ট্রাম্প-পুতিনের যত যোগাযোগ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লামিদির পুতিন ও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, ছবি: সংগৃহীত

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লামিদির পুতিন ও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও রাশিয়ান প্রেসিডেন্ট ভ্লামিদির পুতিনের মধ্যে এখন পর্যন্ত বিভিন্ন কারণে ১৮ বার যোগাযোগ হয়েছে। এর মধ্যে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে মুখোমুখি বৈঠক হয়েছে পাঁচবার। চিঠি আদান-প্রদানের মাধ্যমে যোগাযোগ হয়েছে চারবার।

তবে বিশ্বের ক্ষমতাধর এই দুই প্রেসিডেন্টের সবচেয়ে বেশি যোগাযোগ হয়েছে ফোনে। সবমিলিয়ে নয়বার বিভিন্ন ইস্যুতে তারা ফোনে যোগাযোগ করেছেন। আর নিজেদের মধ্যে যোগাযোগের কারণে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের শিরোনামে উঠেছে দুই ক্ষমতাধর প্রেসিডেন্টের নাম।

বুধবার (১৬ জানুয়ারি) মার্কিন সংবাদ মাধ্যম ‘নিউইয়র্ক টাইমস’ এর এক প্রতিবেদনে তাদের মধ্যকার ১৮ বার যোগাযোগের সময় ও কারণ তুলে ধরা হয়েছে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jan/16/1547655879282.JPG

মুখোমুখি সাক্ষাৎ:

২০১৬ সালে ডোনাল্ড ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর এই নিয়ে রাশিয়ান প্রেসিডেন্টের সাথে পাঁচবার বৈঠক হয়েছে।

১. ২০১৭ সালের ৭ জুলাইতে জি-২০ সামিটে তাদের প্রথমবার দেখা হয়। যেখানে তারা প্রাইভেটভাবে আলোচনা করে। এমনকি আলোচনা শেষে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প তার অনুবাদকের হাতের নোটটি নিয়ে নেয়।

২. একইদিন জি-২০ সামিটে রাতের খাবারে তাদের ফের দেখা হয়। যেখানে পুতিন শুধু তার অনুবাদককে নিয়ে ট্রাম্পের সাথে দেখা করে। তবে দুপক্ষের কেউই এই আলোচনার কিছুই প্রকাশ করেনি।

৩. ২০১৭ সালের ১১ নভেম্বর ভিয়েতনামে ‘অর্থনৈতিক সহায়তা’ বিষয়ক এক সামিটে তাদের দেখা হয়। যেখানে খুব সামান্যতম আলোচনা হয় তাদের দুজনের মধ্যে। এই সাক্ষাতের ভিডিও ফুটেজে দেখা যায় দুই প্রেসিডেন্ট নিজেদের মধ্যে হাত মেলানোর পাশাপাশি কথাও বলেন। পরবর্তীতে এ বিষয়ে ট্রাম্প জানায়, সে রাশিয়ান প্রেসিডেন্টকে যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে রাশিয়ার ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন করেছিল। কিন্তু রাশিয়ার কোন ভূমিকা ছিল না বলে পুতিন মন্তব্য করেছেন বলে জানান ট্রাম্প।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jan/16/1547655893755.JPG

৪. ২০১৮ সালের ১৬ জুলাই ফিনল্যান্ডের হেলসিঙ্কিতে তাদের চতুর্থবারের মতো তাদের দেখা হয়। এখানেও মার্কিন নির্বাচনে রাশিয়ার ভূমিকার বিষয়ে সে সময় চলাকালীন বিতর্ক নিয়ে তারা আলোচনা করেন। প্রায় ২ ঘণ্টার এই বৈঠক শেষে ট্রাম্প জানান, মার্কিন নির্বাচনে রাশিয়ার ভূমিকা ছিল না।

৫. ২০১৮ সালের ৩০ নভেম্বর আর্জেন্টিনার বুয়েনস এইরেসে জি-২০ সামিটে তাদের সাক্ষাৎ হয়। এটা পূর্বনির্ধারিত সাক্ষাৎ ছিল। যেখানে ইউক্রেনের প্রতি রাশিয়ার আক্রমণাত্মক ভূমিকার বিষয়ে কথাবার্তা হয়। এখানে তারা বিশ্ব নেতাদের সাথে দাঁড়িয়ে একসাথে ছবিও তুলেছিল। তবে এই সাক্ষাতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট পুতিনকে এড়িয়ে চলেছেন বলেও আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে উঠে আসে।

এছাড়া তাদের মধ্যে ৯ বার ফোন কলে কথা হয়। চিঠি আদান-প্রদানের মাধ্যমে ৪ বার যোগাযোগ হয়। এই সবকটি যোগাযোগই হয়েছে শুভেচ্ছা বিনিময়, শোকবার্তা প্রেরণ, দুই দেশের সম্পর্ক ও বৈঠকের জন্য আমন্ত্রণ জানিয়ে।

পরিশেষে বলা যায়, দুই দেশের মধ্যে বৈরী পরিবেশ থাকলেও ২০১৬ সাল থেকে দেশ দুইটির প্রেসিডেন্ট এই নিয়ে ১৮ বার যোগাযোগ করেছে। এতে বিশ্ব গণমাধ্যমে আলোচনা ও সমালোচনা হয়েছে ট্রাম্প ও পুতিনের।

আপনার মতামত লিখুন :