Alexa

চেক পয়েন্ট সিস্টেমসের ৪০ কোটি কর ফাঁকি

চেক পয়েন্ট সিস্টেমসের ৪০ কোটি কর ফাঁকি

ছবি: সংগৃহীত

বন্ডেড সুবিধার অপব্যবহার করে খোলাবাজারে পণ্য বিক্রি করার অভিযোগে চেক পয়েন্ট সিস্টেমসের বিরুদ্ধে ৪০ কোটি ২৭ লাখ টাকার কর ফাঁকির মামলা করেছে কাস্টমস বন্ড কমিশনারেট, ঢাকা। কোম্পানিটি নারায়ণগঞ্জের আদমজী ইপিজেডে অবস্থিত।

বিষয়টি বার্তা২৪.কম-কে নিশ্চিত করেছেন সহকারী কমিশনার মো. আল আমিন। বৃহস্পতিবার (১৬ মে) তিনি বলেন, আমদানিকৃত পণ্য অবৈধ অপসারণপূর্বক চোরাই পথে খোলাবাজারে বিক্রির অভিযোগে প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলাসহ দাবিমানা জারি করা হয়েছে।

কমিশনার আল আমিন বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গত ২ মার্চ ঢাকা কাস্টমসের উপ-কমিশনার মোহাম্মদ নাজিউর রহমান মিয়ার নেতৃত্বে একটি প্রিভেন্টিভ দল প্রতিষ্ঠানটি সরেজমিন পরিদর্শন করেন।

এসময় কাস্টমস কর্মকর্তারা প্রতিষ্ঠান প্রতিনিধিগণের উপস্থিতিতে বন্ডেড ওয়্যারহাউজে মজুদ কাঁচামালের মজুদ যাচাই করেন। পরবর্তীতে প্রতিষ্ঠানটির বন্ড রেজিস্টার, আমদানি-রফতানি তথ্য আড়াআড়ি যাচাই করা হয়।

পূর্ণাঙ্গ তদন্ত শেষে বন্ড সুবিধায় আমদানিকৃত কাঁচামালের মধ্যে সিগনালিং এপারেটাস ২ হাজার ৯৩ লাখ ৬৭৭ কেজি, পেপার ও পেপার বোর্ড ৩ লাখ ৭৪ হাজার ৯৮ কেজি, থার্মাল ট্রান্সফার রিবন ১১ হাজার ৫৩৯ কেজি, স্ট্রিং ১ হাজার ৭২৫ কেজি, সেলফ এডহেসিভ পেপার ১৩ হাজার ১৫৭ কেজি, প্রিন্টিং ইনক ৪২ হাজার ৮৫ কেজি এবং রিবন ৫ হাজার ১৬৭ কেজি মজুদ কম পাওয়া যায়। ফলে কাঁচামাল-পণ্য অবৈধভাবে অপসারণপূর্বক খোলাবাজারে বিক্রি হয়েছে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

সহকারী কমিশনার বলেন, পণ্যের মোট শুল্কায়ন মূল্য ৯৮ কোটি ৯ লাখ ৭২ হাজার ৮১১ টাকা এবং ফাঁকিকৃত শুল্ক করের পরিমাণ ৪০কোটি ২৭ লাখ ১৭ হাজার ৫৪২ টাকা। ফাঁকিকৃত শুল্ক কর  আদায় ও দণ্ডমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের লক্ষ্যে এ দফতর থেকে অভিযুক্ত প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে গত ৮ মে দাবিনামা সম্বলিত কারণ দর্শানো নোটিশ জারি করা হয়েছে।

 

 

 

 

আপনার মতামত লিখুন :