Barta24

বুধবার, ২১ আগস্ট ২০১৯, ৬ ভাদ্র ১৪২৬

English

ঈদকে ঘিরে অস্থির মসলার বাজার

ঈদকে ঘিরে অস্থির মসলার বাজার
ঊর্মি মাহবুব
সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকা: পবিত্র ঈদ-উল-আজহাকে কেন্দ্র করে প্রতিবছর অস্থির হয়ে ওঠে গরম মসলার বাজার। মূলত হঠাৎ চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় মুনাফালোভী ব্যবসায়ীরা মসলার দাম বাড়িয়ে দেয়। চলতি বছরও তার ব্যতয় ঘটেনি। আসন্ন ঈদকে কেন্দ্র করে ইতোমধ্যে সব ধরনের মসলার দাম বেড়েছে। এই দাম বৃদ্ধিকে ক্রেতারা আগুনের সঙ্গেই তুলনা করছেন।

সোমবার (১৩ আগস্ট) আসন্ন ঈদ উপলক্ষে কারওয়ান বাজারে গরম মসলা কিনতে এসেছিলেন রফিক আহমেদ। তিনি বার্তা২৪.কম’র এই প্রতিবেদককে বলেন, ‘আগামী ২২ তারিখে কোরবানির ঈদ। আমি মগবাজারে থাকি। মনে করলাম কারওয়ানবাজার থেকে গরম মসলা কিনলে হয়তো দামে সাশ্রয়ী হবে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Aug/13/1534161852907.jpg

কিন্তু এখানে এসে দাম শুনে আমি অবাক। মনে হচ্ছে গরম মসলার দামে আগুন লেগেছে! সব ধরনের গরম মসলাম দাম বেড়েছে কেজিতে ৪০-১০০ টাকা। ক্রেতাদের জিম্মি করে অসাধু ব্যবসায়ীরা হাতিয়ে নিচ্ছে মোটা অংকের টাকা।’

বাজার ঘুরে দেখা যায়, জিরা, এলাচি, দারুচিনি, লবঙ্গ, গোলমরিচ, কাঠবাদাম, পোস্তদানা, ধনিয়া, আদা, রসুন, পেয়াজসহ বেড়েছে সব মসলার দাম। খুচরা বাজারে প্রতি কেজি দেশি পেঁয়াজ ৫৫ থেকে ৬০ টাকা, দেশি রসুনের কেজি মানভেদে ৫০ থেকে ৭০ টাকা, আমদানি রসুন ৭০ থেকে ৯০ টাকা কেজি, শুকনা মরিচ ও হলুদ প্রতি কেজি ১৮০ থেকে ২১০ টাকা, আমদানি আদা প্রতি কেজি ১০০ থেকে ১৪০ টাকা, জিরা কেজি প্রতি বিক্রি হচ্ছে ৩৮০ থেকে ৪৬০ টাকা, দানরুচিনি প্রতি কেজি ৩০০ থেকে ৩৫০ টাকা, লবঙ্গ প্রতি কেজি ১ হাজার ২০০ থেকে ১ হাজার ৫০০ টাকা, এলাচ মানভেদে ১ হাজার ৬০০ থেকে ২ হাজার ২০০ টাকা প্রতি কেজি, ধনে প্রতি কেজি ১৩০ থেকে ১৬০ টাকা, তেজপাতার প্রতি কেজি ১৪০ থেকে ১৬০ টাকা। এছাড়া ৫৮০ টাকা কেজি দরের জয়ফল বিক্রি হচ্ছে ৭৫০-৮০০ টাকায়। পোস্তবাদাম বিক্রি হচ্ছে ২ হাজার টাকা কেজি ও গোল মরিচের কেজি ৪৮০ টাকা।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Aug/13/1534161871301.jpg

গরম মসলার দাম বাড়লেও বিষয়টি মানতে নারাজ সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা। কারওয়ানবাজারের মায়ের দোয়া এন্টারপ্রাইজের মালিক মো. বাবুল বার্তা২৪.কম’কে বলেন, ‘বাজারে তো ক্রেতাই নেই, আমরা দাম বাঁড়াবো কেমন করে? আগেও যে দাম ছিল একই সেই দামে মসলা বিক্রি করছি। ক্রেতারা সব সময় অভিযোগ করেন ব্যবসায়ীরা দাম বাড়িয়েছেন, যা সত্য নয়।’

ইয়াসিন ট্রেডার্সের মালিক মোহাম্মদ সুমন বলেন, ‘ঈদ এলেই মসলার দাম কিছুটা বাড়ে এটা সত্য। কিন্তু প্রতিবার ঈদে একই দাম থাকে। গত ঈদেও মসলার দাম যা ছিল এখনও সেটাই আছে।’

ছবি: সুমন শেখ

আপনার মতামত লিখুন :

এমডি খুঁজছে ডিএসই ও সিএসই

এমডি খুঁজছে ডিএসই ও সিএসই
পুঁজিবাজার ছবি: সংগৃহীত

ব্যবস্থাপনা পরিচালক অর্থাৎ (এমডি) খুঁজছে দেশের দুই পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই) কর্তৃপক্ষ। এর মধ্যে ডিএসই কর্তৃপক্ষ এমডি নিয়োগে পত্রিকার পাশাপাশি ডিএসইর ওয়েবসাইটে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে।

অন্যদিকে সিএসই দুই দফা বিজ্ঞাপন দেওয়ার পর এখনো তিন মাস সময় চেয়ে আবারও বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের কাছে আবেদন করেছে এমডির খুঁজে।

