট্টগ্রাম অঞ্চল মিলিয়ে মোট ১ হাজার ৯৯৫ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। তবে সকাল থেকেই পরিষদ-ফোরাম জোট ও স্বাধীনতা পরিষদের প্রার্থীরা এসেছেন বিজিএমইএর ঢাকার কার্যালয়ে।

পরিষদ-ফোরাম জোটের নেতৃত্ব দিচ্ছেন মোহাম্মাদী গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রুবানা হক। অন্যদিকে স্বাধীনতা পরিষদের নেতৃত্ব দিচ্ছেন ডিএসএল গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. জাহাঙ্গীর আলম।

ভোটাররা ঢাকা অঞ্চলের ২৬ জন পরিচালকের জন্য ভোট দিতে পারবেন। সেক্ষেত্রে একটি ব্যালট পেপারে ৪৪ জন প্রার্থীর মধ্যে ২৬টি ভোট দিতে পারবেন ভোটাররা। তবে এক্ষেত্রে বেশ খানিকটা সাবধান হতে হবে ভোটারদের। ২৬ জনকে ভোট দিতে হবে একজন ভোটারকে নয়তো ব্যালট পেপার বাতিল হয়ে যাবে।

ভোটদান কার্যক্রম চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। তবে চট্টগ্রামের পরিচালকদের জন্য ভোট দিতে হবে না ভোটারদের। পরিষদ-ফোরাম জোটের নয় জন প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চট্টগ্রাম অঞ্চলের জন্য নির্বাচিত হয়েছেন। ঢাকা ও চট্টগ্রাম মিলিয়ে ৩৫ জন পরিচালক নির্বাচিত হবেন আজ।

আপনার মতামত লিখুন :