Alexa

সাবেক মন্ত্রী চৌধুরী কামালের মেয়ে কারাগারে

সাবেক মন্ত্রী চৌধুরী কামালের মেয়ে কারাগারে

বিএনপি নেত্রী চৌধুরী নায়াব ইউসুফকে আদালত থেকে কারাগারে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে / ছবি: বার্তা২৪

হত্যা মামলার দায়ে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক মন্ত্রী চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফের বড় মেয়ে বিএনপি নেত্রী চৌধুরী নায়াব ইউসুফকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

রোববার (৩ মার্চ) বিকেলে ফরিদপুরের জেলা ও দায়রা জজ মো. হেলাল উদ্দিনের আদালতে জামিন নিতে আসলে তা না মঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়।

জানা গেছে, ২০১৮ সালের ১১ ডিসেম্বর একাদশ সংসদ নির্বাচনে প্রচার প্রচারণার দ্বিতীয়দিন নর্থচ্যানেল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা ইউসুফ বেপারী ওরফে জামালকে (৪০) বিএনপির কর্মীরা পিটিয়ে হত্যা করে। এ ঘটনায় নিহতের ভাই সোহরাব বেপারী বাদী হয়ে ৩৮ জনকে আসামি করে কোতোয়ালী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

এ মামলার ৩৭ নম্বর আসামি চৌধুরী নায়াব ইউসুফ গত ৪ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্ট থেকে ৪ সপ্তাহের অন্তর্বর্তীকালীন জামিনে ছিলেন। পরে রোববার দুপুরে স্থায়ী জামিনের জন্য জেলা জজ আদালতে তিনি হাজির হন।

জেলা জজ আদালতের সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডভোকেট শহিদুল্লাহ জাহাঙ্গির, অ্যাডভোকেট শাহজাহান মিয়া, অ্যাডভোকেট আলী আশরাফ নান্নুসহ ২০ জন আইনজীবী চৌধুরী নায়াব ইউসুফের পক্ষে জামিন শুনানিতে অংশ নেন। সরকার পক্ষে ছিলেন এপিপি অ্যাডভোকেট জাহিদ বেপারী, অ্যাডভোকেট অনিমেষ রায়, লক্ষন সাহা প্রমুখ।

শুনানি শেষে আদালত জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। পরে বিকেল পৌনে ৫টার দিকে চৌধুরী নায়াব ইউসুফকে জেলা কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়।

শুনানির সময় আদালত প্রাঙ্গণে চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ ছাড়াও ফরিদপুর জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক রাশিদুল ইসলাম, শহর বিএনপির সভাপতি রেজাউল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা মিরাজ, কোতয়ালী থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হাসান চৌধুরী রঞ্জন, ফরিদপুর মহানগর যুবদলের সভাপতি বেনজির আহমেদ তাবরীজ, জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক তানজিমুল হাসান কায়েস, মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি শাহরিয়ার শিথীলসহ বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মতামত লিখুন :

আইন ও আদালত এর আরও খবর