সোনা বৈধ করার দর নিয়ে দ্বিধায় ব্যবসায়ীরা

মাহফুজুল ইসলাম, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
স্বর্ণ মেলায় এসেছেন ব্যবসায়ীরা, ছবি: বার্তা২৪.কম

স্বর্ণ মেলায় এসেছেন ব্যবসায়ীরা, ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

ভরি প্রতি স্বর্ণের দাম কত টাকা ধরে অবৈধ স্বর্ণ বৈধ করবেন, তা নিয়ে দ্বিধায় পড়েছেন স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা।

জাতীয় রাজস্ব র্বোডের (এনবিআর) পক্ষ থেকে নির্দিষ্ট কোনো নির্দেশনা না থাকায় কর অঞ্চলের পাশাপাশি বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতির (বাজুস) নেতাদের দ্বারস্থ হচ্ছেন তারা।

তবে সবচেয়ে মজার বিষয় হচ্ছে কর অঞ্চলের দায়িত্ব থাকা এনবিআর কর্মকর্তারাও জানেন না, কত টাকা দাম ধরে স্বর্ণ বৈধ করা যাবে।

রোববার (২৩ জুন) তিন দিনব্যাপী ‘স্বর্ণ মেলা-২০১৯’ এ গিয়ে এ দৃশ্য দেখা গেছে। দেশে এবারই প্রথম এমন মেলা হচ্ছে। যৌথভাবে এ মেলার আয়োজন করেছে এনবিআর ও বাজুস।

মেলায় আসা বসুন্ধরা সিটির নাভানা জুয়েলার্সের মালিক মানিক রতন মালাকার বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘সরকার আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত ভরি প্রতি এক হাজার টাকা করে কর দিয়ে মজুদ থাকা স্বর্ণ বৈধ করার সুযোগ দিয়েছে। এ সুযোগ কাজে লাগাতেই মেলায় এসেছি। কিন্তু ভরি প্রতি স্বর্ণের দাম কত হাজার টাকা দেখাব তার সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা নেই। আমাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল, প্রতি ভরি স্বর্ণের দাম ১৭ হাজার টাকা দেখালেই হবে। এখন শুনছি, বর্তমান বাজার মূল্যে দেখাতে হবে। আসলে প্রতি ভরি স্বর্ণের দাম কত হাজার টাকা ধরা হলে পরে আর প্রশ্ন করা হবে না, তা বলা হচ্ছে না। কারো কাছে গিয়ে জানতেও পারছি না।’

idea
স্বর্ণ মেলায় এসে কর পরিশোধের বিষয়টি বুঝে নিচ্ছেন ব্যবসায়ীরা, ছবি: বার্তা২৪.কম

 

একই কথা বলেন নিউ মার্কেটের স্বর্ণ ব্যবসায়ী আবু নাসের মো. আবদুল্লাহ। রোজা জুয়েলার্সের মালিক তিনি।

বার্তা২৪.কমকে তিনি বলেন, ‘অপ্রদর্শিত স্বর্ণ বৈধ করার মেলা দেশে এবারই প্রথম হচ্ছে। মেলার উদ্বোধন উপলক্ষে এসেছি। পাশাপাশি আমার প্রতিষ্ঠানের স্বর্ণের কর কোন প্রক্রিয়ায় পরিশোধ করব তা জানছি।’

‘স্বর্ণের দাম নিয়ে সমস্যা রয়েছে। অর্থাৎ বৈধ করার সময় কোন মূল্য দেখাব? কেনা মূল্য, না কী বর্তমান বাজার মূল্য? কেনা দাম দেখালে স্বর্ণ বাড়বে। আর বর্তমান মূল্য দেখালে টাকার পরিমাণ বাড়বে। তাতে করও বাড়বে,’ যোগ করেন আবদুল্লাহ।

g
স্বর্ণ মেলায় এসেছেন দর্শণার্থীরা, ছবি: বার্তা২৪.কম

 

তিনি বলেন, ‘নতুন নীতিমালা হয়েছে। অনেক সমস্যা রয়েছে। তবে এখন যেহেতু বৈধ করার সুযোগ এসেছে, তাই কর দিয়ে বৈধ করব। আমি আজ জানলাম, আগামীকাল এসে কর দিয়ে স্বর্ণ বৈধ ঘোষণা করব।’

সকালে রাজধানীর ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলে এ স্বর্ণ মেলা উদ্বোধন করেন এনবিআর চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া।

রোববার সকাল ১০টায় শুরু হওয়া এ মেলা চলবে মঙ্গলবার পর্যন্ত। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত মেলা চলবে।

ব্যবসায়ীদের সুবিধার্থে কর অঞ্চল ভিত্তিতে বিভিন্ন স্টল ভাগ করা দেওয়া হয়েছে। দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা তাদের অপ্রদর্শিত স্বর্ণ বৈধ করতে মেলায় এসেছেন। কীভাবে স্বর্ণ বৈধ করবেন তা বুঝে নিচ্ছেন কর কর্মকর্তাদের কাছ থেকে।

অবৈধ স্বর্ণ কর দিয়ে বৈধ করতে দেশে প্রথমবারের মতো শুরু হয়েছে স্বর্ণকর মেলা। ভরিতে মাত্র এক হাজার টাকা কর পরিশোধ করে মেলায় অপ্রদর্শিত স্বর্ণ বৈধ করতে পারছেন ব্যবসায়ীরা।

মেলায় গাজীপুর কর অঞ্চলের স্টলের দায়িত্বে থাকা প্রধান সহকারী শফিকুল ইসলাম বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘এর আগে কখনো স্বর্ণ মেলা হয়নি। তাই ব্যবসায়ীরা বিভিন্ন বিষয় বুঝতে আসছেন। কীভাবে কর পরিশোধ করে স্বর্ণ বৈধ করতে হবে সে ব্যাপারে তাদের পরামর্শ দিচ্ছি।’

i
স্বর্ণ মেলায় এসে কর পরিশোধের বিষয়টি বুঝে নিচ্ছেন ব্যবসায়ীরা, ছবি: বার্তা২৪.কম

 

মেলায় প্রতি ভরি ডায়মন্ডের জন্য ছয় হাজার টাকা, স্বর্ণের জন্য এক হাজার টাকা ও রূপার জন্য ৫০ টাকা করে কর দিয়ে অবৈধ ডায়মন্ড, সোনা ও রূপা বৈধ করার সুযোগ রয়েছে। এছাড়া মেলায় সোনালী ও বেসিক ব্যাংকের বুথ রয়েছে। সেখানে কর পরিশোধ করলে সারচার্জ ফ্রি সেবা দেওয়া হচ্ছে।

মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, ‘তৈরি পোশাক ও চামড়া শিল্পের মতো যারা রফতানির উদ্দেশে স্বর্ণের কাঁচামাল আমদানি করবেন, তাদের বন্ড সুবিধা দেওয়া হবে। যারা বন্ড সুবিধা পাবেন, তাদের আমদানি করা সব স্বর্ণ রফতানি করতে হবে। বন্ড সুবিধায় আনা স্বর্ণ খোলাবাজারে বিক্রি করা যাবে না।’

g
স্বর্ণ মেলা উদ্বোধন করেন এনবিআর চেয়ারম্যান, ছবি: বার্তা২৪.কম

 

সাধারণ মানুষ বিদেশ থেকে সর্বোচ্চ ১০০ গ্রাম স্বর্ণ আমদানি করতে পারবেন। এর চেয়ে বেশি আনলে তা বাজেয়াপ্ত করা হবে। তবে ব্যবসায়ীরা বিদেশ থেকে স্বর্ণালঙ্কার আমদানি করতে পারবেন না বলে জানান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া।

স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে এনবিআর সদস্য (আয়কর) কানন কুমার রায় বলেন, ‘এসআরও ৩০ জুন পর্যন্ত করা যাবে। পরে এ ধরনের এসআরও হবে কি না জানি না। তাই এখনই অপ্রদর্শিত স্বর্ণ ঘোষণা দিয়ে বৈধ করবেন। আর এ সুযোগ নিয়ে যারা স্বর্ণ বৈধ করবেন না, তাদের জন্য ভালো কোনো বার্তা দিতে পারব না।’

আপনার মতামত লিখুন :