ডিএসইর প্রধান সূচক কমেছে ১৫ পয়েন্ট, সিএসইর ২৭

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সপ্তাহের পঞ্চম ও শেষ কার্যদিবস বৃহস্পতিবার (২০ জুন) প্রধান সূচক কমে শেষ হয়েছে এ দিনের লেনদেন কার্যক্রম। এদিন ডিএসইতে প্রধান সূচক ডিএসইএক্স কমেছে ১৫ পয়েন্ট এবং সিএসইতে সিএসসিএক্স কমেছে ২৭ পয়েন্ট।

এদিন ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৪৪৫ কোটি ৬৭ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড। গত কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৫৫৪ কোটি ৪ লাখ টাকা। আর সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৪১ কোটি ৯৪ লাখ টাকা। গত কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৩৫ কোটি ৪৭ লাখ শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিট।

ডিএসই ও সিএসইর ওয়েবসাইট সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

ডিএসই

এদিন ডিএসইতে লেনদেনের শুরুতে সূচক বাড়ে। লেনদেনের শুরু হয় সকাল সাড়ে ১০টায়, শুরুতেই সূচক বেড়ে যায়। প্রথম ১০ মিনিটেই ডিএসইএক্স সূচক বাড়ে ১৪ পয়েন্ট। এরপর থেকে সূচক বাড়ার প্রবণতা বাড়তে থাকে। বেলা ১০টা ৫০ মিনিটে সূচক নেতিবাচক হতে শুরু করে। এ সময়ে সূচক কমে ২ পয়েন্ট। বেলা ১০টা ৫৫ মিনিটে সূচক ৩ পয়েন্ট কমে। আর বেলা ১১টায় সূচক ৮ পয়েন্ট কমে। তবে এরপর থেকে সূচক কমার প্রবণতা কমতে থাকে। দুপুর ১২টায় সূচক ২ পয়েন্ট বেড়ে যায়। এরপর দুপুর ১টায় সূচক ১, দুপুর ২টায় সূচক কমে ১১ পয়েন্ট এবং বেলা আড়াইটায় লেনদেন শেষে ডিএসইএক্স সূচক ১৫ পয়েন্ট কমে দাঁড়ায় ৫ হাজার ৩৯৫ পয়েন্টে।

অন্যদিকে, ডিএসই-৩০ সূচক ৩ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে এক হাজার ৮৯৪ পয়েন্টে এবং ডিএসই শরিয়াহ সূচক এক পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে এক হাজার ২৩৩ পয়েন্টে। এদিন ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৪৪৫ কোটি ৬৭ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড।

লেনদেন শেষে ডিএসইতে লেনদেন হওয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে দাম বেড়েছে ৮৫টির, কমেছে ২২২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৪টি কোম্পানির শেয়ারের দাম।

বৃহস্পতিবার দাম বৃদ্ধির ভিত্তিতে ডিএসইর শীর্ষ দশ কোম্পানির তালিকায় আছে- ইউনাইটেড পাওয়ার, রূপালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স, নূরানী ইন্ডাস্ট্রিজ, জেএমআই সিরিঞ্জ, ইস্টার্ন ইন্স্যুরেন্স, সিঙ্গার বিডি, মুন্নু সিরামিকস, বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবল, জেনেক্সিল এবং ভিএফএসটিডিএল।

সিএসই

অন্যদিকে, লেনদেন শেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সাধারণ সূচক (সিএসইএক্স) ২৭ পয়েন্ট কমে ১০ হাজার ১১ পয়েন্টে, সিএসই-৩০ সূচক ১৩ পয়েন্ট কমে ১৪ হাজার ৩৬৭ পয়েন্টে এবং সিএএসপিআই সূচক ৪২ পয়েন্ট কমে ১৬ হাজার ৫২২ পয়েন্টে অবস্থান করে।

সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৪১ কোটি ৯৪ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এদিন দাম বাড়ার ভিত্তিতের সিএসইর শীর্ষ কোম্পানিগুলো হলো- সানলাইফ ইন্স্যুরেন্স, আরামিট সিমেন্ট, ফার্স্ট ফাইন্যান্স, তসরিফা ইন্ডাস্ট্রিজ, এশিয়া প্যাসিফিক ইন্স্যুরেন্স, তুংহাই নিটিং, গ্রিণ ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স, ওরিয়ন ইনফিউশন, ইস্টার্ন কেবল এবং পিপলস ইন্স্যুরেন্স।

আপনার মতামত লিখুন :