ভারতীয় জাল মুদ্রা রাখায় পাকিস্তানির কারাদণ্ড

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, ঢাকা
প্রতীকী

প্রতীকী

  • Font increase
  • Font Decrease

৮০ লাখ ভারতীয় জাল মুদ্রা রাখার অপরাধে এক পাকিস্তানি নাগরিকের ৬ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন ট্রাইব্যুনাল।

আসামির নাম মোহাম্মদ ইমরান। তিনি পাকিস্তানের করাচির নাগরিক। তার পিতার নাম আব্দুল গাফফার। পাসপোর্ট নম্বর বি-জেড ১২২৫৩০৩।

বৃহস্পতিবার (৫ সেপ্টেম্বর) ঢাকার ৪ নম্বর বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. রবিউল আলম এ রায় দেন। রায় ঘোষণা উপলক্ষে আসামিকে কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়েছিল। তার সম্মুখে রায় ঘোষণা করে সাজা পরোয়ানা দিয়ে ফের কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আসামিকে ৬ বছর কারাদণ্ডের অতিরিক্ত ১০ হাজার টাকা জরিমানা ও জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬ মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট সালাহউদ্দিন হাওলাদার ও আসামিপক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট তাহমীনা আক্তার হাশেমী।

মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, ২০১৫ সালের ১৫ জানুয়ারি কাতার এয়ারলাইনসের ফ্লাইট নম্বর কিউআর ৬৩২ নম্বর ফ্লাইটে আসামি ইমরান দোহা থেকে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আসেন। গ্রিন চ্যানেল অতিক্রম করার সময় কাস্টমস কর্মকর্তারা তার গতিরোধ করেন। এ সময় তারা আসামির লাগেজ স্ক্যানিং করে ৮০ লাখ ভারতীয় রুপি যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ১ কোটি ২ লাখ ৪০ হাজার টাকা জব্দ করেন।

পরে বিশেষজ্ঞ দিয়ে পরীক্ষা করে দেখা যায় আসামির বহন করা রুপিগুলো জাল।

এ ঘটনায় পরদিন সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা মো. মোজাম্মেল হক বাদী হয়ে ঢাকার বিমানবন্দর থানায় এ মামলা দায়ের করেন। ঘটনা তদন্ত করে পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের উপ-পরিদর্শক মো. ইলিয়াছ মোল্যা ২০১৬ সালের ৪ ডিসেম্বর আসামিকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। রায় ঘোষণার আগে চার্জশিটের ৮ সাক্ষীর মধ্যে ৪ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করেন ট্রাইব্যুনাল।

আপনার মতামত লিখুন :