Alexa

পর্তুগালে মানবপাচারের শিকার হচ্ছে বাংলাদেশিরা

পর্তুগালে মানবপাচারের শিকার হচ্ছে বাংলাদেশিরা

মানবপাচারের শিকার হচ্ছে বাংলাদেশিরা

ইউরোপের দেশ পর্তুগালে মানব পাচারের শিকার কয়েকজন বাংলাদেশি উদ্ধার হয়েছেন। এক দশকের বেশি সময় ধরে মজুরিহীন অবস্থায় সেখানে কৃষি জমিতে চাষের কাজ করছিলেন তারা।

পর্তুগাল ইমিগ্রেশন অ্যান্ড বর্ডার সার্ভিসের প্রেসিডেন্ট অব ইন্সপেক্টর অ্যাকাসিও পেরেরা বলেন, কৃষি জমিগুলোতে অভিবাসী শ্রমিকদের অবস্থা নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গিয়েছে। সম্প্রতি বেশ কয়েকটি খামারে অভিযান চালিয়ে পাচার হওয়ার অন্যান্য বিদেশি শ্রমিকদের সঙ্গে বাংলাদেশিদের সন্ধানও পাওয়া যায়।

গত ডিসেম্বরের প্রকাশিত ইউরোপিয়ান কমিশনের রিপোর্টে বলা হয়েছে মাল্টা ছাড়া ইউরোপে প্রতি দশ লাখ মানুষে সবচেয়ে বেশি মানবপাচার হয়েছে পর্তুগালে।

রিপোর্টে বলা হয়েছে, পূর্ব ইউরোপের লোক ছাড়াও, ভারত, নেপাল, পাকিস্তান এবং বাংলাদেশ থেকেও মানুষ পাচারের শিকার হয়েছেন।

পর্তুগিজ তদন্তকারীরা বলেছেন, ইন্টারনেটে বিজ্ঞাপন দিয়ে মানবপাচারকারী চক্র এসব দেশ থেকে মানুষকে শিকারে পরিণত করেছেন।

তবে তাদেরকে নিয়োগ দেয়ার পরে তাদের ডকুমেন্ট নিয়ে যাওয়া হয় এবং বেতনহীনভাবে কাজ করানো শুরু করে।

পর্তুগাল ন্যাশনাল রিপাবলিকান গার্ডের পুলিশ ক্যপ্টেন ফিলিপ মৌটাস বলেন, 'মানব পাচারের এই বিষয়টি নিয়ে আমরা দুঃচিন্তায় রয়েছি। এলেন্টেজোতে গত সপ্তাহে একশত একরের একটি স্ট্রবেরি খামারে অভিযান চালিয়ে এই ধরনের অভিবাসীদের দেখা যায়।

তিনি বলেন, আমরা বিষয়টির ওপর নজর রেখেছি এবং নিয়মিত অভিযান চালিয়ে যাবো। আমাদের মূল চিন্তা হচ্ছে শ্রমিকদের মানব পাচার কারণ আমরা এই বিষয়েই রিপোর্ট পেয়েছি।

গত ৭ ফেব্রুয়ারিতে ৪ টি পুলিশ কার নিয়ে এই খামারের মাঝখানে চলে যায় এবং মালিকের সঙ্গে দেখা করেন। তার অধীনে থাই এবং বুলগেরিয়ান শ্রমিক কাজ করছিলেন।

পার্শ্ববর্তী শহর বেজায় এক অভিযানে মানব পাচারের শিকার ২৬ জনকে পাওয়া যায়। সেখানে ৬ জন রোমানিয়ানকে পাওয়া যায়।

দ্যা কাউন্সিল অব ইউরোপের রিপোর্টে বলা হয়েছে, মহাদেশটিতে শ্রমিক পাচারের সংখ্যা বাড়ছে। এছাড়াও যৌন নির্যাতনের হার বাড়ছে।

আপনার মতামত লিখুন :