বাজেট নারী উদ্যোক্তা বান্ধব নয়

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন ওয়েন্ড-এর প্রেসিডেন্ট ড. নাদিয়া বিনতে আমিন, ছবি: বার্তা২৪

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন ওয়েন্ড-এর প্রেসিডেন্ট ড. নাদিয়া বিনতে আমিন, ছবি: বার্তা২৪

  • Font increase
  • Font Decrease

প্রস্তাবিত বাজেট নারী উদ্যোক্তা বান্ধব হয়নি বলে মন্তব্য করেছেন ওমেন এন্ট্রাপ্রেনিয়ার্স নেটওয়ার্ক ফর ডেভেলপমেন্ট অ্যাসোসিয়শনের (ওয়েন্ড) প্রেসিডেন্ট ড. নাদিয়া বিনতে আমিন।

তিনি বলেছেন, ‘২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেট নারী উদ্যোক্তা বান্ধব নয়, তবে ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তা (এসএমই) বান্ধব। কারণ ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প খাতে বেশ কিছু প্রণোদনা দেওয়া হয়েছে।’

মঙ্গলবার (১৮ জুন) রাজধানীর ইকোনমিক রিপোর্টার্স ফোরাম (ইআরএফ) কার্যালয়ে প্রস্তাবিত বাজেট পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

নাদিয়া বিনতে আমিন বলেন, ‘বাজেটের আগে নারী উদ্যোক্তাদের পক্ষ থেকে ৮ দফা দাবি জানিয়েছি। কিন্তু বাজেটে তার কোনো প্রতিফলন হয়নি। প্রতি বছর নারীদের জন্য আলাদা ১০০ কোটি টাকার ফান্ড বরাদ্দ রাখা হতো, এবার বাজেটে তাও রাখা হয়নি।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা বাজেটে নারী উদ্যোক্তা কোম্পানিগুলোর জন্য আমদানি-রফতানি শুল্ক কমানোর জন্য আবেদন করেছি তাও করেনি। এটা করা হলে নারীরা ব্যবসায় উৎসাহিত হতো। বাংলাদেশ ইকোনমিক জোন (বেজা) ও ইপিজেডে নারী উদ্যোক্তাদের জন্য সহজ শর্তে শিল্প স্থাপনে প্লট ও সুযোগ প্রদানসহ আবারও আট দফা দাবি জানাচ্ছি।’

সংবাদ সম্মেলনের লিখিত বক্তব্যে বলা হয়েছে, আয়করের ক্ষেত্রে নারীদের জন্য প্রচলিত আয়করমুক্ত সীমা তিন লাখ টাকা বহাল রাখায় মূলধন পুনযোগান ও গঠনে সমস্যায় পড়তে হবে। একই সঙ্গে নারী উদ্যোক্তাদের দ্বারা পরিচালিত করপোরেট ও কোম্পানিগুলোর করহার না কমানোয় হতাশাও জানিয়েছে এ প্রতিষ্ঠান।

তবে, নারীদের বিশেষভাবে ব্যবসা পরিচালনার ক্ষেত্রে অফিস, বাড়ি, কারখানা ভাড়ার ক্ষেত্রে কোনো ভ্যাট না বসানোকে ইতিবাচক বলছে ওয়েন্ড।

এ ছাড়া নারীদের ঋণ প্রদানের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ব্যাংকে গিয়ে হয়রানির শিকারের অভিযোগ করেন উদ্যোক্তরা।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন- ভাইস প্রেসিডেন্ট শামিমা শিরিন লাইজু, কার্যনির্বাহী সদস্য নাদিরা ইয়াসমীন, কো ট্রেজারার জারজিনা খালেদ প্রমুখ।

আপনার মতামত লিখুন :