দুই স্টক এক্সচেঞ্জ সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

ডিএসই সূত্র মতে, চলতি বছরের ১১ জুলাই ডিএসই’র এমডি পদ শূন্য হয়। গত ৭ আগস্ট ডিএসই কর্তৃপক্ষ নতুন এমডি নিয়োগের জন্য ডেইলি অবজারভার, প্রথম আলো পত্রিকায় বিজ্ঞাপন প্রকাশ করে। তাতে আগামী ১ সেপ্টেম্বর রোববারের মধ্যে আবেদন করতে বলা হয়েছে।

অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ দুই দফা সময় বৃদ্ধির পর আবারও আবেদনের সময় বাড়ানোর জন্য কমিশনের কাছে আবেদন করেছে। বিষয়টি বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে নিশ্চিত করেছেন সিএসই’র ভারপ্রাপ্ত এমডি গোলাম ফারুক।

আবেদনের জন্য ক্লিক করুন: https://www.dsebd.org/pdf/dse-md-2019.pdf

সূচক কমেছে উভয় পুঁজিবাজারে

সূচক কমেছে উভয় পুঁজিবাজারে
শেয়ার বাজারের প্রতীকী ছবি

দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সপ্তাহের চতুর্থ কার্যদিবস বুধবার (২১ আগস্ট) সূচক কমে শেষ হয়েছে এ দিনের লেনদেন কার্যক্রম। এদিন ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স কমেছে ৪ পয়েন্ট এবং সিএসইর প্রধান সূচক সিএসসিএক্স কমেছে ৩ পয়েন্ট।

এদিন ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৫৪২ কোটি ৫৫ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড। গত কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৪৭২ কোটি ৯৪ লাখ টাকা। আর সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ২১ কোটি ২১ লাখ টাকা। গত কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৪৪ কোটি ২০ লাখ শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিট।

ডিএসই ও সিএসইর ওয়েবসাইট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

ডিএসই

এদিন ডিএসইতে লেনদেনের শুরুতে সূচক বাড়ে। লেনদেনের শুরু হয় সাড়ে ১০টায়, শুরুতেই সূচক কমে যায়। প্রথম ৫ মিনিটেই ডিএসইএক্স সূচক বাড়ে ৬ পয়েন্ট। বেলা ১০টা ৪০ মিনিটে সূচক বাড়ে ৯ পয়েন্ট। বেলা ১০টা ৪৫ মিনিটে সূচক ১৪ পয়েন্ট বাড়ে। বেলা ১০টা ৫০ মিনিটে সূচক ১৭ পয়েন্ট বাড়ে। বেলা ১০টা ৫৫ মিনিটে সূচক ১৮ পয়েন্ট বাড়ে। এরপর থেকে সূচক বাড়ার প্রবণতা কমতে থাকে। বেলা ১১টায় সূচক ১২ পয়েন্ট বাড়ে। বেলা সাড়ে ১১টার পর সূচক নেতিবাচক হতে শুরু করে। বেলা ১২টায় সূচক কমে ৫ পয়েন্ট। বেলা সোয়া ১২টায় সূচক গত কার্যদিবসের চেয়ে নেতিবাচক হয়ে যায়। এ সময়ে সূচক কমে ৫ পয়েন্ট। এরপর সূচক ওঠানামা করতে থাকে। বেলা ১টায় সূচক ২ পয়েন্ট বাড়ে। বেলা ২টায় সূচক ১ পয়েন্ট কমে। কিন্তু বেলা আড়াইটায় লেনদেন শেষে ডিএসইএক্স সূচক ৪ পয়েন্ট কমে ৫ হাজার ২২৩ পয়েন্টে অবস্থান করে।

অন্যদিকে, ডিএসই-৩০ সূচক ৩ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে এক হাজার ৮৪১ পয়েন্টে এবং ডিএসই শরিয়াহ সূচক প্রায় এক পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে এক হাজার ২০৪ পয়েন্টে। এদিন ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৫৪২ কোটি ৫৫ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড।

লেনদেন শেষে ডিএসইতে লেনদেন হওয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে দাম বেড়েছে ১২৩টির, কমেছে ১৯৪টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৭টি কোম্পানির শেয়ারের দাম।

বুধবার দাম বৃদ্ধির ভিত্তিতে ডিএসই’র শীর্ষ দশ কোম্পানির তালিকায় আছে- ইউনাইটেড পাওয়ার, ওরিয়ন ইনফিউশন, জেএমআই সিরিঞ্জ, বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশন, মুন্নু সিরামিকস, বিকন ফার্মা, কেপিসিএল, সিলকো ফার্মা এবং আলহাজ টেক্সটাইল।

সিএসই

অন্যদিকে, লেনদেন শেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) প্রধান সূচক সিএসইএক্স ৩ পয়েন্ট কমে ৯ হাজার ৬৯৯ পয়েন্টে অবস্থান করছে। সিএসই-৩০ সূচক ১৫ পয়েন্ট কমে ১৪ হাজার ৩২ পয়েন্টে এবং সিএএসপিআই সূচক এক পয়েন্ট বেড়ে ১৫ হাজার ৯৭৭ পয়েন্টে অবস্থান করে।

লেনদেন শেষে সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ২১ কোটি ২১ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিট।

এদিন দাম বাড়ার ভিত্তিতের সিএসই’র শীর্ষ কোম্পানিগুলো হলো- আরএকে সিরামিকস, সায়হাম টেক্সটাইল, ফারইস্ট ফাইন্যান্স, বিচ হ্যাচারি, জেনেক্সিল, মোজাফফর হোসেন স্পিনিং, ফ্যামিলি টেক্সটাইল, কেয়া কসমেটিকস, তুংহাই নিটিং এবং স্টান্ডার্ড সিরামিকস।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র