Barta24

রোববার, ২১ জুলাই ২০১৯, ৫ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

সুখি ভুটানে শনিবারের ডাক্তার প্রধানমন্ত্রী

সুখি ভুটানে শনিবারের ডাক্তার প্রধানমন্ত্রী
ভুটানের প্রধানমন্ত্রী লোটে শেরিং, পুরনো ছবি
স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

শনিবারের ভুটান। জিগমে দর্জি ওয়াংচুক ন্যাশনাল রেফারেল হসপিটালে লোটে শেরিং মাত্র একটি ইউরিনারি ব্লাডার রিপেয়ার সার্জারি শেষ করে বের হয়েছেন। তবে শেরিং শুধু চিকিৎসকই নন, হিমালয়ের দেশ ভুটানের প্রধানমন্ত্রী। যে দেশটি গ্রস ন্যাশনাল হ্যাপিনেসের জন্য বিখ্যাত।

সাড়ে ৭ লাখ মানুষের দেশ ভুটানে ২০০৮ সালে রাজতন্ত্রের অবসানের পর থেকে তৃতীয় জাতীয় নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন শেরিং। তিনি বলেন, 'এটা আমার দ্বিতীয় কর্তব্য।’

৫০ বছর বয়সী এই প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'অনেকে গলফ খেলেন, অনেকে তীর-ধনুকের চর্চা করেন আর আমি এই রোগী দেখতে পছন্দ করি। আমি আমার সাপ্তাহিক ছুটির দিনটি এখানে কাটাই।'

হাসপাতালে কেউই শেরিংয়ের দিকে দৃষ্টিপাত করছেন না। একটি বিবর্ন অ্যাপ্রোন পরে হাসপাতালের করিডরে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন শেরিং। হাসপাতালের নার্স এবং অন্যান্য কর্মকর্তারাও নিজেদের কাজ নিয়েই ব্যস্ত। 

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/May/09/1557403908154.jpg

এই বৌদ্ধ প্রধান দেশটি বিভিন্ন কারণেই নিজেকে স্বতন্ত্র হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছে। অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির চেয়ে সুখের সমৃদ্ধির প্রতি দৃষ্টি দিয়েছে বেশি।

এই সুখ সমৃদ্ধি বৃদ্ধির অন্যতম একটি উপাদান হিসেবে বলা হয়েছে, পরিবেশ রক্ষাকে। ভুটানে কার্বন শূন্য দেশ এবং সাংবিধানিকভাবে দেশের মোট আয়তনের ৬০ শতাংশের বেশি বন রয়েছে। এটি ইকো-ট্যুরিজমকে উৎসাহ দেয় এবং মৌসুমে একজন পর্যটককে আড়াইশ ডলার বা প্রায় ২১ হাজার টাকা দিয়ে এই দেশে প্রবেশ করতে হয়।

রাজধানী থিম্পুতে নেই কোনো ট্রাফিক লাইট। এখানে তামাক বিক্রি নিষিদ্ধ এবং মাত্র ১৯৯৯ সাল থেকে টেলিভিশন দেখার অনুমতি দেয়া হয়।

তবে থান্ডার ড্রাগনের এই দেশেরও নিজ সমস্যা রয়েছে অনেক। দুর্নীতি, প্রান্তিক দারিদ্রতা, বেকার সমস্যা এবং অপরাধীদের গ্যাংসহ বিভিন্ন সমস্যায় জর্জরিত দেশটি।

শেরিং বাংলাদেশ, জাপান, অস্ট্রেলিয়া এবং আমেরিকায় চিকিৎসা শাস্ত্রে প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। ২০১৩ সালে নিজের রাজনৈতিক ক্যারিয়ার শুরু করেন শেরিং। তবে সেই সময় নির্বাচনে পরাজয় লাভ করে তার দল।

