Barta24

বুধবার, ২৬ জুন ২০১৯, ১১ আষাঢ় ১৪২৬

English Version

নুসরাত হত্যা

সোনাগাজীর সাবেক ওসির বিরুদ্ধে মামলা

সোনাগাজীর সাবেক ওসির বিরুদ্ধে মামলা
সোনাগাজী থানার প্রত্যাহার করা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোয়াজ্জেম হোসেন, ছবি: সংগৃহীত
স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

মাদরাসা শিক্ষার্থী নুসরাত জাহান রাফি অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দিতে গেলে তাকে আপত্তিকর প্রশ্ন ও ভিডিও ধারণ করে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে সোনাগাজী থানার প্রত্যাহার করা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোয়াজ্জেম হোসেনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালে এই মামলা করা হয়।

ফেসবুকে বিভিন্ন সমস্যা তুলে ধরে তার প্রতিকার চাওয়া এবং পরবর্তীতে তার ফলোআপ করে খ্যাতি পাওয়া সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুর হক সুমন বাদী হয়ে সোমবার (১৫ এপ্রিল) এ মামলা দায়ের করেন।

সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আস শামস জগলুল হোসেন বাদীর জবানবন্দী রেকর্ড করে ঘটনাটি তদন্ত করতে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) নির্দেশ দেন।

আগামী ৩০ এপ্রিলে মধ্যে ডিআইজি, পিবিআইকে ঘটনাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

জবানবন্দি দেওয়ার সময় বাদী সুমন বলেন, 'যৌন হয়রানির বিষয়ে নুসরাত থানায় অভিযোগ করতে গেলে আসামিসহ তাকে থানায় নেওয়া হয়। সেই সময় ওসি মোয়াজ্জেম তাকে আপত্তিকর জেরা করেন ও জেরার ভিডিও তার মুঠো ফোনে ধারণ করেন।'

পরবর্তীতে নুসরাতের মৃত্যুর পরদিন ১১ এপ্রিল বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি তা ছেড়ে দেন। থানার ভেতরে এমন ভিডিও ধারণ করা ও সোশ্যাল মিডিয়ার ছেড়ে দেওয়া ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের অপরাধ।

গত ১০ এপ্রিল অগ্নিদগ্ধ নুসরাত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। এর আগে ৬ এপ্রিল সোনাগাজী ইসলামীয়া মাদরাসার ছাদে নুসরাতের গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়।

আপনার মতামত লিখুন :

মিল্কভিটা, আড়ং, প্রাণসহ ১৮ পাস্তুরিত দুধে ক্ষতিকর কিছু পায়নি বিএসটিআই

মিল্কভিটা, আড়ং, প্রাণসহ ১৮ পাস্তুরিত দুধে ক্ষতিকর কিছু পায়নি বিএসটিআই
বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশন (বিএসটিআই)।

১৮টি পাস্তুরিত-ইউএইচটি দুধের নমুনা পরীক্ষায় ক্ষতিকর উপাদান খুঁজে পায়নি বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশন (বিএসটিআই)। হাইকোর্টে দাখিল করা একটি প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

মঙ্গলবার (২৫ জুন) বিচারপতি সৈয়দ রেফাত আহমেদ ও বিচারপতি ইকবাল কবির সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টেও দ্বৈত বেঞ্চে এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানায় বিএসটিআই।

বিএসটিআইর প্রতিবেদনে ১৪টি ব্যান্ডের ১৮টি পাস্তুরিত দুধে ক্ষতিকর উপাদান পাওয়া যয়িনি। প্রতিবেদন অনুসারে ব্যান্ডগুলো হলো-বেড়ার ইছামতি ডেইরি অ্যান্ড ফুড প্রোডাক্টসের ‘পিউরা’, নারায়নগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের ড্যানিশ ডেইরি ফার্মের ‘আয়রান’, গাজীপুরের জয়দেবপুরের ব্র্যাক ডেইরি অ্যান্ড ফুড প্রোডাক্টসের ‘আড়ং ডেইরি’, ঢাকার ধামরাইর আকিজ ফুড অ্যান্ড বেভারেজের ‘ফার্ম ফ্রেশ দুধ’, গাজীপুরের শ্রীপুরের আমেরিকান ডেইরির ‘মো’, ঢাকার মিরপুর-৭ বাংলাদেশ দুগ্ধ উৎপাদনকারী সমবায় ইউনিয়নের ‘মিল্কভিটা’, গাজীপুরের কালিয়াকৈরের আফতাব মিল্ক অ্যান্ড মিল্ক প্রোডাক্টসের ‘আফতাব’, কুষ্টিয়ার কামারখালীর শিলাইদহ ডেইরির ‘আল্ট্রা’, পাবনার বেড়ার তানিয়া ডেইরি অ্যান্ড ফুড  ‘প্রাণ মিল্ক’, নারায়নগঞ্জের আড়াইহাজারের বারো আউলিয়া ডেইরি মিল্ক অ্যান্ড ফুড প্রোডাক্টেসের ‘ডেইরি ফ্রেশ’, গাজীপুরের কালিয়াকৈরের উত্তকবঙ্গ ডেইরীর ‘মিল্ক ফ্রেশ’, ‘প্রাণ মিল্ক’, ঢাকার ধামরাইর আকিজ ফুড অ্যান্ড বেভারেজের ‘ফার্ম ফ্রেশ মিল্ক’, ঢাকার গুলশানের রাফি অ্যান্ড ব্রাদার্সের ‘কাউহেড পিউর মিল্ক’,  ব্র্যাক ডেইরি অ্যান্ড ফুড প্রোডাক্টসের ‘আড়ং ডেইরি’।

