Barta24

বুধবার, ২৬ জুন ২০১৯, ১২ আষাঢ় ১৪২৬

English Version

আসন্ন বাজেট

কমছে না করপোরেট কর, বাড়ছে না ব্যক্তি শ্রেণীর করমুক্ত আয়সীমাও

কমছে না করপোরেট কর, বাড়ছে না ব্যক্তি শ্রেণীর করমুক্ত আয়সীমাও
বাজেটের প্রতীকী ছবি
মাহফুজুল ইসলাম
সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
ঢাকা


  • Font increase
  • Font Decrease

আসছে বাজেটে কমছে না বহুল আলোচিত করপোরেট করের হার। করপোরেট করের পাশাপাশি ব্যক্তি-শ্রেণীর করমুক্ত আয়সীমার হারও বাড়ছে না। চলতি বছরের বাজেটে যা ছিল নতুন অর্থবছরের বাজেটেও তাই থাকছে। অর্থমন্ত্রণালয় এবং জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এ বিষয়ে এনবিআরের সদস্য (কর ও প্রশাসন) বার্তা২৪.কমকে বলেন, 'কর ব্যবস্থা সহজীকরণ করা হচ্ছে। ঢালাওভাবে করপোরেট কর কমানো কিংবা বাড়ানো হচ্ছে না। তবে দু-একটা জায়গায় ছোট খাটো পরিবর্তন আসতে পারে।'

তিনি বলেন, 'ইফেক্টিভ করপোরেট ট্যাক্স (কর যোগ্য ব্যক্তির তালিকা অনুসারে) হওয়ার কথা ১০ শতাংশ। আর আমাদের আসছে মাত্র ৪ দশমিক ৭৪ শতাংশ। অর্থাৎ এখনো ৬ শতাংশ মানুষ করপোরেট কর দেয় না। আমরা ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটে কর যোগ্য ব্যক্তিদের করের আওতায় আনতে উদ্যোগ নিয়েছি।'

ব্যক্তি শ্রেণীর করদাতাদের করমুক্ত আয়ের সীমা তিন লাখ টাকা করা এবং করপোরেট কর কমানোর প্রস্তাব জানিয়েছিল ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (এফবিসিসিআই), আইনজীবী, পেশাজীবী এবং অর্থনীতিবিদরা।

এফবিসিসিআইয়ের প্রেসিডেন্ট শেখ ফজলে ফাহিম বলেন, ‘গত চার বছর ধরে ব্যক্তি আয়কর সীমা একই রাখা হয়েছে। অথচ এই সময়ে মানুষের জীবনযাত্রার ব্যয় অনেক বেড়েছে। ফলে এটি আড়াই লাখ টাকা রাখার কোনো যৌক্তিকতা নেই। তাই এটি বাড়িয়ে সাড়ে তিন লাখ টাকা করা হোক।’

মহিলা ও ৬৫ বছরের বেশি বয়সী করদাতাদের করমুক্ত আয়সীমা তিন লাখ টাকা থেকে বাড়িয়ে চার লাখ টাকায় উন্নীতকরণ ও প্রতিবন্ধী করদাতাদের করমুক্ত আয়ের সীমা চার লাখ টাকা থেকে বাড়িয়ে পাঁচ লাখ টাকা করার দরকার বলে মনে করেন তিনি।

করপোরেট কর কমানোর দাবি তুলে ধরে তিনি বলেন, 'পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানির ক্ষেত্রে করপোরেট কর ২৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে সাড়ে ২২ শতাংশ করা ও পুঁজিবাজারের অ-তালিকাভুক্ত কোম্পানির ক্ষেত্রে ৩৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ম্যানুফ্যাকচারিং কোম্পানির ক্ষেত্রে ৩০ শতাংশ ও নন ম্যানুফ্যাকচারিং কোম্পানির ক্ষেত্রে সাড়ে ৩২ শতাংশ করা উচিত।'

এছাড়াও মার্চেন্ট ব্যাংকের করপোরেট কর সাড়ে ৩৭ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৩৫ শতাংশ করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে, পুঁজিবাজারের তালিকাভুক্ত নয় এমন বিদেশি কোম্পানির প্রত্যাবাসনযোগ্য মুনাফার ওপর করপোরেট কর ২০ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ৩০ শতাংশ করার প্রস্তাবও এনবিআর ও অর্থমন্ত্রণালয়কে দিয়েছেন এফবিসিসিআই।

অর্থনীতিবিদ ড. এবি মির্জা আজিজুল ইসলাম বার্তা২৪.কমকে বলেন, 'করপোরেট কর ও ব্যক্তিশ্রেনীর করমুক্ত আয়সীমা বাড়ানো উচিত।'

তিনি বলেন, 'করপোরেট করে হার কমালে ব্যবসায়ীরা কর দিতে উৎসাহিত হবেন। করও বেশি দেবেন।'

বর্তমান অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল প্রাক বাজেট আলোচনায় এবারের বাজেটে করপোরেট করের হার কমানোর আশ্বাস দিয়েছিলেন অনেকবার। কিন্তু শেষ পর্যন্ত এখানে হাত দেননি।

আপনার মতামত লিখুন :

