Alexa

‘অ্যাসাঞ্জ ইকুয়েডর দূতাবাসকে চরবৃত্তিতে ব্যবহার করেছিলেন’

‘অ্যাসাঞ্জ ইকুয়েডর দূতাবাসকে চরবৃত্তিতে ব্যবহার করেছিলেন’

জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ / ছবি: সংগৃহীত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম

উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ যুক্তরাজ্যের লন্ডনে অবস্থিত ইকুয়েডরের দূতাবাসকে গুপ্তচরবৃত্তির কাজে ব্যবহার করেছিলেন বলে দাবি করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট লেনিন মোরেনো। খবর বিবিসি।

তিনি বলেছেন, শর্ত লঙ্ঘন ও নথিপত্রে ত্রুটি থাকায় অ্যাসাঞ্জকে দেওয়া আশ্রয় প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়। এ সিদ্ধান্তে অন্য কোনো দেশের প্রভাব নেই।

মোরেনো গার্ডিয়ানের কাছে দাবি করেন, অন্য রাষ্ট্রের বিষয়ে হস্তক্ষেপ করার জন্য তার দেশের পুরনো সরকার লন্ডনে ইকুয়েডর দূতাবাসের ভেতরে সুযোগ করে দিয়েছিল।

এদিকে উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতার আইনজীবী ইকুয়েডর সকারের আনা এসব অভিযোগ ‘অপমানজনক’ বলে অভিহিত করেছেন ।

২০১৭ সালে ক্ষমতায় আসা ইকুয়েডর প্রেসিডেন্ট মোরেনো অ্যাসাঞ্জের দূতাবাসের সাত বছরের থাকার অবসান শেষ করার সিদ্ধান্তের বিষয়ে বলেছেন, ‘অস্থিতিশীলতার যে কোনো চেষ্টা ইকুয়েডরের জন্য একটি নিন্দনীয় কাজ। কারণ, আমরা সার্বভৌম রাষ্ট্র এবং প্রত্যেকের রাজনীতির প্রতি শ্রদ্ধাশীল দেশ।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা আমাদের ঘরের (দূতাবাস) দরজা গুপ্তচরবৃত্তির জন্য খোলা রাখার অনুমতি দেই না।’

উল্লেখ্য, আশ্রয়ের শর্ত ভঙ্গ ও নথিপত্রে ত্রুটি থাকার যুক্তি দেখিয়ে গত বুধবার (১০ এপ্রিল) জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জের আশ্রয় প্রত্যাহার করে নেয় ইকুয়েডর। পরদিন বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) লন্ডনে ইকুয়েডর দূতাবাসের মধ্যে ঢুকে অ্যাসাঞ্জকে গ্রেফতার করে যুক্তরাজ্য পুলিশ।

 

আন্তর্জাতিক এর আরও খবর

মোদির অলআউট প্রচারণা

মোদির অলআউট প্রচারণা

লোকসভা নির্বাচনে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি অলআউট প্রচারণা শুরু করে দিয়েছেন। সন্ত্রাস মোকাবিলা, পাকিস...