Barta24

শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯, ৫ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

মে'র জায়গায় আসছেন কে?

মে'র জায়গায় আসছেন কে?
ব্রিটেনের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী দৌড়ে রয়েছেন যারা, ছবি: সংগৃহীত
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

থেরেসা মে’র পদত্যাদের পর যুক্তরাজ্যে এখন একটাই প্রশ্ন কে হচ্ছেন দেশটির পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী। এই সংকট থেকে ব্রিটিশদের উত্তরণ করবে কে?

ইতোমধ্যে মের জায়গায় বেশ কয়েকজনের নাম শোনা যাচ্ছে। পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী কে হবেন এই নিয়ে জুয়াড়িরাও ধরেছেন জুয়া।

জুয়াড়িদের তালিকায় শীর্ষে রয়েছেন থেরেসা মের আমলের ফরেন সেক্রেটারি বরিস জনসন।

বাজিকরদের ওয়েবসাইট ওডসচেকারের তথ্যমতে বরিস জনসন প্রধানমন্ত্রী হওয়ার সম্ভাবনা ৪৭ শতাংশ। জুয়াড়ি ছাড়াও অন্যান্যরাও এগিয়ে রাখছেন বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদকে।

এদিকে মের ব্রেক্সিট সেক্রেটারি ডমিনিক রাবের নামও শোনা যাচ্ছে। এছাড়া মাইকেল গোব, জেরেমি হান্ট, আন্দ্রে লিডসম, পেনি মরডন্ট, সাজিদ জাভিদ এবং ররি স্টুয়ার্টের নামও সমভাবে উচ্চারিত হচ্ছে।

উল্লেখ্য, ব্রেক্সিট নিয়ে টানাপোড়েনের পর আর ক্ষমতায় টিকে থাকতে পারলেন না ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে। শুক্রবার (২৪ মে) তিনি প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন তিনি। তবে পদত্যাগের ঘোষণা দিলেও আগামী ৭ জুন থেকে তার তা কার্যকর হবে।

আরও পড়ুন: ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে'র পদত্যাগ

 

আপনার মতামত লিখুন :

ব্রিটিশ তেলের ট্যাংকার আটক করেছে ইরান

ব্রিটিশ তেলের ট্যাংকার আটক করেছে ইরান
ছবি: সংগৃহীত

ব্রিটিশ একটি তেলের ট্যাংকার আটক করেছে ইরান। আন্তর্জাতিক সামুদ্রিক আইনের প্রতি সম্মান না দেখানোয় তেলের ট্যাংকারটি আটক করা হয়েছে। 

শনিবার (২০ জুলাই) আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম এ তথ্য জানায়।

শুক্রবার (১৯ জুলাই) রাতে ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড (আইআরজিসি) এক বিবৃতিতে বলে, হরমুজ প্রণালিতে আন্তর্জাতিক সামুদ্রিক আইন লঙ্ঘন করার দায়ে ব্রিটিশ ট্যাংকার 'স্টেনা ইমরো' আটক করা হয়েছে। ট্যাংকারটিতে তল্লাশি চালানো হবে বলেও জানা গেছে।

এদিকে তেলের ট্যাংকার আটকের ঘটনায় ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী জেরেমি হান্ট বলেন, 'তেলের ট্যাংকার ফেরত না পাঠালে ইরানকে ভয়াবহ মাশুল গুনতে হবে।'

'স্টেনা ইমরো' জাহাজের মালিক কর্তৃপক্ষ জানায়, 'তারা তাদের জাহাজের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছে না। জাহাজে ২৩ জন সদস্য ছিলো এবং এটি ইরানের হরমুজ প্রণালির উত্তর দিকে যাচ্ছিল।' 

চীনা ছাত্রী হত্যাকারী মার্কিন যুবকের যাবজ্জীবন

চীনা ছাত্রী হত্যাকারী মার্কিন যুবকের যাবজ্জীবন
চীনা ছাত্রী জাং জিনজিয়াং/ ছবি: সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্রের ইলিনয় বিশ্ববিদ্যালয়ের এক চীনা ছাত্রীকে অপহরণ ও হত্যার অপরাধে এক মার্কিন পিএইচডি শিক্ষার্থীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের আদালত।

আসামি ব্রেন্ডট ক্রিস্টেনসেনকে মৃতুদণ্ড দেওয়া হবে কিনা এই সিদ্ধান্তে একমত হতে পারেনি বিচারকদের জুরি বোর্ড। পরে তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দেন আদালত।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, ২০১৭ সালের জুনে ইলিনয় বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে চীনা শিক্ষার্থী জাং জিনজিয়াংকে অপহরণ করে ক্রিস্টেনসেন। পরে জাং জিনজিয়াংকে বেসবলের ব্যাট দিয়ে পিটিয়ে মেরে ফেলে ক্রিস্টেনসেন এবং জাং জিনজিয়াংয়ের মাথা শরীর থেকে আলাদা করে ফেলে। শরীরের আলাদা করা অংশ আর খুঁজে পাওয়া যায়নি।

শিকাগোর দক্ষিণ-পশ্চিমের পিউরিয়ায় অনুষ্ঠিত পাঁচ সপ্তাহব্যাপী বিচার কার্যক্রমে উপস্থিত ছিলেন জাং জিনজিয়াংয়ের বাবা-মা ও বাগদত্তা।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/19/1563537807568.gif
যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত মার্কিন যুবক ক্রিস্টেনসেন/ ছবি: সংগৃহীত

 

চীনা কর্মকর্তাদের সামনেই এই বিচার কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। রায়ে ক্রিস্টেনসেনকে মৃতুদণ্ড না দেওয়ায় চীনজুড়ে সমালোচনার ঝড় উঠে।

ক্রিস্টেনসেনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ডিস্ট্রিক্ট জজ জেমস শহিদ বলেন, ‘ক্রিস্টেনসেনের এই নৃশংস হত্যাকাণ্ড বর্ণনা করার মতো না।’ রায় অনুযায়ী ক্রিস্টেনসেনের কারাগার থেকে ছাড়া পাওয়ার সম্ভাবনা নেই।

বিচারক আরও বলেন যে, জাংয়ের শরীরের অবশিষ্ট অংশ কোথায় আছে তা হয়তো তার পরিবার আর নাও জানতে পারে।

রায় ঘোষণার সময় ক্রিস্টেনসেন কোনো কথা বলেনি। এদিকে জাংয়ের বাবা বঙ্গাও জাং গণমাধ্যমকে বলেন যে, জাংয়ের দেহাবশেষ ফিরে না পাওয়া পর্যন্ত তার পরিবার শান্তি পাবে না।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র