আদালতে রিট আবেদনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী তানভীর আহমেদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল কাজী জিনাত হক।

প্রতিবেদন দাখিলের পর আগামী বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) পর্যন্ত শুনানি মুলতবি করেছেন আদালত।

২০১৮ সালের ২০ মে পাস্তুরিত দুধে ব্যাকটেরিয়ার রয়েছে এমন দাবি করে জনস্বার্থে রিট দায়ের করেন আইনজীবী তানভির আহমেদ। একইবছরের ১৭ মে ‘পাস্তুরিত দুধের ৭৫ শতাংশই নিরাপদ নয়’ শিরোনামে গণমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশ হলে তিনি তা আদালতের নজরে আনেন।

আদালত ওই আইনজীবীকে রিট আকারে আবেদন নিয়ে আসতে বলেন। এরপর আইনজীবী তানভীর আহেমদ রিট করেন। রিটের পর বাজারে পাওয়া যায় এমন সব ব্র্যান্ডের পাস্তুরিত দুধের মান পরীক্ষা করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য খাদ্য মন্ত্রণালয়ের গঠিত বিশেষজ্ঞ কমিটিকে নির্দেশ দেন হাইকোর্ট।

ভাগ্নের জামিন নামঞ্জুরের খবরে আদালতেই খালার মৃত্যু

ভাগ্নের জামিন নামঞ্জুরের খবরে আদালতেই খালার মৃত্যু
আদালতের বারান্দায় ওই নারীর মরদেহ, ছবি: বার্তা২৪.কম

ভাগ্নের জামিন নামঞ্জুর হওয়ার আদেশ শুনে অসুস্থ হয়ে আদালতের বারান্দায় মারা গেলেন আসামির খালা জোহরা (৫০)।

মঙ্গলবার (২৫ জুন) দুপুরে ঢাকার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ এবং দেউলিয়া বিষয়ক আদালতের বারান্দায় এ ঘটনা ঘটে।

২০১৮ সালের ৫ অক্টোবর ৭২৫ পুরিয়া (১৫২ গ্রাম) হেরোইন রাখার অভিযোগে ঢাকার দোহার থানাধীন বরইক্রাসি গ্রামের আমির আলী মাদবরের ছেলে মো. রুবেলের (২৭) নামে মামলা হয়।

ওই বছরের ২১ নভেম্বর পুলিশ রুবেলের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করলে মামলাটি বিচারের জন্য ঢাকার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ এবং দেউলিয়া বিষয়ক আদালতে বিচারের জন্য পাঠানো হয়।

মঙ্গলবার মামলাটি সাক্ষ্য গ্রহণের পর্যায়ে আসামি রুবেলের জামিনের আবেদন করা হয়। গত ৮ মাস তিনি কারাগারে আটক আছেন।

রুবেলের আইনজীবী রজব হোসেন বলেন, 'মঙ্গলবার আসামির জামিনের শুনানির সময় খালা জোহরা এবং বোন বেবি হাজির ছিলেন। শুনানির পর বিচারক জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করে দেন। আদালত কক্ষেই ছিলেন খালা জোহরা।

তিনি জানান, জামিন না মঞ্জুরের খবরে আদালত কক্ষেই অসুস্থ হয়ে পড়েন জোহরা। তাকে ধরাধরি করে হাসপাতালে নেওয়ার জন্য আদালতের বারান্দায় আনা হলে সেখানেই তিনি মারা যান।

তবে আদালতের পেশকার বলেন, 'ওই মামলায় জামিন শুনানির সময়ই ওই মহিলা আদালতের বারান্দায় চিল্লাচিল্লি শুরু করেন। বিচারক তাকে ডেকে শান্ত হতে বলে আদেশ পরে দেবেন বলে আদেশ দেন।'

পরে জানতে পারি, ওই মহিলা আদালতের বারান্দায় অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে নিচে নামানোর সময় লিফটেই মারা যান।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র