আদালতে ইউপি চেয়ারম্যানকে বাদী পক্ষের মারধর

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

হত্যা মামলায় হাইকোর্টে আগাম জামিন পাওয়ায় ক্ষুব্ধ বাদী পক্ষের মারধরের শিকার হয়েছেন মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার বাজিতপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম হাওলাদার। এ সময় তার আইনজীবী আবদুল আউয়ালকেও মারধর করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সমিতির ভবনের (বার ভবন) ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় হামলাকারী জুয়েল নামের এক যুবককে আটক করেছে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি।

সমিতির সম্পাদক মাহবুব উদ্দিন খোকন এ ঘটনায় সিদ্ধান্ত নিতে ইউপি চেয়ারম্যান, আইনজীবী আবদুল আউয়াল ও হামলাকারীকে জিজ্ঞাসাবাদ করছেন।

সিরাজুল ইসলাম হাওলাদার বাজিতপুরের আওয়ামী লীগ সমর্থিত ইউপি চেয়ারম্যান। গত ৯ মে
মাদারীপুরের রাজৈরের বাজিতপুরের মজুমদার বাজার এলাকায় সোহেল হাওলাদার (৩২) নামে এক ব্যবসায়ীকে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। সম্পর্কে তারা চাচাতো ভাই। এ ঘটনায় সিরাজুল ইসলামকে প্রধান আসামি করে রাজৈর থানায় মামলা করার পর থেকে তিনি পলাতক ছিলেন।

মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) পলাতক সিরাজুল ইসলাম হত্যা মামলায় আগাম জামিন নিতে আসেন হাইকোর্টে। তিনি আগাম জামিনও পান। এরপর বেলা ১টা ১০ মিনিটে সিরাজুল ইসলামের ওপর হামলা চালায় বাদী পক্ষের জুয়েল বাচ্চুসহ অন্যরা। সিরাজুলকে বাঁচাতে তার আইনজীবী এগিয়ে আসলে তাকেও মারধর করা হয়।

সুপ্রিম কোর্ট বারের কক্ষে বসা ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘আদালতে জামিন পাওয়ার পর বার ভবনের সভাপতির কক্ষের সামনে আমার ওপর হামলা করেছে বাদী পক্ষ। আমাকে উপর্যুপরি কিল ঘুষি দেওয়া হয়।’