উত্তরা আড়ংকে ৪ লাখ টাকা জরিমানা, সাময়িক বন্ধ ঘোষণা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

উত্তরা আড়ং সাময়িকভাবে বন্ধ ঘোষণা করেছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর। এছাড়া প্রতিষ্ঠানটিকে সাড়ে ৪ লাখ টাকা জরিমানাও করা হয়েছে।

সোমবার (৩ জুন) দুপুরে এক গ্রাহকের অভিযোগের ভিত্তিতে আড়ংয়ের উত্তরার জসীমউদ্দিন রোডস্থ আউটলেটটি সাময়িক বন্ধ ও জরিমানা করা হয়।

গ্রাহকের অভিযোগ ছিল- এক গ্রাহক ২৫ মে আড়ংয়ের উক্ত আউটলেট একটি পাঞ্জাবি ৭০০ টাকায় কিনে। কিন্তু ৩১ মে সেই পাঞ্জাবি ওই আউটলেটে ১৩০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এই অভিযোগের ভিত্তিতে এ জরিমানা করা হয়েছে।

ভোক্তা অধিদফতরের ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ারের সার্বিক তত্ত্বাবধানে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করেন সহকারী পরিচালক মো. আব্দুল জব্বার মণ্ডল।

মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার বার্তা২৪.কম-কে জানান, গত ২৫ মে এক ক্রেতা উত্তরা আড়ং আউটলেট থেকে একটি পাঞ্জাবি কেনেন ৭১৩ টাকায়। একই পাঞ্জাবি ৩১ মে কিনতে গেলে দাম রাখা হয় এক হাজার ৩১৫ টাকা। অধিদফতরে এমন অভিযোগ করেন এক ভোক্তা।

তিনি বলেন, 'এ পরিপ্রেক্ষিতে সোমবার উত্তরা আড়ংয়ে অভিযান চালিয়ে এর সত্যতা পায় অধিদফতর। আড়ং অভিনব কায়দায় বেশি দাম লিখে ভোক্তাদের ঠকাচ্ছে। কী অবাক করা বিষয় ছয়দিনে একটি পাঞ্জাবির দাম বেড়েছে ৬০০ টাকা। যার কোনো কারণ জানাতে পারেনি আড়ংয়ের শোরুমের কর্মকর্তারা।'

তিনি আরও জানান, আড়ং একটি ব্র্যান্ড। দেশি ভালো পণ্য বিক্রি করে বলে তাদের প্রতি ক্রেতাদের রয়েছে আস্থা ও সরল বিশ্বাস। এটি পুঁজি করে কৌশলে ক্রেতাদের ঠকাচ্ছে, যা ভোক্তা আইন পরিপন্থী। এ অপরাধে তাদের সাড়ে চার লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। একই সঙ্গে প্রতিষ্ঠানটি সাময়িক বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। দাম বাড়ানোর যৌক্তিক কারণ ব্যাখ্যা করতে প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ অধিদফতরে ডাকা হয়েছে। তারা যৌক্তিক কোনো ব্যাখ্যা দিতে না পারলে প্রতিষ্ঠানটি স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দেয়া হবে।

আপনার মতামত লিখুন :