Barta24

মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

পর্তুগালে মানবপাচারের শিকার হচ্ছে বাংলাদেশিরা

পর্তুগালে মানবপাচারের শিকার হচ্ছে বাংলাদেশিরা
মানবপাচারের শিকার হচ্ছে বাংলাদেশিরা
স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

ইউরোপের দেশ পর্তুগালে মানব পাচারের শিকার কয়েকজন বাংলাদেশি উদ্ধার হয়েছেন। এক দশকের বেশি সময় ধরে মজুরিহীন অবস্থায় সেখানে কৃষি জমিতে চাষের কাজ করছিলেন তারা।

পর্তুগাল ইমিগ্রেশন অ্যান্ড বর্ডার সার্ভিসের প্রেসিডেন্ট অব ইন্সপেক্টর অ্যাকাসিও পেরেরা বলেন, কৃষি জমিগুলোতে অভিবাসী শ্রমিকদের অবস্থা নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গিয়েছে। সম্প্রতি বেশ কয়েকটি খামারে অভিযান চালিয়ে পাচার হওয়ার অন্যান্য বিদেশি শ্রমিকদের সঙ্গে বাংলাদেশিদের সন্ধানও পাওয়া যায়।

গত ডিসেম্বরের প্রকাশিত ইউরোপিয়ান কমিশনের রিপোর্টে বলা হয়েছে মাল্টা ছাড়া ইউরোপে প্রতি দশ লাখ মানুষে সবচেয়ে বেশি মানবপাচার হয়েছে পর্তুগালে।

রিপোর্টে বলা হয়েছে, পূর্ব ইউরোপের লোক ছাড়াও, ভারত, নেপাল, পাকিস্তান এবং বাংলাদেশ থেকেও মানুষ পাচারের শিকার হয়েছেন।

পর্তুগিজ তদন্তকারীরা বলেছেন, ইন্টারনেটে বিজ্ঞাপন দিয়ে মানবপাচারকারী চক্র এসব দেশ থেকে মানুষকে শিকারে পরিণত করেছেন।

তবে তাদেরকে নিয়োগ দেয়ার পরে তাদের ডকুমেন্ট নিয়ে যাওয়া হয় এবং বেতনহীনভাবে কাজ করানো শুরু করে।

পর্তুগাল ন্যাশনাল রিপাবলিকান গার্ডের পুলিশ ক্যপ্টেন ফিলিপ মৌটাস বলেন, 'মানব পাচারের এই বিষয়টি নিয়ে আমরা দুঃচিন্তায় রয়েছি। এলেন্টেজোতে গত সপ্তাহে একশত একরের একটি স্ট্রবেরি খামারে অভিযান চালিয়ে এই ধরনের অভিবাসীদের দেখা যায়।

তিনি বলেন, আমরা বিষয়টির ওপর নজর রেখেছি এবং নিয়মিত অভিযান চালিয়ে যাবো। আমাদের মূল চিন্তা হচ্ছে শ্রমিকদের মানব পাচার কারণ আমরা এই বিষয়েই রিপোর্ট পেয়েছি।

গত ৭ ফেব্রুয়ারিতে ৪ টি পুলিশ কার নিয়ে এই খামারের মাঝখানে চলে যায় এবং মালিকের সঙ্গে দেখা করেন। তার অধীনে থাই এবং বুলগেরিয়ান শ্রমিক কাজ করছিলেন।

পার্শ্ববর্তী শহর বেজায় এক অভিযানে মানব পাচারের শিকার ২৬ জনকে পাওয়া যায়। সেখানে ৬ জন রোমানিয়ানকে পাওয়া যায়।

দ্যা কাউন্সিল অব ইউরোপের রিপোর্টে বলা হয়েছে, মহাদেশটিতে শ্রমিক পাচারের সংখ্যা বাড়ছে। এছাড়াও যৌন নির্যাতনের হার বাড়ছে।

আপনার মতামত লিখুন :

