Alexa
independent day 2019

গ্যাবনে সেনা অভ্যুত্থানের চেষ্টা

গ্যাবনে সেনা অভ্যুত্থানের চেষ্টা

ছবি: সংগৃহীত

সেন্ট্রাল ডেস্ক, বার্তা২৪.কম

রাষ্ট্রীয় রেডিও স্টেশনের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে একটি গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার কাউন্সিল গঠনের ঘোষণা দিয়ে মধ্য আফ্রিকান দেশ গ্যাবনের একদল সৈন্য অভ্যুত্থানের চেষ্টা চালিয়েছে।

সোমবার (৭ জানুয়ারি) ভোরে গ্যাবনের রাজধানী লিব্রিভিলে রেডিও স্টেশনে ঘোষণার মাধ্যমে এ অভ্যুত্থানের চেষ্টা চালানো হয় বলে জানায় আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম আল-জাজিরা।

প্রতিবেদনটিতে দাবি করা হয়, সেনা অভ্যুত্থান চেষ্টার পর বিদ্রোহী সেনা কর্মকর্তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানান দেশটির যোগাযোগ মন্ত্রী। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলেও জানান এই মন্ত্রী।

এই ঘটনার পরও গ্যাবনের রাজধানী লিব্রিভিলে গোলাগুলির খবর পাওয়া গেছে বলেও প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়।

রেডিও স্টেশনে এক বিবৃতিতে বিদ্রোহী সেনারা দেশটির প্রেসিডেন্ট আলী বুঙ্গুকে দোষী সাব্যস্ত করেন। গত অক্টোবরের আক্রমণের ঘটনার পর প্রথমবারের মত গত সপ্তাহে মরক্কো থেকে দেশবাসীর সামনে ভাষণ দেন আলী বুঙ্গু।

বুঙ্গুর নতুন বছরের ভাষণ প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালনে তাঁর যোগ্যতা নিয়ে সন্দেহ বাড়ায় বলে মন্তব্য করেন গ্যাবনের প্রতিরক্ষা ও নিরাপত্তার দেশপ্রেমিক আন্দোলনের স্বঘোষিত নেতা লেফটেন্যান্ট ক্যালি অন্দু্ ওবিয়াং।

তিনি বলেন, ‘আবারো, বহু দিন যাবৎ, ক্ষমতাধররা আলী বুঙ্গুকে দিয়ে অসাধুভাবে কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। আলী বুঙ্গু বিভিন্ন শারীরিক ও মানসিক রোগে ভুগছেন।’

গ্যাবনের রাজধানীর কেন্দ্রে রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন কার্যালয়ের আশেপাশে স্থানীয় সময় ভোর সাড়ে ৬টায় গুলির আওয়াজ পাওয়া যায় এবং সামরিক গাড়ি দিয়ে ঐ স্থানটি ঘিরে ফেলা হয়।

অভ্যুত্থান চেষ্টার পরের দিন লিব্রিভিলের অধিকাংশ এলাকা শান্ত ছিল। তবে শহরটির রাস্তায় প্রচুর সংখ্যক সামরিক ও পুলিশ সদস্যদের টহল চোখে পড়ছে এবং আকাশে চক্বর দিচ্ছে সামরিক হেলিকপ্টার।

বিদ্রোহকে সমর্থন দিয়ে প্রায় ৩০০ মানুষ রেডিও স্টেশনের আশেপাশে জড়ো হন। এ সময় সেনারা টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করে তাদেরকে ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

জানা যায়, গত বছরের ২৪ অক্টোবর সৌদি আরব সফরের সময় আক্রমণের শিকার হন আলী বুঙ্গু (৫৯)। এর পর থেকে তিনি মরক্কোতে নির্বাসিত রয়েছেন। গত প্রায় অর্ধ শতাব্দি ধরে বুঙ্গুর পরিবার মধ্য আফ্রিকান এ দেশটি শাসন করে আসছেন।

গত সোমবার গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করা এক ভিডিও বার্তায় আলী বুঙ্গু স্বীকার করেন যে তিনি কঠিন পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে সময় পার করছেন। ভিডিওটি মরক্কোর রাবাতে ধারণ করা হয়।

এর পাশাপাশি বুঙ্গু বলেন, ‘শীঘ্রই আমি আপনাদের মাঝে ফেরার প্রস্তুতি নিচ্ছি।

পরবর্তীতে প্রেসিডেন্টের মুখপাত্র ইক জওনি বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, ‘তাঁর (আলী বুঙ্গু) এ বক্তব্য প্রমাণ করে তিনি পুরোপুরি সুস্থ। এখন তাঁর কোনো শারীরিক সমস্যা নেই।’

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিওতে বিবৃতি পাঠরত অবস্থায় অন্দু ওবিয়াংকে সামরিক পোশাকে রেডিও স্টেশনে দেখা যায়। এ সময় দুই জন অস্ত্রধারী সৈনিককে তার পিছনে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়।

অন্দু ওবিয়াং বলেন, ‘২০১৬ সালের ৩১ আগস্টের রাতে যারা কাপুরুষোচিতভাবে আমাদের স্বদেশী যুবকের হত্যা করেছিলেন, এই বিদ্রোহ তাদের বিরুদ্ধে।’

২০১৬ সালে এক বিতর্কিত নির্বাচনে আলী বুঙ্গুকে বিজয়ী ঘোষণার পর চরম সহিংসতা ছড়িয়ে পড়েছিল।

সরকারের ঘনিষ্ঠ এক সূত্র বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, ‘সেনাদের একটি ক্ষুদ্র অংশ এ অভ্যুত্থানের চেষ্টা চালায়।’

সোমবার বিকাল পর্যন্ত পরিস্থিতি সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা পাওয়া যায়নি।

সরকারের মুখপাত্র গাই বার্ট্রান্ড মাপাঙ্গাও বলেন, ‘অভ্যুত্থানে চেষ্টা চালানো পাঁচ সেনা কর্মকর্তার মধ্যে চার জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এসেছে।’

আন্তর্জাতিক এর আরও খবর