Alexa

দেশের পুঁজিবাজার

সূচকে বড় পতন, লেনদেন বেড়েছে সামান্য

সূচকে বড় পতন, লেনদেন বেড়েছে সামান্য

ছবি: বার্তা২৪.কম

দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবস সোমবার (৮ এপ্রিল) সূচকের বড় ধরনের পতনের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে এ দিনের লেনদেন কার্যক্রম। এদিন ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স কমেছে ৬১ পয়েন্ট এবং সিএসইর প্রধান সূচক সিএসসিএক্স কমেছে ১১২ পয়েন্ট।

তবে এদিন লেনদেন বেড়েছে উভয় পুঁজিবাজারে। এদিন ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ৪১৮ কোটি টাকা, গত রোববার লেনদেন হয়েছিল ৩৩০ কোটি ৫৪ লাখ টাকা। অপরদিকে এদিন সিএসই’তে লেনদেন হয়েছে ১৫ কোটি ২৪ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ড। গত কার্যদিবসের সিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ৯ কোটি ৫৬ লাখ টাকা। ডিএসই ও সিএসই’র ওয়েবসাইট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

ডিএসই

এদিন ডিএসইতে লেনদেনের শুরুতে সূচক বাড়ে। লেনদেনের শুরু হয় ১০টা ৩০ মিনিটে, এরপর প্রথম ৫ মিনিটেই ডিএসইএক্স সূচক ৩ পয়েন্ট বাড়ে। এরপর থেকে সূচক বাড়ার প্রবণতা কমতে থাকে। বেলা ১০টা ৪০ মিনিটে সূচক গত কার্যদিবসের সমান হয়ে যায়। এরপর থেকে সূচক নেতিবাচক হতে থাকে। বেলা ১০টা ৫০ মিনিটে সূচক গত কার্যদিবসের চেয়ে ৪ পয়েন্ট কমে।

বেলা ১১টায় ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের চেয়ে ২১ পয়েন্ট কমে। তবে বেলা ১২টায় সূচক ৫৫ পয়েন্ট কমে যায়। বেলা ২টায় সূচক গত কার্যদিবসের চেয়ে ৬০ পয়েন্ট কমে যায়। আর বেলা আড়াইটায় লেনদেনে শেষে ডিএসইএক্স সূচক ৬১ পয়েন্ট কমে দাঁড়ায় ৫ হাজার ৩৭২ পয়েন্টে।

অন্যদিকে, ডিএসই-৩০ সূচক ১৮ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে এক হাজার ৯২৪ পয়েন্টে এবং ডিএসই শরিয়াহ সূচক ১৮ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে এক হাজার ২৪০ পয়েন্টে। এদিন ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৪১৮ কোটি টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ড।

লেনদেন শেষে ডিএসইতে লেনদেন হওয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে দাম বেড়েছে ৪৫টির, কমেছে ২৭৩টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৮টি কোম্পানির শেয়ারের দাম।

সোমবার দাম বৃদ্ধির ভিত্তিতে ডিএসই’র শীর্ষ দশ কোম্পানির তালিকায় আছে- ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো বাংলাদেশ, গ্রামীণ ফোন, ইউনাইটেড পাওয়ার, ফরচুন সু, ইস্টার্ন কেবল, মুন্নু সিরামিকস, স্কয়ার ফার্মা, ডিবিএইচ, ডাচ-বাংলা ব্যাংক এবং বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবল।

সিএসই

অন্যদিকে, লেনদেন শেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সাধারণ সূচক (সিএসইএক্স) ১১২ পয়েন্ট কমে ৯ হাজার ৯৭৮ পয়েন্টে, সিএসই-৩০ সূচক ২৪৬ পয়েন্ট কমে ১৪ হাজার ৩৮৭ পয়েন্টে এবং সিএএসপিআই সূচক ১৮৬ পয়েন্ট কমে ১৬ হাজার ৪৭৮ পয়েন্টে অবস্থান করে।

লেনদেন শেষে সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ১৫ কোটি ২৪ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট।

এদিন দাম বাড়ার ভিত্তিতের সিএসই’র শীর্ষ কোম্পানিগুলো হলো- আরামিট সিমেন্ট, ইস্টার্ন কেবল, অ্যাপেক্স ফুটওয়্যার, মিথুন মিটিং, সমতা লেদার, শিফার্ড ইন্ডাস্ট্রিজ, এসিআই, পিএলএফএসএল এবং এসিআই ফর্মুলা।

আপনার মতামত লিখুন :

অর্থনীতি এর আরও খবর