নির্বাচনে হারের পর রাজা জিগমে খেসার নামজিল ওয়াংচুকের আদেশে শেরিংয়ের নেতৃত্বে চিকিৎসকদের একটি দল ভুটানের প্রত্যন্ত অঞ্চলে বিনামূল্যে চিকিৎসা দেন।

এখন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তার কাছে রেফার করা রোগীদের দেখেন শেরিং এবং বৃহস্পতিবার সকালে ইন্টার্ন এবং চিকিৎসকদের প্রশিক্ষণ দেন তিনি। রোববারের সময়টুকু দেন পরিবারকে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়েও তার চেয়ারের পেছনে একটি অ্যাপ্রোন ঝুলানো রয়েছে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/May/09/1557403939100.jpg

তিনি বলেন, এই অ্যাপ্রোনটি আমাকে সকলের জন্যে স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার নির্বাচনী প্রতিশ্রুতির কথা মনে করিয়ে দেয়। ভুটানে রোগীদের চিকিৎসার জন্যে সরাসরি কোনো টাকা দিতে হয় না। তবে স্বাস্থ্য সেবার জন্যে আমাদের আরও অনেক কিছু করার রয়েছে।

ভুটান যখন জীবন যাপনে উন্নতি সাধন করেছে, শিশু ও মাতৃমৃত্যু হার কমেছে এবং সংক্রামিত রোগ নিয়ন্ত্রণে  এসেছে, একই সঙ্গে মদ্য পান এবং ডায়াবেটিস এবং অসংক্রামক রোগ বৃদ্ধি পাচ্ছে।

শেরিং বলেন, আমাদেরকে এখন আরও উচ্চতর স্বাস্থ্যসেবার দিকে নজর দিতে হবে। শনিবার বাদে অন্য দিনগুলোতে ভুটানের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দ্বায়িত্ব পালন করেন তিনি।  হাসপাতালে শেরিংয়ের ৪০ বছর বয়সী রোগী বুমথাপ বলেন, আমি যখন দেশের সেরা চিকিৎসক এবং প্রধানমন্ত্রীর অধীনে চিকিৎসায় রয়েছি, তখন অনেক বেশি আস্বস্ত বোধ করি।

প্রধানমন্ত্রী শেরিং বলেন, রাজনীতিটা হচ্ছে একজন ডাক্তার হয়ে ওঠার মতো। হাসপাতালে আমি রোগীদের শরীর স্ক্যান করি এবং সেবা দেই। আবার রাজনীতির স্বাস্থ্য ঠিক করতেও আমাকে কাজ করতে হয়। আমি আমৃত্যু এই কাজটি করে যেতে চাই।

সাপ্তাহিক ছুটির দিনগুলোতে নিজের অফিসিয়াল চালক ছাড়া নিজেই গাড়ি নিয়ে থিম্পুতে ঘুড়ে বেড়ান তিনি। বলেন, ছুটির দিনগুলোতে হাসপাতালে আসার চেষ্টা থাকে সবসময়ই।

আপনার মতামত লিখুন :

দিল্লির সাবেক মুখ্যমন্ত্রী শীলা দীক্ষিত মারা গেছেন

দিল্লির সাবেক মুখ্যমন্ত্রী শীলা দীক্ষিত মারা গেছেন
শীলা দীক্ষিত, ছবি: সংগৃহীত

দিল্লির প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা কংগ্রেস নেত্রী শীলা দীক্ষিত মারা গেছেন। মৃত্যুকালে তার ৮১ বছর বয়স হয়েছিল।

শনিবার (২০ জুলাই) দিল্লির ফর্টিস এসকর্ট হার্ট ইনস্টিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। 

দেশটির গণমাধ্যম জানায়, শীলা দীক্ষিত বেশ কিছু দিন ধরে অসুস্থ ছিলেন। শনিবার বেলা সাড়ে ৩টার দিকে মৃত্যুর খবর জানায় তার পরিবার।

