যে বিয়েতে কনের বাড়িতে যায় না বর

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ভারতের গুজরাটের সুরখেদা, সানদা ও আম্বাল গ্রামের উপজাতিদের বিয়ের অনুষ্ঠানে বর উপস্থিত থাকে না। এটি তাদের ঐতিহ্যের একটি অংশ। বরের অবিবাহিত বোন বা তার পরিবারের যেকোনো অবিবাহিত নারী উপস্থিত থেকে এই বিয়ের কাজ সম্পন্ন করে।

জানা গেছে, ওই তিন গ্রামের তিন দেবতাই ছিলেন অবিবাহিত। তাদের সম্মানে বরদের কনের বাড়িতে যেতে দেয়া হয় না। বিয়ের আগে বরকে তার নিজের বাড়িতে একটি ঘরের মধ্যে রাখা হয়। তারা বিশ্বাস করে এটি তাদের বরকে যেকোনো ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করবে।

এদিকে বিয়েতে কনের বাড়িতে নিজে উপস্থিত না হলেও শেরওয়ানি, মাথায় সাফা পরে সেজে থাকে বর। সঙ্গে একটি ঐতিহ্যগত তলোয়ার বহন করে।

বিয়ে সম্পন্ন না হওয়া পর্যন্ত বর তার বাড়িতে মায়ের সঙ্গে বসে থাকে। আর বিয়ে শেষে বরের বোন কনেকে নিয়ে তার বাড়িতে উপস্থিত হয়।

স্থানীয় অধিবাসী সুরখেদা গ্রামের কঞ্জীবাই রাথওয়া জানান, বিয়েতে একজন বর যেসব কাজ করে থাকেন, তার সবগুলোই তার বোন করে থাকে। এমনকি কনেকে নিয়ে সাতপাকেও ঘোরে সে।

সুরখেদা গ্রামের প্রধান রামসিংহাই রাথওয়া বলেন, ‘যখনই কেউ বিয়ের এই রীতিনীতিকে উপেক্ষা করে, তখনই কোনো না কোনো দুর্ঘটনা ঘটে। আমরা বিশ্বাস করি, যদি এই রীতিনীতি আমরা অনুসরণ না করি তাহলে আমাদের কোনো না কোনো ক্ষতি হবে। এর প্রমাণও আমরা পেয়েছি। কিছু দম্পতি এই নিয়মকে অবহেলা করেছিল, তারা নিঃশেষ হয়ে গেছে।’

আপনার মতামত লিখুন :