৫০ টাকার নিচে সবজি নেই বাজারে!

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, ঢাকা
শান্তিনগর কাঁচাবাজার

শান্তিনগর কাঁচাবাজার

  • Font increase
  • Font Decrease

৫০ টাকার নিচে যেন কোন সবজি নেই বাজারে। ক্রেতারা দামাদামি করতে চাইলে বিক্রেতাদের উত্তর, `একদাম নিলে নেন, না নিলে সামনে বাড়েন’।

বৃহস্পতিবার(৫ সেপ্টেম্বর) সকালে রাজধানীর মতিঝিলের এজিবি কলোনি ও শান্তিনগর কাঁচাবাজার এগিয়ে এই দৃশ্য দেখা গেছে।

বাজারে দেখা গেছে, সারি সারি সাজানো দোকানগুলোতে, ঢেঁড়স, বরবটি, বেগুন, পটল, চিচিঙ্গা, গাজর, মিষ্টি কুমড়া, করল্লা, কাকরোল, কচু, টমেটো, কচুর লতি, শসা কেজি প্রতি সর্ববনিম্ন ৫০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়াও লাউ, জালি প্রতি পিস ৫০ থেকে ৭০ টাকা পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে।

এজিবি কলোনি কাঁচাবাজারে জীবন বীমা করপোরেশনের কর্মকর্তা আব্দুল ওহাব দোকানদারের কাছে বরবটি ও পটলের দাম জানতে চান, দোকানদার ফারুক মিয়া জানান, পটল ৫০, বরবটি ৭০ টাকা, একদম।

বরবটি ৪০ টাকায় দিবেন বলতেই, দোকানদার লাফিয়ে উঠে বলেন, ‘নিলে নেন না নিলে চলে যান’।

স্ত্রী অসুস্থ থাকায়, শান্তিনগরে বাজার করতে এসেছেন রোহিত মিয়া। রোহিত মিয়া দোকানদারের কাছে জানতে চান, কাকা, চিচিঙ্গা, করলার কেজি কত (দাম কত)?, দোকানদারের জবাব, ‘চিচিঙ্গা ৫৫, করলা ৬০ টাকা’।

রোহিত '৩৫টাকা কেজি দিবেন' বলতে সবজি বিক্রেতা চটে গেলেন, বললেন 'বাজার করতে আসছেন, নাকি তামাশা করতে আসছেন।'

আবার গাজরের দাম জিজ্ঞেস করতেই উত্তরে বললেন '৭০ টাকা। নিলে নিলে নেন না নিলে ভাগেন।'

রোহিতের কাছে জানতে চাইলে তিনি বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, সাধারণত আমার স্ত্রী বাজার করেন। সে অসুস্থ থাকায় বাজার করতে এসেছি কিন্তু সবজির দাম শুনে আমি হতবাক। ৫০টাকার নিচে তো কোন সবজি নেই।

দুই বাজারে কেজি প্রতি বেগুন বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকায়, কাঁচা পেঁপে ৪০, বরবটি ৬৫-৭০, পটল ৫০, ঢেঁড়শ ৫০, চিচিঙ্গা ৫৫-৬০, গাজর ৭০, মিষ্টি কুমড়া ৮০, কাকরোল ৫৫-৬০, মুলা ৬০, কচু ৫০, টমেটো ১০০, কাঁচা মরিচ ৭০-৯০, কচুর লতি ৬০, শসা ৫০টাকা, পেয়াজ ৪৫-৫২টাকা, রসুন ১৫০ টাকা, আদা ১৬০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

এছাড়াও প্রতি পিস লাউ ৫০-৭০ টাকা, জালি কুমড়া, ৩৫-৫০টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

এদিকে এক কেজির বেশি ইলিশ মাছ বিক্রি হচ্ছে ৯০০ থেকে ১৩০০ টাকায়, ৮০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ মাছ বিক্রি হচ্ছে ৭৫০ টাকায়, ৭০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ মাছ বিক্রি হচ্ছে ৬০০ টাকায়। এছাড়াও সাইজ ভেদে ৪০০ থেকে ৫০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

রুই মাছ কেজি প্রতি ২২০টাকা, তেলাপিয়া ১২০-১৪০টাকা, শিং মাছ আকার ভেদে ৫০০-৭৫০টাকা কেজি এবং চিংড়ি মাছ ৬০০-৯০০টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়।

চাল ডালের মধ্যে মিনিকেট চাল কেজি বিক্রি হচ্ছে ৪৫-৫০টাকা, নাজিরশাইল ৫৫টাকা, বাসমতি ৫৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। মোটা চাল কেজি প্রতি ৩৬-৩৮টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

মাংসের মধ্যে গরু মাংস ৫৫০, খাসি ৭৫০ এবং বয়লার মুরগি কেজি ১৩০টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

আপনার মতামত লিখুন :