ভারত-পাকিস্তানের মাঝে মধ্যস্থতাকারী হতে চান ট্রাম্প

ভারত-পাকিস্তানের মাঝে মধ্যস্থতাকারী হতে চান ট্রাম্প
ইমরান খান, ডোনাল্ড ট্রাম্প ও নরেন্দ্র মোদি, ছবি: সংগৃহীত

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দাবি করেছেন, কাশ্মীর ইস্যুতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি তাকে মধ্যস্থতাকারী হিসেবে ভূমিকা পালন করতে। তবে মোদির এ দাবি উড়িয়ে দিয়েছে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

সোমবার (২২ জুলাই) হোয়াইট হাউজে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরানের খানের সঙ্গে এক সাক্ষাতে তিনি এ দাবি করেন।

তিনি বলেন, 'দুই সপ্তাহ আগে আমার সঙ্গে মোদির সাক্ষাৎ হয়েছিল। আমরা এই বিষয়ে কথা বলেছি। তিনি আমাকে বলেছেন, আপনি কি মধ্যস্থতাকারী হিসেবে কাজ করতে চান? আমি বললাম, কোথায়? তিনি বললেন, কাশ্মীর ইস্যুতে।'

মার্কিন প্রেসিডেন্ট আরও বলেন, 'এটা দীর্ঘদিনের একটি সমস্যা। ভারত প্রধানমন্ত্রী ও আপনি (ইমরান খান) চান এটা সমাধান করতে। আমি যদি সহায়তা করতে পারি, এই বিষয়ে মধ্যস্থতাকারী হিসেবে করতে পছন্দ করব।'

ট্রাম্পের কথা প্রেক্ষিতে ইমরান খান বলেন, 'আপনি যদি মধ্যস্থতাকারী হয়ে কাজ করে এটা সমাধান করেন তাহলে শত কোটি মানুষের প্রার্থনা আপনার সঙ্গে থাকবে।'

এদিকে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রীর মুখপাত্র রাভেশ কুমার এক টুইট বার্তায় বলেন, 'ভারতের পক্ষ থেকে এমন কোনো অনুরোধ জানানো হয়নি।'

অভিবাসীদের দ্রুত তাড়াতে যুক্তরাষ্ট্রে নতুন আইন

অভিবাসীদের দ্রুত তাড়াতে যুক্তরাষ্ট্রে নতুন আইন
অভিবাসী দমনে মরিয়া মার্কিন প্রশাসন, ছবি: সংগৃহীত

অবৈধ অভিবাসীদের দ্রুত বিতাড়িত করতে নতুন নীতির সিদ্ধান্ত নিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এক্ষেত্রে অভিবাসীদের আদালতেও তোলা হবে না। সরাসরি বিতাড়িত করবে যুক্তরাষ্ট্র।

নতুন আইন অনুযায়ী, দেশটিতে দুই বছরের কম রয়েছে এমন অতালিকাভুক্ত অভিবাসীদের তাৎক্ষণিকভাবে পাঠিয়ে দেওয়া হবে।

মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) এই আইনটির ঘোষণা দেওয়া হবে। এরপর সারাদেশে এটা বাস্তবায়ন করা হবে।

এই বিষয়ে দেশটির ডানপন্থী গ্রুপ আমেরিকান সিভিল লিবারেশন ইউনিয়নের (এসিএলইউ) পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এই আইনটির দ্বারা আদালতের নীতিমালাকে চ্যালেঞ্জ করার একটি পরিকল্পনা।

এতে দেশটিতে নিরাপত্তা বাড়ানো হচ্ছে। বিশেষ করে অভিবাসী আটককেন্দ্রগুলো ও মেক্সিকোর সঙ্গে থাকা দক্ষিণাঞ্চলের সীমান্তে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অভিবাসীদের নিয়ন্ত্রণে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড কঠোর অবস্থানে রয়েছেন। এটি তার ২০২০ সালের নির্বাচনের প্রচারণার একটি অংশও।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র