Alexa

বাঁচার আশায় শিক্ষার্থীরা ছাদ থেকে লাফিয়ে পড়ে

বাঁচার আশায় শিক্ষার্থীরা ছাদ থেকে লাফিয়ে পড়ে

ভারতে চারতলা ভবনে আগুন, ছবি: সংগৃহীত

নরেন্দ্র মোদির রাজ্য গুজরাটে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ১৯ জন নিহত হয়েছে। নিহতদের বেশিরভাগের বয়স ১৪-১৭ বছর। এ সময় বহু শিক্ষার্থী নিজেদের বাঁচাতে ছাদ থেকে লাফিয়ে পড়ে।

শুক্রবার (২৪ মে) স্থানীয় সময় বিকাল ৩.৩০ মিনিটে আগুন লাগার ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, চারতলা ওই ভবনের ওপরের তলায় একটি কোচিং সেন্টার রয়েছে। নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থীরা সেখানে কোচিং করত। ঘটনার সময় দশম ও দ্বাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থীরা তাদের বোর্ড পরীক্ষার জন্য শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি নিচ্ছিল।

আগুন লাগার পরপরই শিক্ষার্থীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। তারা দ্রুত বিল্ডিং থেকে ছেড়ে চলে যাওয়ার চেষ্টা করেন। এ সময় ভয় ও আতঙ্কে কিছু শিক্ষার্থী ছাদে গিয়ে আশ্রয় নেয়। এ সময় নিজেদের বাঁচাতে অনেকেই ছাদ থেকে লাফিয়ে পড়ে। নিহতদের বেশিরভাগ ছাদ থেকে লাফিয়ে পড়ার কারণে মৃত্যুবরণ করে।

আরও পড়ুন: গুজরাটে চারতলা ভবনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে নিহত ১৯

ছাদ থেকে লাফিয়ে পড়ার কয়েকটি ভিডিও দৃশ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে।

টাক্সিলা কমপ্লেক্স নামের ওই বিল্ডিংয়ের উপরের দুইটি তলায় আগুন লাগে। ধারণা করা হচ্ছে প্রথম একটি তালায় আগুন লাগে। পরে সেটা ওপরের তলায় ছড়িয়ে পড়ে।

সুরাতের এমপি দর্শনা জারদোশ জানান, আগুন লাগার পরপরই আশপাশের মানুষ উদ্ধার কাজে নেমে পড়েন। এ সময় তারা ছাদে আশ্রয় নেয়া শিক্ষার্থীদের নিচে ঝাপ দেয়ার জন্য অনুরোধ করেন। ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, তাদের কথায় আশ্বস্ত হয়ে অনেক শিক্ষার্থী ছাদ থেকে লাফিয়ে পড়ে এবং নিচে থাকা জনতা তাদের উদ্ধার করে। তাদের মধ্যে কিছু শিক্ষার্থীকে আশঙ্কা অবস্থায় উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ জানিয়েছে, প্রাথমিক অবস্থায় আগুন লাগার প্রকৃত কারণ জানা যায়নি। আগুন লাগার পরপরই বাড়ির মালিক পালিয়ে যায়।

রাজ্য সরকার প্রত্যেক নিহতের পরিবারকে ৪ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেয়ার আশ্বাস দিয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :