'জাতির জনকের দেখানো পথেই চলছে বাণিজ্য'

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, ঢাকা
শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠান, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠান, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

জাতির জনকের (বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের) দেখানো পথেই দেশের বাণিজ্য চলছে বলে মন্তব্য করেছেন তৈরি পোশাক শিল্প মালিকদের সংগঠনের (বিজিএমইএ) সভাপতি ড. রুবানা হক।

মঙ্গলবার (২৭ আগস্ট) বিজিএমইএ'র কার্যালয়ে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।

রুবানা হক বলেন, 'বঙ্গবন্ধুকে ১৯৫৫ সালে শিল্প ও বাণিজ্যমন্ত্রী ঘোষণা করা হয়। ১৯৫৭ সালে মন্ত্রী থাকা অবস্থায় তিনি ইস্ট পাকিস্তান'স স্মল অ্যান্ড কটেজ ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশন নামক বিল উত্থাপন করেছিলেন। তিনি অন্তর্ভুক্তিমূলক অর্থনীতির কথাও বলেছিলেন। বিশ্বায়নের যুগে, চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের যুগেও আমরা জাতির জনকের সেই আদর্শকেই হৃদয়ে ধারণ করার চেষ্টা করছি। সরকার প্রথমবারের মতো ২০২০ সাল থেকে বঙ্গবন্ধু শিল্প পুরষ্কার দেওয়ার যে ঘোষণা দিয়েছে, সেটিকে সাধুবাদ জানাচ্ছি।'

বিজিএমইএ সভাপতি ড. রুবানা হকের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় অংশ গ্রহণ করেন- বিজিএমইএ অফিস বায়ারার্স, পরিচালক ও সদস্যরা।

বিজিএমইএ এর সহ-সভাপতি এস এম মান্নান (কচি) বলেন, 'জাতির জনক বঙ্গবন্ধু পায়ে হেঁটে, নৌকায় চড়ে বাংলাদেশের প্রত্যন্ত এলাকাগুলোতে গিয়েছেন। জনগণের দুঃখকষ্টের কথা শুনে তাদেরকে ঐক্যবদ্ধ করে স্বাধীনতার নেতৃত্ব দিয়েছেন। ক্ষমতা ছেড়েছেন কিন্তু ক্ষমতার জন্য রাজনীতি করেননি।'

পরিচালক আসিফ ইব্রাহিম বলেন, 'বঙ্গবন্ধু দেশ স্বাধীন করেছিলেন বলেই বাংলাদেশ আজ বিশ্বের দরবারের দ্বিতীয় বৃহত্তম পোশাক রফতানিকারক দেশ হিসেবে স্বীকৃতি অর্জন করতে সমর্থ হয়েছে। যতদিন বাংলাদেশ থাকবে, ততদিন জাতি বঙ্গবন্ধুকে হৃদয়ে ধারণ করবে।'

আপনার মতামত লিখুন :