এবারের অনুষ্ঠিতব্য লোকসভা নির্বাচনেও উত্তর-পূর্ব দিল্লি থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন শীলা দীক্ষিত। তবে পরাজিত হন বর্ষীয়ান এই কংগ্রেস নেত্রী।

১৯৯৮, ২০০৩ এবং ২০০৮ সালে পরপর তিন বার দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী হন শীলা দীক্ষিত। বর্তমানে তিনি দিল্লি কংগ্রেসের সভাপতি ছিলেন।

শীলা দীক্ষিতের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছে কংগ্রেস পরিবারে। শোক প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি কোবিন্দ এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও। 

এদিকে, শোকপ্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ড. মনমোহন সিং। 

অন্যদিকে, এক টুইট বার্তায় শোক প্রকাশ করেছেন জম্মু-কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লা।

যুক্তরাষ্ট্রে তীব্র তাপদাহ, আক্রান্ত হচ্ছে কানাডাও

যুক্তরাষ্ট্রে তীব্র তাপদাহ, আক্রান্ত হচ্ছে কানাডাও
ছবি: সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্র জুড়ে তীব্র তাপদাহ ছড়িয়ে পড়েছে। আহাওয়াবিদরা বলছেন, কিছু কিছু জায়গায় তাপমাত্রা ৩৮ ডিগ্রী সেলসিয়াস ছাড়িয়ে যাবে। কানাডার কিছু অংশ এই তাপদাহে আক্রান্ত হতে পারে। 

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, তীব্র তাপদাহে যুক্তরাষ্ট্র ও আশে পাশের দেশের ২০০ মিলিয়ন মানুষ আক্রান্ত হতে পারে। এর সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়বে নিউইয়র্ক, ওয়াশিংটন, বস্টনের পূর্ব উপকূলে। চলতি মাসে, যুক্তরাষ্ট্রের আলাস্কায় আর্কটিক সার্কেলে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়। তাপদাহ কলোরাডো এবং কানসাস থেকে প্রসারিত হয়ে দেশজুড়ে আরো তীব্র আকার ধারণ করবে।

ইতোমধ্যে পূর্ব উপকূলের বেশিরভাগ এলাকায় তাপমাত্রা বেড়েছে। দেশটির আবহাওয়া অফিস (এনডব্লিউএসএস) তাপদাহে আক্রান্ত এলাকাগুলোর মানচিত্র প্রকাশ করেছে। তারা বলছেন, "সপ্তাহজুড়েই তাপদাহ থাকবে, তাই সবাইকে সতর্ক ও সাবধানে থাকতে হবে।"

নিউইয়র্কের মেয়র বিল ডি ব্লাসিও তীব্র তাপদাহের কারণে স্থানীয় জরুরি অবস্থা জারি করেন। এক টুইট বার্তায় তিনি বলেন, গরমের তাপমাত্রা বেড়েই চলেছে। এটি খুবই গুরুতর বিষয়। শুক্রবার তাপমাত্রা বেড়েছে, শনিবার আরও বাড়বে, রোববার তা তীব্র আকার ধারণ করবে।

এই অবস্থায় নিউইয়র্কবাসীকে গুরুত্ব সহকারে বিষয়টি মোকাবিলার আহ্বান জানিয়ে বিল ডি ব্লাসিও বলেন, ঠান্ডা স্থানে থাকুন এবং বাইরে গরম জায়গায় যাবেন না। নিউইয়র্কে ৫০০ "শীতল কেন্দ্র" খেলা হয়েছে। অন্যান্য শহরেও এ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এদিকে তীব্র তাপদাহে কানাডার কুইবেক, অন্টারিও এবং নোভা স্কটিয়া প্রদেশে সতর্কতা জারি করা হয়েছে। শনিবার টরোন্টোতে দিনের তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রী সেলসিয়াস হতে পারে বলে জানিয়েছে দেশটির আবহাওয়া অফিস।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সাম্প্রতিক সময়ে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে তাপমাত্রার বৃদ্ধি পাচ্ছে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র