বিদেশি চ্যানেল-ফেসবুক-ইউটিউবের বিজ্ঞাপনে ১৫% ভ্যাট আরোপ

বিদেশি চ্যানেল-ফেসবুক-ইউটিউবের বিজ্ঞাপনে ১৫% ভ্যাট আরোপ
ছবি: সংগৃহীত

বিদেশি টিভি চ্যানেল সম্প্রচার এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক, ইউটিউবে প্রচারিত বিজ্ঞাপনের ওপর ১৫ শতাংশ ১৫ শতাংশ হারে মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) দিতে হবে।

বুধবার (২৫জুন)জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) এ সংক্রান্ত নির্দেশনা জারি করেছে। এতে বলা হয়, ১ জুলাই থেকে বাংলাদেশে বিদেশি টিভি চ্যানেল সম্প্রচার এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম- ফেসবুক, ইউটিউবে বিজ্ঞাপন দিতে ১৫ শতাংশ ভ্যাট দিতে হবে।

সূচক বেড়ে লেনদেন চলছে

সূচক বেড়ে লেনদেন চলছে
ছবি প্রতীকী

দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সপ্তাহের চতুর্থ কার্যদিবস বুধবার (২৬ জুন) সূচক বেড়ে লেনদেন চলছে। এদিন বেলা সোয়া ১১টা পর্যন্ত ডিএসই’র প্রধান সূচক ডিএসইএক্স বেড়েছে ১৩ পয়েন্ট এবং সিএসইর প্রধান সূচক সিএসসিএক্স বেড়েছে ১৭ পয়েন্ট।

এছাড়াও একই সময়ে ডিএসইতে মোট ৮৮ কোটি ৫২ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে এবং সিএসইতে ২ কোটি ৩১ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে।

ডিএসই ও সিএসই’র ওয়েবসাইট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

ডিএসই

এদিন ডিএসইতে লেনদেনের শুরুতে সূচক বাড়ে। লেনদেনের শুরু হয় সকাল সাড়ে ১০টায়, শুরুতেই সূচক বেড়ে যায়। প্রথম ১০ মিনিটেই ডিএসইএক্স সূচক বাড়ে ১১ পয়েন্ট। এরপর থেকে সূচক বাড়তে থাকে। ১০টা ৪৫ মিনিটে সূচক বাড়ে ২২ পয়েন্ট। এরপর সূচক বাড়ার প্রবণতা কমে। তবে ১০টা ৫০ মিনিটে সূচক ১৯ পয়েন্ট বাড়ে। বেলা ১১টায় ১৭ পয়েন্ট এবং সোয়া ১১টায় সূচক ১৪ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়ায় ৫ হাজার ৩৯৪ পয়েন্টে।

অন্যদিকে, ডিএসই-৩০ সূচক ৬ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করেছে এক হাজার ৯০২ পয়েন্টে এবং ডিএসই শরিয়াহসূচক ৫ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করেছে এক হাজার ২৩৬ পয়েন্টে।

এদিন বেলা সোয়া ১১টা পর্যন্ত ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৮৮ কোটি ৫২ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের। একই সময়ে ডিএসইতে লেনদেন হওয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে দাম বেড়েছে ১৬৩টির, কমেছে ৮৮টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৭৫টি কোম্পানির শেয়ারের দাম।

এদিন বেলা সোয়া ১১টা পর্যন্ত ডিএসইতে দাম বৃদ্ধি পাওয়া শীর্ষ দশ কোম্পানির তালিকায় আছে- ইউনাইটেড পাওয়ার, ন্যাশনাল পলিমার, জেএমআই সিরিঞ্জ, মুন্নু সিরামিকস, ফরচুন সু, রানার অটোমোবাইল, বঙ্গজ, আলহাজ টেক্সটাইল, এসকে ট্রিমার এবং এস্কার নিটিং।

সিএসই

অন্যদিকে, একই সময়ে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সাধারণ সূচক (সিএসইএক্স) ১৭ পয়েন্ট বেড়ে ১০ হাজার ২ পয়েন্টে, সিএসই-৩০ সূচক ৩৫ পয়েন্ট বেড়ে ১৪ হাজার ৪৩৬ পয়েন্টে এবং সিএএসপিআই সূচক ২৮ পয়েন্ট বেড়ে ১৬ হাজার ৫০৬ পয়েন্টে অবস্থান করে।

এদিন বেলা সোয়া ১১টা পর্যন্ত সিএসইতে ২ কোটি ৩১ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিটের লেনদেন হয়েছে।

একই সময়ে দাম বাড়ার ভিত্তিতে সিএসইর শীর্ষ কোম্পানিগুলো হলো- ফার্স্ট প্রাইম মিউচ্যুয়াল ফান্ড, কাশেম ইন্ডাস্ট্রিজ, ইস্টার্ন ব্যাংক, ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড, এনসিসি ব্যাংক ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড, সুহৃদ ইন্ডাস্ট্রিজ, এআইবি ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড, রূপালী ব্যাংক, ইস্টার্ন ব্যাংক এনআরবি মিউচ্যুয়াল ফান্ড, নর্দান ইন্স্যুরেন্স এবং ন্যাশনাল পলিমার।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র